• আজ বুধবার, ১২ মাঘ, ১৪২৮ ৷ ২৬ জানুয়ারি, ২০২২ ৷

লালমনিরহাটে তিন মন্দিরে ‘গো-মাংস’, থানায় অভিযোগ

news photo n3
❏ রবিবার, জানুয়ারী ২, ২০২২ দেশের খবর, রংপুর

মোঃ ইউনুস আলী, লালমনিরহাট প্রতিনিধি- লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার টংভাঙ্গা ইউনিয়নে একই সাথে ৩টি মন্দির ও এক হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িতে গো-মাংস রাখার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় স্থানীয় থানায় পৃথক ৪টি অভিযোগ করেছেন হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন।

শুক্রবার (৩১ ডিসেম্বর) সকালে ওই উপজেলার গেন্দুকুড়ি গ্রামে ৩টি মন্দির ও একজন হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িতে গো-মাংস দেখতে পায় স্থানীয়রা।

হাতীবান্ধা পুজা উদযাপন কমিটির সভাপতি দিলিপ কুমার সিংহ জানান, গেন্দুকুড়ি ক্যাম্পপাড়া শ্রীশ্রী রাধা গোবিন্দ মন্দির, গেন্দুকুড়ি কুঠিপাড়া কালী মন্দির, গেন্দুকুড়ি বটতলা কালী মন্দির ও ক্যাম্পপাড়া এলাকার মনিন্দ্রনাথ বর্মনের বাড়িতে কে বা কাহারা বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে পলিথিনের ব্যাগে মোড়ানো গরুর পা, নারী-ভুড়ি রেখে যায়। তারা আমাদের ধর্মীয় অনুভুতিতে আঘাত হানার চেষ্টা করে।

শুক্রবার সকালে স্থানীয়রা এসব দেখতে পেয়ে থানা পুলিশ ও হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজনকে খবর দেন। হাতীবান্ধা থানা পুলিশ সরেজমিন পরিদর্শন করে ঘটনার সত্যতা পায়।

এ ঘটনায় স্থানীয় থানায় নিতাই চন্দ্র অধিকারী, সর্বেশ্বর বর্মন, মেঘনাথ চন্দ্র ও মনিন্দ্রনাথ বর্মন বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামী করে পৃথক ৪টি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

‘ধর্মীয় অনুভুতিতে যারা আঘাত হেনেছে তাদেরকে দ্রুত শনাক্ত করে গ্রেফতারের দাবি’ জানান পুজা উদযাপন কমিটির সভাপতি দিলিপ কুমার সিংহ।

হাতীবান্ধা থানার ওসি এরশাদুল আলম এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, পুরো ঘটনাটি তদন্ত করা হচ্ছে। তদন্ত শেষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।