পাবনায় নির্বাচনী সংঘর্ষে আহত যুবকের মৃত্যু

pabna n
❏ বুধবার, নভেম্বর ১০, ২০২১ দেশের খবর, রাজশাহী

আব্দুল লতিফ রঞ্জু, পাবনা প্রতিনিধি- পাবনার সুজানগর উপজেলার ভায়না ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে দুই পক্ষের সংঘর্ষে আহত যুবক সবুজ হোসেন (৩৫) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

ভায়না ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আমিন উদ্দিন আর স্বতন্ত্র প্রার্থী ওমর ফারুকের কর্মী সমর্থকদের মধ্যে সোমবার (০৯ নভেম্বর) সন্ধ্যায় সংঘর্ষে আহত হন সবুজ।

নিহত সবুজ চলনা গ্রামের হাচেন আলীর ছেলে। তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী ওমর ফারুকের সমর্থক ছিলেন।

আনারস প্রতীকের স্বতন্ত্র (বিদ্রোহী) চেয়ারম্যান প্রার্থী ওমর ফারুক অভিযোগ করে বলেন, নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী আমিন উদ্দিনের সমর্থকরা সোমবার সন্ধ্যায় অতর্কিতভাবে হামলা চালিয়ে আমার নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর করে। সেইসাথে এলোপাথারী গুলিবর্ষণ ও বেশ কয়েকজনকে কুপিয়ে জখম করে।

এর মধ্যে গুরুতর আহত অবস্থায় সবুজ কে প্রথমে পাবনা জেনারেল হাসপাতাল ও পরে অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে সবুজের মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় নৌকার চেয়ারম্যান প্রার্থী আমিন উদ্দিনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, অভিযোগ সঠিক নয়। সেখানে আমার লোকজন হামলা চালায়নি। যিনি মারা গেছেন তিনি একসময় আমারই সমর্থক ছিলেন। এখন তারা তাকে নিজেদের সমর্থক দাবি করে উল্টো আমাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করছে।

সুজানগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় নিহত সবুজের ভাই আনোয়ার হোসেন বাদী হয়ে ১৫ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা ৫০ জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেছেন। এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি।