• আজ বুধবার, ১২ মাঘ, ১৪২৮ ৷ ২৬ জানুয়ারি, ২০২২ ৷

অভিমান করে নিখোঁজ হয়েছিল শিব্বির, দিনাজপুর থেকে উদ্ধার

sibbir n24
❏ সোমবার, ডিসেম্বর ২০, ২০২১ আলোচিত বাংলাদেশ, দেশের খবর, ময়মনসিংহ

রকিব হাসান নয়ন, জামালপুর প্রতিনিধি: সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে নিখোঁজ ময়মনসিংহ আনন্দ মোহন কলেজের ইংরেজি বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী শিব্বির আহমেদকে (২১) রোববার রাতে দিনাজপুর জেলা শহরের একটি মেস থেকে উদ্ধার করেছে ময়মনসিংহ থানা পুলিশ।

সোমবার (১৯ ডিসেম্বর) সকালে কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ শাহ কামাল আকন্দ মোবাইলে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

নিখোঁজ শিব্বির আহমেদ জামালপুরের মেলান্দহ উপজেলার মাহমুদপুর ইউনিয়নে বানিয়াবাড়ী এলাকার আব্দুল্লাহ আল-ফারুকের ছেলে।

এর আগে, শিব্বির আহমেদ ফেসবুকে সর্বশেষ শুক্রবার (১৭ ডিসেম্বর) সকাল ৮টার দিকে একটি স্ট্যাটাস দিয়ে নিখোঁজ হন। তাছাড়াও তিনি কমিউটার ট্রেনে ময়মনসিংহ থেকে জামালপুর আসছে বলে পরিবারের সঙ্গে ফোনে কথাও বলেন।

এ ঘটনায় ওই দিন শুক্রবার (১৭ ডিসেম্বর) রাতে কোতোয়ালি থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন তার পরিবার। তারপর থেকে পুলিশ আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে তাকে খুঁজতে থাকে।

স্ট্যাটাসগুলোতে তিনি লিখেছিলেন, ‘আব্বু আম্মু ক্ষমা করে দিও, আজ বাড়ি যাওয়ার কথা ছিল, আপু মুশাব্বিরের প্রতি খেয়াল রাইখ’, ‘ভালো থাকবে জায়গা, সুখে থাকবে শহর’, ‘ঘর, পরিবার, জায়গা ক্ষমা করে দিও’ এবং ‘আল বিদা’।

নিখোঁজ শিব্বিরের খালাতো ভাই মুত্তাছিম বিল্লাহ বলেন, ‘আমরা আগেই বলেছিলাম শিব্বির আত্মহত্যা করার মতো ছেলে না। যাক আল্লাহর অশেষ মেহেরবানিতে তাকে অক্ষত অবস্থায় রাত ৯টার দিকে খুঁজে পেয়েছি। তার বাবার কাছে কিছু দিন আগে মোবাইল ফোনে দিয়ে টাকা কিছু টাকা চেয়ে ছিল। মূলত সে অভিমান করে সবার আড়ালে চলে গিয়েছিলো। তাছাড়া অন্য কিছু না।

ময়মনসিংহ কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাহ কামাল আকন্দ বলেন, ছেলেটি মূলত বাবা-মার সাথে অভিমান করে নিখোঁজ হয়েছিলো। নিখোঁজের পর থেকেই আমরা তাকে বিভিন্নভাবে খোঁজাখুঁজি করতে শুরু করি। পরবর্তীতে শিব্বিরে মোবাইল ফোনের সূত্র ধরেই দিনাজপুরে তার সন্ধান মেলে।