🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ শুক্রবার, ১৪ মাঘ, ১৪২৮ ৷ ২৮ জানুয়ারি, ২০২২ ৷

ওমিক্রন প্রতিরোধে বুস্টার ডোজ নিয়ে জোড় প্রস্তুতি চালাচ্ছে স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয়

বুস্টার ডোজ
❏ শনিবার, ডিসেম্বর ১১, ২০২১ ফিচার

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক:  দক্ষিণ আফ্রিকায় শনাক্ত হওয়া করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এর ধরন ‘ওমিক্রন’ শেষ পর্যন্ত চলে এসেছে বাংলাদেশেও। প্রথমবারের মতো শনিবার দুই নারী ক্রিকেটারের মধ্যে ওমিক্রন শনাক্ত হয়েছে, যারা সম্প্রতি জিম্বাবুয়ে থেকে দেশে ফিরেন। এ নিয়ে উদ্বিগ্ন সাধারণ মানুষ।

তবে আশার কথা হল যদিও প্রথমে বিপজ্জনক মনে করা হচ্ছিল ধরনটিকে, এখন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে সেটা তত ভয়ংকর নয়। ইতিমধ্যে বিশ্বের ৬০টির বেশি দেশে ওমিক্রন ছড়িয়ে পড়লেও এই ধরনে আক্রান্ত কেউ মারা যাওয়ার খবর পাওয়া যায়নি। বিজ্ঞানীরা বলছেন, ওমিক্রন ধারণার চেয়ে বেশি গতিতে ছড়িয়ে পড়ছে, তবে এটি ডেল্টার মতো এতটা প্রাণঘাতী নয়।

এদিকে, করোনার এই ভ্যারিয়েন্টটি যেন আর না ছড়াতে পারে সে ব্যাপারে সতর্কতামূলক পদক্ষেপ নিচ্ছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। পাশাপাশি করোনার টিকার বুস্টার ডোজ প্রয়োগের ব্যাপারে জোর প্রস্তুতিও শুরু করেছে মন্ত্রণালয়।

শনিবার সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক জানান, আগামী সাত থেকে দশ দিনের মধ্যে বুস্টার ডোজ দেওয়া শুরু হতে পারে। তিনি জানান, তারা জাতীয় পরামর্শক কমিটির সুপারিশের অপেক্ষায় আছেন। তবে এর আগে বুস্টার ডোজের অ্যাপ আপডেট করা হচ্ছে। এছাড়া কারা এই টিকা পেতে পারেন তাদের সম্ভাব্য একটি তালিকা তৈরির কাজ চলছে বলে জানান মন্ত্রী।

বুস্টার ডোজ কারা পাবেন এ ব্যাপারে জাহিদ মালেক বলেন, পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে বয়স্কদের বুস্টার ডোজ দিচ্ছে। আমরাও বয়স্কদের বুস্টার ডোজ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। ষাটোর্ধ্ব ও ফ্রন্টলাইনার যারা তাদের আমরা বুস্টার ডোজ দেব।

বেশি দিন হয়ে গেলে করোনার টিকার কার্যকারিতা কমে আসে। এজন্য বিশ্বের কোনো কোনো দেশ বাড়তি এক ডোজ করে টিকা দিচ্ছে। এটাকে বুস্টার ডোজ বলা হয়।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সবশেষ তথ্যানুযায়ী, দেশে এ পর্যন্ত ২৫ শতাংশের মতো মানুষ দুই ডোজ টিকা পেয়েছেন। অন্তত ৮০ শতাংশ মানুষ দুই ডোজ করে টিকা পাওয়ার আগে বুস্টার ডোজের পক্ষে ছিলেন না বিশেষজ্ঞরা। কিন্তু করোনার নতুন ধরন ওমিক্রণ সংক্রমণ ছড়ানোর পর আগের অবস্থান থেকে সরে এসে বিশেষজ্ঞরা বুস্টার ডোজ চালুর পক্ষে মত দিয়েছেন। দেশে ওমিক্রন শনাক্ত হওয়ার পর সেই প্রক্রিয়া দ্রুত শুরু করতে চাচ্ছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

বুস্টার ডোজ কি ওমিক্রন থেকে সুরক্ষা দেবে?

টিকার বুস্টার ডোজ ওমিক্রন থেকে সুরক্ষা দিতে পারবে কি না সেটা নিয়েও আছে দুই ধরনের মত। যুক্তরাজ্যের বিজ্ঞানীরা বলছেন, প্রচলিত টিকার দুই ডোজ করোনাভাইরাসের ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত হওয়া থেকে দূরে রাখতে যথেষ্ট নয়। তবে দুই ডোজের পর আরেকটি বুস্টার ডোজ ৭৫ শতাংশের কাছাকাছি সুরক্ষা দিতে পারে।

ফাইজার ও বায়োনটেকের আবিষ্কৃত টিকার বুস্টার ডোজ ২৫ গুণ শক্তিশালী বলে দাবি করেছে প্রতিষ্ঠান দুটি। তাদের টিকা ওমিক্রন থেকে সুরক্ষা দিতে পারবে বলে রিপোর্ট পেশ করেছে ফাইজার-বায়োনটেক।

এর আগে গত বুধবার প্রকাশিত রিপোর্টে বলা হয়, বুস্টার নেওয়ার পর রক্তপরীক্ষা করে দেখা গেছে, করোনার অ্যান্টিবডি ২৫ গুণ কার্যকরী হচ্ছে ওই ডোজে। শুধু তাই নয়, ওমিক্রন বিষয়ে এখনো পর্যন্ত যা জানা গেছে, তার নিরিখেও ওই বুস্টার ডোজ কার্যকরী। তবে তাদের দাবির আরও বৈজ্ঞানিক পরীক্ষা প্রয়োজন বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

বিশেষজ্ঞদের কেউ কেউ বলছেন, ওমিক্রন নিয়ে এখনো সব তথ্য হাতে আসেনি। ফলে কোন টিকা তা রুখতে পারে, তা এখনই বলা কঠিন। টিকার প্রাথমিক দুটি ডোজের পরেও যে ওমিক্রন হচ্ছে, তা স্পষ্ট। কিন্তু তৃতীয় ডোজ বা বুলস্টার ডোজ তা নিয়ন্ত্রণ আদৌ করতে পারে কি না, তা দেখার জন্য আরও পরীক্ষা দরকার বলে মনে করছেন তারা।

বিশেষজ্ঞদের আরেকটি অংশের বক্তব্য, টিকা নেওয়ার পরেও করোনা হতে পারে। কিন্তু তার প্রভাব কম পড়বে। বুস্টার ডোজ নেওয়া থাকলে এমনিতেই অ্যান্টি বডি আরও বাড়বে। ফলে যেকোনো করোনার সঙ্গেই শরীর লড়াই চালাতে পারবে। ফলে বুস্টার ডোজ নিয়ে নিতে পারলে ভালো।

গত ২৫ নভেম্বর দক্ষিণ আফ্রিকার বিজ্ঞানীরা ওমিক্রন নামের একটি নতুন কোভিড-১৯ ধরন শনাক্ত করেন, যা একাধিক মিউটেশনে হয়েছে। ২৬ নভেম্বর বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ঘোষণা করেছে, দক্ষিণ আফ্রিকায় সম্প্রতি আবিষ্কৃত কোভিড-১৯ এর প্রথম শনাক্ত বি.১.১.৫২৯ স্ট্রেন কোভিডের একটি উদ্বেগজনক ধরন হতে পারে।

সম্পর্কিত সংবাদ 

“দেশে দুই নারী ক্রিকেটারের শরীরে ওমিক্রন শনাক্ত ”: স্বাস্থ্যমন্ত্রী