• আজ বুধবার, ১৬ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ ৷ ১ ডিসেম্বর, ২০২১ ৷

বাসে ধর্ষণের হুমকি: আল্টিমেটাম দিয়ে সড়ক ছাড়লেন শিক্ষার্থীরা

students m23
❏ রবিবার, নভেম্বর ২১, ২০২১ আলোচিত

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ধর্ষণের হুমকি দেওয়া বাসের হেলপারকে গ্রেফতারের আলটিমেটাম দিয়ে আন্দোলন স্থগিত করেছেন বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজের শিক্ষার্থীরা।

রোববার (২১ নভেম্বর) সকাল ৯টা থেকে রাজধানীর বকশিবাজার মোড়ে সড়ক অবরোধ করেন কলেজটির শিক্ষার্থীরা। পরে অভিযুক্ত বাসের হেলপারকে গ্রেফতারসহ তিন দফা দাবি জানিয়ে দুপুর ১২টার দিকে আন্দোলন স্থগিতের ঘোষণা দেন তারা।

তাদের দাবির মধ্যে রয়েছে, ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ধর্ষণের হুমকি দেওয়া বাসের হেলপারের গ্রেফতার ও শাস্তি, বাসে নারী শিক্ষার্থীদের হয়রানি বন্ধ করা, সারা দেশে শিক্ষার্থীদের হাফপাস চালু করা।

দাবি আদায় না হলে আগামীকাল আবারও রাস্তায় নামার ঘোষণা দিয়ে আজকের বিক্ষোভ শেষ করেন শিক্ষার্থীরা।

এর আগে সকাল ৯টা থেকে রাজধানীর বকশিবাজার মোড়ে সড়ক অবরোধ করেন তারা।

জানা গেছে, গতকাল শনিবার বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজের এক ছাত্রী ফেসবুকে বাস চালক ও হেলপারের কাছ থেকে ধর্ষণের হুমকি পাওয়ার অভিযোগ করার ঘটনায় এই আন্দোলনের সূত্রপাত। তিনি অভিযোগ করেন, হাফ ভাড়া দিতে চাওয়ায় বাসের চালক ও হেলপার তার সঙ্গে ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণ করেন এবং প্রকাশ্যে ধর্ষণের হুমকি দেন।

এই ঘটনার প্রতিবাদ ও বিচারের দাবিতে কলেজটির শিক্ষার্থীরা রাজধানীর বকশী বাজার সড়ক অবরোধ করলে সেখানে ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীসহ সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা অংশ নেন।

অভিযোগকারী ওই ছাত্রী বলেন, শ‌নিরআখড়া থে‌কে ঠিকানা প‌রিবহ‌নের বা‌সে কলেজে আসার পথে ভাড়া নিয়ে হেলপারের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয় তার। এসময় হেলপার তার সঙ্গে খারাপ ভাষায় কথা ব‌লেন। তিনি বলেন, পরে বাস থেকে নামা‌র সম‌য়ে ধর্ষণ ও শারী‌রিক নির্যাত‌নের হু‌মক‌ি দেয় হেলপার। তিনি জানান, এই ঘটনায় তিনি মানসিকভাবে আঘাত পেয়েছেন।

কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘হাফ পাসের কারণে অনেক বাস আমাদের তুলতে চায় না। হাফ ভাড়া দিতে গেলে হ্যারাসমেন্টেরও শিকার হতে হয়। গতকাল আমাদের এক সহপাঠী ধর্ষণের হুমকি পেয়েছে। আমরা এর বিচার চাই। আর হাফ পাস কার্যকর চাই।’

বিক্ষোভে তারা ধর্ষণের হুমকির বিচার চেয়ে এবং হাফ পাসের দাবিতে বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করছেন। ‘আমার বোন নির্যাতিত কেন, বিচার চাই বিচার চাই’, ‘হাফ পাস আমাদের অধিকার, দিতে হবে দিতে হবে’ ইত্যাদি স্লোগানও তুলতে শোনা যায়।