🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ বৃহস্পতিবার, ২৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ ৷ ৯ ডিসেম্বর, ২০২১ ৷

মেয়র পদও হারাতে পারেন জাহাঙ্গীর আলম

jagangir rn
❏ শনিবার, নভেম্বর ২০, ২০২১ ফিচার

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- গাজীপুরের মেয়র জাহাঙ্গীর আলমকে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে দলটির কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের এক বৈঠকে শুক্রবার এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

দলটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, জাহাঙ্গীর আলমকে গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের পদ থেকে আজীবন বহিষ্কার করা হয়েছে। একইসাথে দলে তার প্রাথমিক সদস্যপদও বাতিল করা হয়েছে।

আওয়ামী লীগের নেতারা জানিয়েছেন, একই সঙ্গে জাহাঙ্গীর আলমকে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়রের পদ থেকেও সরিয়ে দেয়ার ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকের পর জানানো হয়, বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা রাষ্ট্রপতি শেখ মুজিবুর রহমান এবং মুক্তিযুদ্ধের শহীদের নিয়ে কটাক্ষ করে জাহাঙ্গীর আলম দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ করেছেন, সেজন্য তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

দলটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুবুল আলম হানিফ গণমাধ্যমকে বলেছেন, জাহাঙ্গীর আলম ২০১৮ সালে দলীয় মনোনয়নে গাজীপুরের মেয়র নির্বাচিত হয়েছিলেন। এখন দল থেকে বহিষ্কার করায় তিনি মেয়র পদে থাকতে পারবেন না। এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, জাহাঙ্গীর আলমকে দল থেকে বহিষ্কারের এই সিদ্ধান্ত এখন স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়কে জানানো হবে এবং এরপর মন্ত্রণালয় আইনগত ব্যবস্থা নেবে।

এসময় তিনি বলেন, সবাই একবাক্যে তার (জাহাঙ্গীর আলম) বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য দাবি জানিয়েছে। সেই প্রেক্ষিতে গাজীপুরের মেয়র জাহাঙ্গীর আলমকে মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক পদ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। তাকে আওয়ামী লীগের প্রাথমিক সদস্য পদ থেকেও আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে।

তিনি বলেন, প্রাথমিক সদস্য পদ থেকে বহিষ্কার হলে সেক্ষেত্রে স্থায়ী-অস্থায়ীর প্রশ্ন থাকে না। বহিষ্কার, (মানে আজীবন) বহিষ্কারই।

বক্তব্য সুপার এডিটেড দাবি করেছিলেন, যাচাই-বাছাই করেছেন কি না এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, মিটিং তো অনেক দিন পরে হয়েছে। কাজেই আমাদের পার্টি, আমাদের পার্টির সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজেও এই বিষয়টি ভালোভাবেই খোঁজ-খবর নিয়ে, পরীক্ষা-নিরীক্ষা, যাচাই-বাছাই করেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

এদিকে দল থেকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত মাথা পেতে নিয়েছেন মেয়র জাহাঙ্গীর আলম। তবে বলেছেন, পদ না থাকলেও তিনি সব সময় আওয়ামী লীগকে ধারণ করেছিলেন, এখনও তা ধারণ করেন।

তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, ‘জাতির পিতার কন্যা শেখ হাসিনার সিদ্ধান্তই আমার সিদ্ধান্ত। প্রিয় সংগঠন আওয়ামী লীগের সিদ্ধান্তই আমার সিদ্ধান্ত। দলীয় প্রধান ও দল যে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে, সেটা আমি মাথা পেতে নিয়েছি। আমার অস্থিমজ্জাজুড়েই আওয়ামী লীগ।’

মেয়র জাহাঙ্গীর বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকে ছোটবেলা থেকেই ভালবাসি, শ্রদ্ধা করি। তাঁকে বা মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে কোনো কুটূক্তি করিনি। সব ষড়যন্ত্র হয়েছে। আগেও বলেছি নেত্রীর আমার অভিভাবক। তিনি ও দল যে সিদ্ধান্ত নেয়, মেনে নিব। তবে দল থেকে আমাকে সিদ্ধান্তের ব্যাপারে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত কিছু জানানো হয়নি।’