• আজ সোমবার, ১০ মাঘ, ১৪২৮ ৷ ২৪ জানুয়ারি, ২০২২ ৷

আত্মহত্যার পর মিললো যুবকের লেখা ১০ পাতার মর্মস্পর্শী সুইসাইড নোট

সুইসাইড নোট
❏ শনিবার, ডিসেম্বর ১১, ২০২১ দেশের খবর, রাজশাহী

আব্দুল লতিফ রঞ্জু, পাবনা প্রতিনিধি: প্রেমিকার উপর অভিমান করে গত মঙ্গলবার (০৭ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে নিজ বাড়িতে গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করে এইচএসসি পরীক্ষার্থী শুভ দাস (১৮)।

তার মৃত্যু নাড়া দিয়ে যায় অনেককে। সবার মনে প্রশ্ন কি এমন ঘটেছিল? যে এভাবে একটি ছেলেকে আত্মহত্যার পথ বেছে নিতে হলো।

পাবনার চাটমোহর পৌর সদরের কালিসাগরপাড় মহল্লার সুব্রত দাসের ছেলে শুভ দাস মৃত্যুর আগে লিখে রেখে গেছেন দশ পাতার সুইসাইড নোট। কি আছে শুভ দাসের সুইসাইড নোটে? কেন ই বা তিনি বেছে নিলেন আত্মহননের পথ? কি এমন হয়েছিল তার প্রেমিকার সাথে? যা নিয়ে ছিলো তার এত অভিমান!

এমন সব প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে গিয়ে এ প্রতিবেদকের হাতে আসে সুইসাইড নোটের সেই দশটি পাতা। যা শুভ দাসের হাতে লেখা। যেখানে মিলেছে অনেক প্রশ্নের উত্তর।

কি আছে শুভ দাসের ১০ পাতার সুইসাইড নোটে: 

চিঠিতে শুভ দাস তার প্রেমিকার বিরুদ্ধে বিস্তর প্রতারণার অভিযোগ তুলেছেন। সেখানে মেয়েটি তার সাথে প্রেমের অভিনয় করে বারবার ঠকিয়েছে বলে উল্লেখ করেছে। সুইসাইড নোটে লেখা থেকে স্পষ্ট হয়েছে শুভ দাস তার প্রেমিকার উপর অভিমান করেই ক্ষোভে-দুঃখে আত্মহত্যার পথ বেছে নিতে বাধ্য হয়েছে।

সুইসাইড নোটের প্রথম পাতার শুরুতে প্রেমিকার নাম উল্লেখ করে লেখা হয়েছে ‘তুমি আমার সাথে এরকম করলা কেন। আমি তো তোমাকে ঠকাই নাই। তুমি যা বলতা, আমি তাই শুনতাম, কোনো মেয়ের সাথে কথাও বলতাম না। তুমি মানা করতা, সিগারেট খেতাম না। কোনো নেশা পানি করতাম না। তাইলে সবাইকে তুমি মিথ্যা কেন বলছো যে, আমি ভাল না, নেশা খোর। তুমি যা চাইতা তাই দিতাম। ৪-৫ বছর আমাকে ব্যবহার করে গেলা।’

সুইসাইড ওই নোটের বিভিন্ন জায়গায় তার প্রেমিকা অন্য কয়েকটি ছেলের সাথে প্রেম করতো উল্লেখ করে তার সাথে রাগ-অভিমানের কথা জানানো হয়েছে। গেমস খেলার জন্য প্রেমিকাকে ৩০ হাজার টাকায় মোবাইল কিনে দিয়েছেন শুভ। চিঠিতে শুভ দাসের আক্ষেপ ঝরেছে।

প্রেমের নামে শুভকে বারবার ঠকিয়েছে তার প্রেমিকা। অনেক রাত তারা একসাথে কাটিয়েছে। প্রেমিকার মা সব জানতো। তাকে বাড়ির সব কাজে ব্যবহার করতো।

সুইসাইড নোটের আরেকটি পাতায় লেখা রয়েছে ‘তোমাকে আমি মরার কথা বললে তুমি বলতে মরো, মরলে নাকি তোমার ভাল। তাই মরে তোমার ভাল করে দিয়ে গেলাম। আর সব সত্যি কথা বলে গেলাম। মিথ্যা কথা একটাও বলি নাই।’ শেষের পাতায় শুভ লিখেছেন, ‘তোমাকে সত্যি পাগলের মতো ভালবাসতাম। তুমি দাম দিলা না। শুধু ব্যবহারই করে গেলা মা-মেয়ে মিলে। তুমি ও তোমার মা দায়ী আমার মৃত্যুর জন্য।’

এ বিষয়ে চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘শুভ দাসের মৃত্যুর ঘটনায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের হয়েছে। দশ পাতার সুইসাইড নোট জব্দ করা হয়েছে। সেগুলো যাচাই বাছাই করে দেখা হচ্ছে। পরিবারের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে কোনো অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে’।