• আজ শুক্রবার, ২৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ৯ ডিসেম্বর, ২০২২ ৷

নওগাঁ থেকে চুরি যাওয়া চাউল চাটমোহরে জব্দ, ২ ব্যবসায়ী আটক

atok n234
❏ শনিবার, ডিসেম্বর ৪, ২০২১ দেশের খবর, রাজশাহী

আব্দুল লতিফ রঞ্জু, পাবনা প্রতিনিধি- নওগাঁর মহাদেবপুর থেকে চুরি যাওয়া ২৪২ বস্তা চাউল পাবনার চাটমোহর ও আটঘরিয়া থেকে জব্দ করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় দুই ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়েছে। মহাদেবপুর থানা পুলিশ শনিবার সকালে চাটমোহর থানা পুলিশের সহায়তায় চাউল জব্দ ও দুইজনকে আটক করে।

আটককৃতরা হলেন, চাটমোহর উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের বাহাদুরপুর পশ্চিমপাড়া গ্রামের জোনাব আলীর ছেলে রফিকুল ইসলাম (৪০) ও আটঘরিয়া উপজেলার কুমেশ্বর গ্রামের মৃত ছইমুদ্দিনের ছেলে শাহজাহান প্রামানিক (৪৫)।

অভিযানে নেতৃত্ব দেয়া মহাদেবপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ দায়ের করা অভিযোগের বরাত দিয়ে বলেন, মহাদেবপুরের ভাই ভাই রাইস এজেন্সি থেকে ২৮০ বস্তা চাউল নিয়ে একটি ট্রাক ফেনীর উদ্দেশ্যে রওনা হয় গত ১ ডিসেম্বর। কিন্তু সে চাউল আর গন্তব্যে পৌঁছায়নি। চাউল মিল মালিক মহাদেবপুরের আবু নাসিম মশিউর রহমান খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন, ট্রাকচালক তাঁর চাউল পাবনার আটঘরিয়ায় বিক্রি করে পালিয়েছে।

এ ঘটনায় তিনি মহাদেবপুর থানায় মামলা করেন। মামলা নম্বর ৩। সেই মামলার তদন্তের সূত্র ধরে মহাদেবপুর থানা পুলিশ শনিবার সকালে চাটমোহর থানা পুলিশের সহায়তায় চাটমোহর ও আটঘরিয়ায় অভিযান চালায়। এ সময় আটঘরিয়ায় শাহজাহান আলী ও চাটমোহরের রফিকুলের গোডাউন থেকে ২৪২ বস্তা চাউল জব্দ করা হয়। আটক করা হয় দুই চাউল ব্যবসায়ীকে। বাকি ৩৮ বস্তা চাউলের সন্ধান মেলেনি। আটকের পর দুপুরেই তাদেরকে মহাদেবপুর থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। পলাতক ট্রাকচালককে গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

মহাদেবপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ বলেন, পলাতক ট্রাকচালকের নাম আব্দুস সালাম (৫০)। তার বাড়ি পাবনার আমিনপুর থানা এলাকায়। পিতার নাম আনোয়ার হোসেন। এভাবেই ট্রাকচালকের নাম ঠিকানা দেয়া আছে। তার ট্রাকের যে নাম্বার ব্যবহার করেছে সেটি ভুয়া। তাই তার নাম ঠিকানা কতুটুক সত্য সেটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ আনোয়ার হোসেন চাউলউদ্ধার ও গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, মহাদেবপুর থানার মামলায় তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। চাটমোহর থানায় এ বিষয়ে একটি সাধারণ ডায়েরী (জিডি) হয়েছে।