🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ শুক্রবার, ১৪ মাঘ, ১৪২৮ ৷ ২৮ জানুয়ারি, ২০২২ ৷

টাঙ্গাইলের ১৩ ইউপির ৬টিতে আ’লীগ প্রার্থী নির্বাচিত

up n23
❏ বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী ৬, ২০২২ ঢাকা, দেশের খবর

তোফাজ্জল, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি- পঞ্চম ধাপের ইউপি নির্বাচনে টাঙ্গাইলের তিনটি উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নের মধ্যে ৭টিতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী ও বিএনপির স্বতন্ত্র প্রার্থী এবং ৬টিতে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী বেসরকারি ফলাফলে নির্বাচিত হয়েছেন।

বুধবার (৫ জানুয়ারি) রাতে সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তারা এ ফলাফল ঘোষণা করেন।

এর আগে সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত একটানা ভোট গ্রহণ চলে। দু’-একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া মির্জাপুর, বাসাইল ও ঘাটাইল উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নে শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়।

বেসরকারি ফলাফলে নির্বাচিত চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হচ্ছেন- মির্জাপুর উপজেলার মহেড়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিভাস সরকার নূপুর (নৌকা), জামুর্কী ইউনিয়নে বিএনপি ঘরাণার স্বতন্ত্র প্রার্থী ডিএ মতিন (আনারস), আনাইতারা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আবু হেনা মোস্তফা কামাল (আনারস), বানাইল ইউনিয়নে বিএনপি ঘরাণার স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল্লাহ আল মামুন সিদ্দিকী (ঘোড়া), উয়ার্শী ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মাহাবুব আলম মল্লিক (নৌকা), ভাতগ্রাম ইউনিয়নে জাসদ ঘরাণার স্বতন্ত্র প্রার্থী আজাহারুল ইসলাম, গোড়াই ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হুমায়ূন কবীর (নৌকা) ও বাঁশতৈল ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হেলাল দেওয়ান (চশমা)।

বাসাইল উপজেলার কাউলজানী ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আতাউল গনি হাবিব নৌকা), হাবলা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থী খোরশেদ আলম (নৌকা), কাঞ্চনপুর ইউনিয়নে বিএনপি ঘরাণার স্বতন্ত্র প্রার্থী শামীম আল মামুন (চশমা), ফুলকী ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী শামছুল আলম বিজু (মোটরসাইকেল)। এছাড়া ঘাটাইল উপজেলার জামুরিয়া ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের প্রার্থী শহিদুল ইসলাম খান হেস্টিংস (নৌকা)।

জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, টাঙ্গাইলের মির্জাপুর, বাসাইল ও ঘাটাইল উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ১৩টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৬৮জন, সংরক্ষিত মহিলা আসনে ১৪৬জন এবং সাধারণ সদস্য পদে ৪৯০জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এএইচএম কামরুল হাসান জানান, অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ১৩টি ইউনিয়নে ১৩৪টি কেন্দ্রের ৮৮৭টি কক্ষে ভোটগ্রহণ করা হয়।