• আজ বৃহস্পতিবার, ১৩ মাঘ, ১৪২৮ ৷ ২৭ জানুয়ারি, ২০২২ ৷

বাংলাদেশ-মালদ্বীপের মধ্যে চুক্তি সই, ১৩ সামরিক যান হস্তান্তর

pm 2n3424
❏ বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ২৩, ২০২১ ফিচার

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক- বাংলাদেশ ও মালদ্বীপের দ্বি-পাক্ষিক সম্পর্ক নতুন উচ্চতায় নিয়ে যেতে দুই দেশের মধ্যে স্বাস্থ্য, শিক্ষা, দ্বৈত কর পরিহার, বন্দি বিনিময় এবং যুব ও ক্রীড়া ক্ষেত্রে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে।

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম মোহাম্মদ সলিহর মধ্যে দ্বি-পক্ষীয় আলোচনা শেষে উভয় নেতার উপস্থিতিতে বৃহস্পতিবার (২৩ ডিসেম্বর) সকালে প্রেসিডেন্টের কার্যালয়ে এই চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

দ্বৈত কর পরিহার চুক্তিসহ বাংলাদেশ ও মালদ্বীপের মধ্যে স্বাস্থ্য সেবা ও চিকিৎসা বিজ্ঞান (নবায়ন) সমঝোতা স্মারক এবং উভয় দেশের যুব ও ক্রীড়া উন্নয়নের ক্ষেত্রে সহযোগিতার সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়।

অনুষ্ঠানে দক্ষিণ এশিয়ার দুই দেশের মধ্যে বন্ধুত্বের প্রতীক হিসেবে মালদ্বীপকে ১৩টি সামরিক যান উপহার দিয়েছে বাংলাদেশ।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছয় দিনের রাষ্ট্রীয় সফরসূচির অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার সকালে তাকে আনুষ্ঠানিক অভ্যর্থনা জানায় মালদ্বীপ।

রাজধানী মালেতে মালদ্বীপ প্রেসিডেন্টের জেটিতে বাংলাদেশের সরকারপ্রধানকে স্বাগত জানান দ্বীপদেশটির রাষ্ট্রপ্রধান ইব্রাহিম মোহামেদ সলিহ। ওই সময় প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানিয়ে পারফরম্যান্স করে মালদ্বীপের স্কুলশিক্ষার্থীরা।

মালদ্বীপ প্রেসিডেন্ট দপ্তরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সম্মানে ২১টি গান স্যালুট দেয় মালদ্বীপের জাতীয় প্রতিরক্ষা বাহিনী (এমএনডিএফ)। দেশটির সামরিক ব্যান্ড দল দুই দেশের জাতীয় সংগীত বাজায়।

গার্ড অব অনারের সময় মালদ্বীপের ভাইস প্রেসিডেন্ট ফয়সাল নাসিমসহ সফরকারী দেশের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অভ্যর্থনার আনুষ্ঠানিকতা শেষে শোভাযাত্রার মধ্য দিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে নেয়া হয় প্রেসিডেন্টের দপ্তরে। সেখানে দর্শনার্থীদের জন্য রাখা বইয়ে স্বাক্ষর করেন প্রধানমন্ত্রী।

পরে সলিহর সঙ্গে রুদ্ধদ্বার বৈঠকে অংশ নেন শেখ হাসিনা। দুজনের বৈঠক শেষে উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে অংশ নেয় দুই দেশের সরকার, রাষ্ট্রপ্রধানসহ প্রতিনিধি দলের সদস্যরা।

পরবর্তী সময়ে যৌথ বিবৃতি দেন মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী।