🕓 সংবাদ শিরোনাম

শিশুকে ডায়াবিটিস থেকে দূরে রাখতে কী কী সতর্কতা অবলম্বন করবেনদক্ষিণ-পূর্ব এশিয়াকে তৈরি থাকার বার্তা দিল ”হু”বুড়িগঙ্গায় ’সাকার ফিশ’র দখলে, হুমকিতে দেশীয় মাছরোহিঙ্গা শরণার্থী শিবির থেকে ধারালো অস্ত্রসহ আটক-৫করতোয়ার তীরে নিথর পড়ে ছিলো মস্তকহীন নবজাতক!গাজীপুরে দুই শিশুকে ‘হত্যার’ পর ফ্যানে ঝুলে আত্মহত্যার চেষ্টা মা’য়ের!ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদ: জাহাজ চলাচল বন্ধ; সহস্রাধিক পর্যটক আটকা সেন্টমার্টিনেআখেরী মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হলো নীলফামারীর তিনদিন ব্যাপী ইজতেমাবঙ্গবন্ধুর শাসনব্যবস্থা নিয়ে গবেষণা করতে মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রীর আহ্বানভোটে হেরে ক্ষোভ মেটাতে রাস্তায় বেড়া দিলেন প্রার্থী, ভোগান্তিতে পুরো গ্রাম!

  • আজ রবিবার, ২০ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ ৷ ৫ ডিসেম্বর, ২০২১ ৷

খালেদার প্রতি মানবতা দেখিয়েছি, বিদেশ যাওয়া আইনগত ব্যাপার: প্রধানমন্ত্রী

pm 234m
❏ বুধবার, নভেম্বর ১৭, ২০২১ ফিচার

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক- নিজের ক্ষমতাবলে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে কারাগার থেকে মুক্ত করে বাসায় থাকতে দিয়েছেন উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, তার প্রতি আমি মানবতা দেখিয়েছি। আমার হাতে যেটুকু পাওয়ার সেটুকু দেখিয়েছি।

বিদেশে চিকিৎসা দেওয়ার অনুমতি প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এখানে আমার কিছু করার নেই, আমি যেটা করার করেছি। বাকিটা আইনগত ব্যাপার।

যুক্তরাজ্যে অনুষ্ঠিত ২৬তম বিশ্ব জলবায়ু শীর্ষ সম্মেলন (কপ২৬) ও ফ্রান্স সফর নিয়ে বুধবার বিকেলে গণভবনে সংবাদ সম্মেলনে আসেন প্রধানমন্ত্রী। এ সময় এক সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

বিএনপি চেয়ারপারসনের বিদেশ যাওয়া প্রসঙ্গে সাংবাদিকের করা প্রশ্নের উত্তরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমার কাছে চান কীভাবে বলেন তো, খালেদা জিয়াকে যে বাসায় থাকতে দিছি, চিকিৎসা করতে দিছি এটাই কি বেশি না?’

তিনি বলেন, ‘আপনাকে যদি কেউ হত্যা করার চেষ্টা করত আপনি কি তাকে গলায় ফুলের মালা দিয়ে নিয়ে আসার চেষ্টা করতেন? আপনার পরিবারকে যদি কেউ হত্যা করত, আর সেই হত্যাকারীকে বিচার না করে পুরস্কৃত করে বিভিন্ন দূতাবাসে চাকরি দিত, তার জন্য আপনি কী করতেন?’

প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, ‘আমি থাকতে হত্যাকারীকে ১৫ ফেব্রুয়ারি, ‘৯৬ সালে ইলেকশনে ভোট দিয়ে পার্লামেন্টে বসানো হলো, যেখানে আমি বিরোধী দলের নেতা ছিলাম, সেখানে বসানো হলো কর্নেল রশিদকে। কে করেছিল, খালেদা জিয়া’।

তিনি বলেন, ‘খায়রুজ্জামান আসামি, তার মামলার রায় হবে, চাকরি নাই, খালেদা জিয়া ক্ষমতায় এসে সে আসামিকে চাকরি দিল ফরেন মিনিস্ট্রিতে, অ্যাম্বাসেডর করে পাঠাল’।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আবার গ্রেনেড হামলার পর বলল কী, আমি নিজেই ভ্যানিটি ব্যাগে গ্রেনেড নিয়ে আত্মহত্যা করতে গিয়েছিলাম। কোটালিপাড়ায় বোমা পোতার আগে তার বক্তব্য কী ছিল, শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী তো দূরের কথা কোনো দিন বিরোধী দলের নেতাও হতে পারবে না। সে ভেবেছিল মরেই তো যাব, রাখে আল্লাহ মারে কে আর মারে আল্লাহ রাখে কে’?

‘এখন আমার বেলায় সেটা হচ্ছে যে, রাখে আল্লাহ মারে কে?’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আরো বলেন, ‘সেখানে তারপরও খালেদা জিয়ার জন্য এত দয়া দেখাতে আমাকে বলেন, এই প্রশ্ন করলে আমার মনে হয় আপনাদের একটু লজ্জা হওয়া উচিত। যারা আমার বাপ-মা-ভাই আমার ছোট রাসেলকে পর্যন্ত হত্যা করেছে… তারপরও আমরা অমানুষ না, অমানুষ না বলেই তাকে অন্তত আমার নির্বাহী ক্ষমতা যেটুকু আছে, আমি সেটুকু দিয়ে তার বাসায় থাকার চিকিৎসার ব্যবস্থা করে দিয়েছি। বাকিটা আইনগত ব্যাপার। তারপর দুর্নীতি করে করে এ দেশটাকে একেবারে ধ্বংসের দিকে নিয়ে গেছে’।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘গ্রেনেড হামলার পর এতজন আহত আমরা ২২ জন মানুষ মারা গেছে, একদিন পার্লামেন্টে সেটার ওপর আলোচনা করতে দেয়নি আমরা বিষয়টা নিয়ে আলোচনা করতে পারিনি। এত বড় অমানবিক যে তাকেও আমি মানবতা দেখিয়েছি আমার হাতে যেটুকু পাওয়ার সেটুকু আমি দেখিয়েছি, আর কত চান? এখন সে অসুস্থ… ওই যে আমি বললাম না, রাখে আল্লাহ মারে কে, মারে আল্লাহ রাখে কে’।