• আজ শুক্রবার, ১৪ মাঘ, ১৪২৮ ৷ ২৮ জানুয়ারি, ২০২২ ৷

বুস্টার ডোজ; কবে পাবেন, কারা পাবেন, কীভাবে পাবেন?

বুস্টার ডোজ
❏ মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ২১, ২০২১ জাতীয়

বুস্টার ডোজে কোন টিকা দেওয়া হবে এবং যেকোনো টিকা নেওয়া ব্যক্তিই কী বুস্টার ডোজের নির্ধারিত টিকা নিতে পারবে? বুস্টার ডোজের ঘোষণা আসার পর থেকেই ইত্যাদি বিষয় নিয়ে নানা আলোচনা হচ্ছে সর্বসাধারনের মধ্যে।

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা: করোনাভাইরাসের প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজ যারা নিয়েছেন তাদেরকেই একটি নির্দিষ্ট সময় পর তৃতীয় ডোজ দেয়া হবে এই পদ্ধতিতে দেয়া ডোজকেই বলা হচ্ছে বুস্টার ডোজ।

করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে গত রবিবার থেকে দেশে শুরু হয়েছে বুস্টার ডোজ। এ জন্য নতুন করে নিবন্ধন করা লাগবে না। প্রথমে সম্মুখসারির ব্যক্তিদের (চিকিৎসক, নার্স, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী, গণমাধ্যমকর্মী ও ষাটোর্ধ্ব ব্যক্তি) বুস্টার ডোজের আওতায় আনা হবে। পর্যায়ক্রমে অন্যরাও বুস্টার ডোজ পাবে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের একটি সূত্র জানায়, যারা করোনার টিকার দুই ডোজ নিয়েছে, তারা ধাপে ধাপে বুস্টার ডোজ পাবে। এ জন্য তাদের আর সুরক্ষা অ্যাপে নিবন্ধন করার প্রয়োজন হবে না।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক জানিয়েছেন ২০২২ সালের জানুয়ারি মাস পর্যন্ত বুস্টার ডোজের জন্য প্রয়োজন হবে ৪৩ লাখ ডোজ টিকা। তবে এর থেকে অনেক বেশি, ৬০ লাখ ডোজ ফাইজার টিকা সরকারের কাছে মজুদ আছে। এখনো পর্যন্ত বুস্টার ডোজ হিসেবে ফাইজারের টিকা দেবার সিদ্ধান্ত রয়েছে বলেও জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

আজ রবিবার দুপুর ১২টায় রাজধানীর মহাখালীর বাংলাদেশ কলেজ অব ফিজিশিয়ানস অ্যান্ড সার্জনস (বিসিপিএসএ) মিলনায়তনে অডিটরিয়াম হলে ‘বুস্টার ডোজ প্রদান কার্যক্রম’-এর উদ্বোধন করবেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র জানায়, বুস্টার ডোজ হিসেবে ফাইজারের টিকা দেওয়া হবে। আগে যেভাবে নিবন্ধন করে টিকা নেওয়া হয়েছে, বুস্টার ডোজের ক্ষেত্রে সেভাবে না-ও লাগতে পারে।

মন্ত্রণালয় সুত্রে জানা গেছে, চলতি ডিসেম্বর মাসের ২৮ তারিখের আগে সুরক্ষা ওয়েবসাইটে বুস্টার ডোজ সম্পর্কিত অংশ সংযুক্ত করা সম্ভব হবে না।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক মীরজাদি সেব্রিনা ফ্লোরা জানিয়েছেন, ষাটোর্ধ নাগরিক ও সম্মুখ সারিতে কাজ করেন এমন নানা পেশার মানুষজনের মধ্যে যারা প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন তাদের ছয় মাস পার হওয়ার পই শুধুমাত্র বুস্টার ডোজ দেয়া হবে।

প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজ নেবার সময় যে টিকা কার্ড দেয়া হয়েছে আপাতত বুস্টার ডোজেও সেই কার্ডটিই কেন্দ্রে নিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

বুস্টার ডোজের ক্ষেত্রেও আগের মতোই মোবাইল ফোনে এসএমএস বার্তার মাধ্যমে টিকার দিন জানানো হবে।

সুরক্ষায় সংযুক্তি না হওয়া পর্যন্ত টিকা সনদপত্র পাওয়া যাবে না। আপাতত কেন্দ্র থেকে টিকা কার্ডে তথ্য হাতে লিখে দেয়া হবে।

এর আগে ফাইজার ছাড়াও মডার্না, অ্যাস্ট্রাজেনেকা, সিনোফার্মসহ কয়েক ধরনের টিকা দেওয়া হয়েছে। যারা ফাইজার ছাড়া অন্য টিকা নিয়েছে, তারা ফাইজারের বুস্টার ডোজ নিতে পারবে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) উপদেষ্টা ডা. মুশতাক হোসেন বলেন, ‘ফাইজারের বুস্টার ডোজ নিলে কোনো সমস্যা হবে না। বরং অন্য টিকা যারা নিয়েছে, ফাইজারের বুস্টার তাদের জন্য আরো ভালো কাজে দেবে।’

বুস্টার ডোজ কারা পাবেন? এ সম্পর্কে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, বুস্টার ডোজ প্রথমে পাবে সম্মুখসারির ব্যক্তিরা। যাদের টিকা নেওয়ার সময় ছয় মাস বা এক বছর হয়ে গেছে, প্রথমে তারাই বুস্টার ডোজ পাবে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে দেশে ফাইজারের ৬০ লাখ টিকা রয়েছে। সামনের মাসে আরো দুই কোটি টিকা আসবে। দেশের প্রায় সাত কোটি মানুষকে টিকার প্রথম ডোজ ও প্রায় সাড়ে চার কোটি মানুষকে দ্বিতীয় ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। এরই মধ্যে ৩০ শতাংশ মানুষকে দুই ডোজ করে টিকা দেওয়া হয়েছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক আরও জানিয়েছেন, দেশে করোনার নতুন ধরন ওমিক্রনের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে সব ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। বিদেশ থেকে আসা ব্যক্তিদের দেশে প্রবেশের ৪৮ ঘণ্টা আগে করোনা টেস্ট করে আসতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, ১৯ ডিসেম্বর প্রথম বুস্টার ডোজটি পেয়েছেন কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স রুনু ভেরোনিকা কস্তা। এরপর সরকারের পাঁচজন মন্ত্রীসহ বিশজনের মতো বুস্টার ডোজ নেন।