• আজ সোমবার, ৩ মাঘ, ১৪২৮ ৷ ১৭ জানুয়ারি, ২০২২ ৷

টাঙ্গাইলে ১৮ মাসের অপহৃত শিশু উদ্ধার, অপহরণকারী নারী আটক

tangail arrest n
❏ সোমবার, ডিসেম্বর ১৩, ২০২১ ঢাকা, দেশের খবর

তোফাজ্জল, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি- টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলায় অপহরণ হওয়া কাইয়ুম নামের দেড় বছরের এক শিশুসহ অপহরণকারী এক নারীকে আটক করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-১২) এর সদস্যরা।

রোববার (১২ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার সন্ধানপুর ইউনিয়নের কুশারিয়া গ্রাম থেকে শিশুটিকে উদ্ধার ও অপহরণকারী নারীকে আটক করা হয়।

অপহরণ হওয়া ওই শিশুর বাড়ি টাঙ্গাইল সদর পৌরসভার ব্যাপারীপাড়া এলাকায়। আটককৃত নারী টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলার গোবিন্দাসী গ্রামের মানিক মিয়ার মেয়ে সাথী (২২)।

স্থানীয় সন্ধানপুর ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম ও এলাকাবাসী জানান, রোববার (১২ ডিসেম্বর) সকাল থেকেই আটক হওয়া সাথী নামের ওই নারী কুশারিয়া গ্রামের বিভিন্ন স্থানে শিশু বাচ্চাটি নিয়ে ঘুরাফেরা করছিল। এ সময় শিশুটিকে দত্তক নিতে অনেককে অনুরোধ করেন তিনি। এ অবস্থায় সে দুপুরে স্থানীয় মুনছুর আলীর বাড়িতে গেলে মুনছুর তার নিঃসন্তান মেয়ে জন্য দত্তক নিতে রাজি হন। মুনছুর খেয়াল করেন বাচ্চাটি ওই নারীর কোলে কোনোভাবেই থাকতে চাচ্ছে না, কান্নাকাটি করতে থাকে। বিষয়টি তার সন্দেহ হলে বাচ্চাসহ ওই নারীকে চেয়ারম্যানের কাছে নিয়ে আসেন।

পরে চেয়ারম্যানের জেরার মুখে সে শিশুটিকে অপহরণ করে নিয়ে আসার কথা স্বীকার করেন। বিষয়টি জানাজানি হলে পরে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে র‌্যাব-১২ টাঙ্গাইল ঘটনাস্থলে গিয়ে শিশুটিকে উদ্ধার করে এবং সাথীকে আটক করে।

টাঙ্গাইল র‌্যাব-১২ এর কোম্পানি কমান্ডার লে. কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, শনিবার (১১ ডিসেম্বর) সকালে শিশুর নিখোঁজ বিষয়ে টাঙ্গাইল সদর মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন শিশু মো. কাইয়ুমের বাবা মো. সেলিম মিয়া। সেই ডায়েরি আমলে নিয়ে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে সাথীর লোকেশন শনান্ত করার চেষ্টা করে র‌্যাব।

তিনি আরও বলেন, বারবার সাথী তার স্থান পরিবর্তন করতে থাকে। আমরা বিভিন্ন জায়গায় অভিযান পরিচালনা করি। উদ্ধার হওয়া শিশুটিকে তার বাবা-মার কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।