• আজ সোমবার, ১০ মাঘ, ১৪২৮ ৷ ২৪ জানুয়ারি, ২০২২ ৷

বিএনপির সভা-সমাবেশ ঠেকাতেই বিধিনিষেধ: রিজভী

rijvi n24
❏ মঙ্গলবার, জানুয়ারী ১১, ২০২২ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- শুধু বিএনপির সভা-সমাবেশ ঠেকাতেই বিধিনিষেধ দেওয়া হয়েছে কিনা তা নিয়েই জনগণের মনে প্রশ্ন রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন, সরকারের বিরুদ্ধে মানুষ জেগে উঠেছে এবং ১৪৪ ধারা ভেঙে সভা-সমাবেশে যোগ দিতে শুরু করেছেন মানুষ। এতেই আতঙ্কিত সরকার। যতই চক্রান্তের জাল ফেলা হোক না কেন, এ সরকারের পতন ঠেকানো যাবে না। মামলা দিয়ে, সাজা দিয়ে, বিধিনিষেধ নিয়ে, চক্রান্ত করে জনগণকে দাবিয়ে রাখা যাবে না।

আজ মঙ্গলবার (১১ জানুয়ারি) দুপুরে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী বলেন, নিষেধাজ্ঞা দিয়ে সরকারবিরোধী আন্দোলন ঠেকানো যাবে না। আন্দোলন দমানোর জন্য নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে দায়ের করা রাজনৈতিক মামলায় ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে সাজা দেওয়া হচ্ছে। আগামী নির্বাচন সামনে রেখে সরকার এ ধরনের ষড়যন্ত্রে লিপ্ত।

বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব বলেন, টিকা ও করোনাসামগ্রী নিয়ে কেলেঙ্কারি ছাড়া আর কিছু দিতে পারেনি সরকার। সঠিক ব্যবস্থা নিতে পারলে দেশে করোনার সংক্রমণ বাড়তো না।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত মাত্র ৩০ শতাংশ জনগণকে দুই ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। অথচ করোনা মহামারি শুরু হয়েছে প্রায় দুই বছর। যদি শুরুতেই সরকার উদ্যোগ নিতো তাহলে এরই মধ্যে প্রায় শতভাগ করোনা টিকা দেওয়া সম্ভব হত। দক্ষিণ এশিয়ার অনেক দেশই ৬০ ভাগের ওপরে টিকাদান সম্পন্ন করেছে।