সু চির ৪ বছরের কারাদণ্ড


❏ সোমবার, ডিসেম্বর ৬, ২০২১ আন্তর্জাতিক, ফিচার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক- সেনা অভ্যুত্থানের মাধ্যমে মিয়ানমারে ক্ষমতাচ্যুত গণতান্ত্রিক নেত্রী অং সান সু চিকে ৪ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে দেশটির সামরিক শাসক।

আজ সোমবার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ তথ্য জানিয়েছে। সামরিক সরকারের বিরোধিতা করে উসকানি ও করোনার বিধিনিষেধ লঙ্ঘনের দায়ে সু চিকে এ কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

৭৬ বছর বয়সী সু চির বিরুদ্ধে দেশটির জান্তা সরকার বিভিন্ন অভিযোগে এক ডজনের মতো মামলা করেছে। যদিও এ নেত্রী তার বিরুদ্ধে আনা সবগুলো অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

জান্তা সরকারের এক মুখপাত্র ফরাসি বার্তা সংস্থা এফপিকে জানিয়েছেন, উসকানির বিরুদ্ধে দুই বছর এবং কোভিড-১৯ নিয়ম লঙ্ঘনের দায়ে আরও দুই বছরসহ মোট চার বছরের সাজা ঘোষণা করেন আদালত। তাকে কারাগারে রাখা হবে কিনা তা স্পষ্ট করা হয়নি। গত ৩০ নভেম্বর তার রায় ঘোষণা হওয়ার কথা থাকলে তা পিছিয়ে ৬ ডিসেম্বর ধার্য করা হয়।

সু চির বিরুদ্ধে প্রায় ১০ মাসে ঔপনিবেশিক আমলের রাষ্ট্রীয় গোপনীয়তা আইন লঙ্ঘন, দুর্নীতি, প্রতারণা, করোনাভাইরাস মহামারিকালীন বিধিনিষেধ উপেক্ষা, অবৈধ ওয়াকিটকি আমদানিসহ কমপক্ষে ১২টি মামলা করেছে মিয়ানমার সেনাবাহিনী।

সব শেষ তার বিরুদ্ধে হেলিকপ্টার কেনা ও ভাঢ়া দেয়ায় দুর্নীতির অভিযোগে একটি মামলা করে সেনা সরকার।

৭৬ বছর বয়সী সু চি তার দেশের গণতান্ত্রিক সরকারের নেতৃত্ব দিচ্ছিলেন। গত বছর তার দল এনএলডি আবার নির্বাচিত হলে সেনাবাহিনী নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগ আনে।

চলতি বছরের ১ ফেব্রুয়ারি ভোরে সু চিকে আটক করে সামরিক বাহিনী। এরপর তার সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করে সামরিক শাসন জারি করে। প্রতিবাদে দেশজুড়ে বিক্ষোভ অব্যাহত রেছে বেসামরিক মানুষ।