🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ শুক্রবার, ১৪ মাঘ, ১৪২৮ ৷ ২৮ জানুয়ারি, ২০২২ ৷

ফাঁদে ফেলে অর্থ আদায়: রংপুরে পুলিশ পরিদর্শকের স্ত্রী গ্রেফতার

news photo n234
❏ বুধবার, জানুয়ারী ৫, ২০২২ দেশের খবর, রংপুর

সাইফুল ইসলাম মুকুল, রংপুর- রংপুরে বিভিন্ন ফাঁদে ফেলে সাধারণ মানুষদের জিম্মি করে টাকা আদায়ের ঘটনায় এবার এক পুলিশ পরিদর্শকের স্ত্রীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (০৪ জানুয়ারি) বিকেলে রংপুর নগরীর ঠিকাদার পাড়া বিকন মোড় এলাকার একটি বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।
গ্রেফতাকৃত নারীর নাম কানিজ ফাতিমা আনিসা। তার স্বামীর নাম হাবিবুর রহমান। তিনি রংপুর পুলিশ সুপার কার্যালয়ে পরিদর্শক পদে কর্মরত আছেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন রংপুর মহানগর পুলিশের কোতোয়ালি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) হোসেন আলী।

এসময় তিনি বলেন, সাধারণ মানুষকে জিম্মি করে টাকা আদায় ও টর্চারসেলে নির্যাতনের অভিযোগে ২ জানুয়ারি রাতে নগরীর গ্র্যান্ড হোটেল মোড় এলাকার বাড়ি থেকে শাহারুখ করিম অনিক ও তার স্ত্রী আসমানী আক্তারকে গ্রেফতার করে র‌্যাব ১৩।

এ ঘটনায় থানায় তাদের বিরুদ্ধে মামলা হয়। ওই মামলায় আসামিরা আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। জবানবন্দিতে কানিজ ফাতিমা আনিসার নাম উঠে আসে।

হোসেন আলী আরও বলেন, মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে অভিযান চালিয়ে তাকে বিকন মোড় এলাকার একটি বাসা থেকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারের পর তাকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে রংপুর মহানগর পুলিশের এক কর্মকর্তা জানান, গ্রেফতার আনিসা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে পরিদর্শক পদে কর্মরত হাবিবুর রহমানের স্ত্রী।

তবে এ বিষয়ে জানতে হাবিবুর রহমানের মোবাইল নম্বরে কল দিলে তিনি নিজেকে পুলিশ পরিদর্শক পরিচয় দেন। তবে আনিসার ব্যাপারে জানতে চাইলে ওই নারী তার স্ত্রী নন বলেই ফোন কেটে দেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে জেলা পুলিশ সুপার ফেরদৌস আলী চৌধুরীর মোবাইল ফোনে কল দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।

এর আগে সোমবার বিকেলে রংপুর র‌্যাব-১৩ এর সহকারী পরিচালক মাহমুদ বশির আহমেদ স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বেশ কিছুদিন ধরে অনিকের স্ত্রী আসমানী রংপুর মহানগরীর বিভিন্ন ব্যক্তির সঙ্গে পরিচিত হয়ে কৌশলে তাদের আস্তানায় ডেকে নিয়ে যেতেন। এরপর অনিকসহ অজ্ঞাত চার-পাঁচজন ওইসব ব্যক্তির অশ্লীল ছবি তুলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়া এবং হত্যার ভয় দেখিয়ে চাঁদা আদায় করত। এভাবেই লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে এ চক্রটি।

এমন একটি অভিযোগের ভিত্তিতে র‌্যাব-১৩ বিষয়টি আমলে নিয়ে সত্যতা অনুসন্ধানের জন্য তাৎক্ষণিক ছায়া তদন্ত শুরু করে এবং জিম্মিকারী ব্যক্তিদের আইনের আওতায় নিয়ে আসতে গোয়েন্দা নজরদারি বাড়ায়। এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাবের একটি টিম গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রোববার রাতে রংপুর মহানগরীর গ্র্যান্ড হোটেল মোড় এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে তাদের গ্রেফতার করে।

অভিযান চলাকালে র‌্যাব তাদের বাসার ষষ্ঠ তলায় একটি টর্চার সেলের সন্ধান পায়। এ সেল থেকে দুটি চাপাতি, ইলেকট্রিক শকের তার, মাদক সেবনের সরঞ্জামাদি, হাতুড়ি, ছুরি, স্ট্যাম্প, ভিডিও ধারণের দুটি মোবাইল ফোন এবং একটি ল্যাপটপ উদ্ধার করে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতার দম্পতি বিভিন্ন ব্যক্তিকে জিম্মি করে চাঁদা আদায় এবং নির্যাতনের কথা স্বীকার করেছেন। সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা দিয়ে আটকদের হস্তান্তর করা হয়েছে।

ec n234 সরকারি গেজেটে এলো পরাজিত প্রার্থীর নাম!

❏ বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী ২৭, ২০২২