ঢাকার পথে ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ

রামনাথ
❏ বুধবার, ডিসেম্বর ১৫, ২০২১ ফিচার

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ ঢাকার উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে তার অফিসিয়াল অ্যাকাউন্টে আজ সকাল ৯টা ২০ মিনিটে এ সংক্রান্ত টুইট করা হয়েছে। এতে দেখা যায়, একটি ফ্লাইটে ঢোকার আগমুহূর্তে বিদায় নিচ্ছেন তিনি।

টুইটারে প্রেসিডেন্ট অব ইন্ডিয়া অ্যাকাউন্টে বলা হয়েছে, বাংলাদেশের বিজয় দিবসের সুবর্ণজয়ন্তী এবং মুজিববর্ষের সমাপনী দিন উদযাপন অনুষ্ঠানে অংশ নিতে ঢাকা সফর করতে যাচ্ছেন ভারতের রাষ্ট্রপতি। করোনা মহামারির পর এটাই তার প্রথম বিদেশ সফর। এছাড়া ভারতের রাষ্ট্রপতি হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর এটি রামনাথ কোবিন্দের প্রথম বাংলাদেশ সফর।

ভারতের রাষ্ট্রপতি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করলে তাঁকে লালগালিচা অভ্যর্থনা জানাবেন বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ।

রামনাথ কোবিন্দের সফরসঙ্গী হিসেবে থাকছেন ভারতের ফাস্টলেডি, রাষ্ট্রপতির কন্যা, শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী, দুজন সংসদ সদস্য ও ভারতের পররাষ্ট্র সচিব হর্ষবর্ধন শ্রিংলাসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন জানান, ভারতের রাষ্ট্রপতি ১৫ ডিসেম্বর থেকে ১৭ ডিসেম্বর পর্যন্ত বিজয় দিবসের সুবর্ণজয়ন্তী, মুজিববর্ষের সমাপনী দিন উদযাপন ও বাংলাদেশ-ভারত বন্ধুত্বের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে বাংলাদেশ সফর করবেন।

ড. মোমেন জানান, বুধবার ভারতের রাষ্ট্রপতি কোবিন্দকে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে স্বাগত জানাবেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। বিমানবন্দরে ভারতের রাষ্ট্রপতিকে গার্ড অব অনার দেওয়া হবে। বিমানবন্দর থেকে ভারতের রাষ্ট্রপতি সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধ বীর শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন। এরপর কোবিন্দ ধানমন্ডিতে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরে পরিদর্শন করবেন। একই দিন বিকেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন ভারতের রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন।

পরবর্তীতে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সঙ্গে বঙ্গভবনে সৌজন্য সাক্ষাত করবেন ভারতের রাষ্ট্রপতি। এ সময় ভারতের রাষ্ট্রপতি বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় ব্যবহৃত একটি টি-৫৫ ট্যাংক এবং একটি মিগ-২৯ যুদ্ধ বিমান জাতীয় জাদুঘরে সংরক্ষণ ও প্রদর্শনের রাষ্ট্রপতিকে উপহার হিসেবে প্রদান করবেন। এরপর রামনাথ কোবিন্দ রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ কর্তৃক আয়োজিত নৈশভোজে অংশগ্রহণ করবেন।

সফরের দ্বিতীয় দিন ১৬ ডিসেম্বর জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে ভারতের রাষ্ট্রপতি গেস্ট অব অনার হিসেবে বাংলাদেশের বিজয় দিবসের সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করবেন। একই দিন বিকেলে জাতীয় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় বিজয়ের সুবর্ণজয়ন্তীর ঐতিহাসিক মুহূর্তে বঙ্গবন্ধুর প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ এবং রক্তস্নাত বিজয়ের আবেগ ও আনন্দ উদযাপনের জন্য আয়োজিত মহাবিজয়ের মহানায়ক অনুষ্ঠানে তিনি অংশগ্রহণ করবেন।

সফরের শেষ দিন ১৭ ডিসেম্বর রামনাথ ঢাকার রমনায় কালী মন্দিরের সদ্য সংস্কারকৃত অংশের উদ্বোধন করবেন এবং মন্দিরটি পরিদর্শন করবেন। ওই দিন দুপুর তিনি দিল্লীর উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করবেন।

ভারতের রাষ্ট্রপতির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সৌজন্য সাক্ষাতে আলোচনা বিষয়ে মোমেন জানান, এসব সৌজন্য সাক্ষাতে দুদেশের স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা হবে।

সংবাদ সম্মেলন পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন জানান, ভারতের রাষ্ট্রপতির সফরে দুদেশের মধ্যে কোনো চুক্তি বা সমঝোতা স্মারকের (এমওইউ) বিষয় নেই। এ সফরে আনুষ্ঠানিকতায় মনোযোগ দেওয়া হয়েছে।