🕓 সংবাদ শিরোনাম

স্কুলের শ্রেণিকক্ষ প্রধান শিক্ষকের ধানের গোডাউনটসে জিতে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ, দুদলেই জোড়া পরিবর্তনশরীরে ক্যান্সার নিয়েও ১০ বছর মানুষকে বিনোদন দিয়ে গেছেন ‘ভাদাইমা’প্রতিমাসে দেড় লাখ মানুষকে খাওয়ান অভিনেত্রী জ্যাকলিন ফার্নান্ডেজ!ইউক্রেনের ভবিষ্যৎ স্থির করবে ইউক্রেনীয়রা: পার্লামেন্টে আন্দ্রেজ দুদাএকের বেশি বিয়ে নয়, ফতোয়া তালিবান প্রধানেরমহাকাশ থেকে রহস্যময় ভুল তথ্য পাঠাচ্ছে নাসার যান!দুই দিনের সফরে ঢাকায় আইসিসি’র চেয়ারম্যানদক্ষিণ কোরিয়ায় নতুন করে ১৯ হাজার ২৯৮ জন করোনায় আক্রান্তমাদারীপুরের কালকিনির ইউএনও-ওসিকে প্রত্যাহারের নির্দেশ ইসির

  • আজ সোমবার, ৯ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ ৷ ২৩ মে, ২০২২ ৷

নৌকা মার্কায় ভোট দিয়েই সুবিধা পাচ্ছেন রংপুরবাসী : প্রধানমন্ত্রী

pm 242m
❏ রবিবার, জানুয়ারী ১৬, ২০২২ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- নৌকা মার্কায় ভোট দিয়েই রংপুরবাসী বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা পাচ্ছেন বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় দেশের উন্নয়ন অগ্রগতির চিত্র তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা আর কেউ ভবিষ্যতে থামাতে পারবে না।

রোববার গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে নবনির্মিত ‘রংপুর বিভাগীয় সদর দপ্তর কমপ্লেক্স ভবন’ এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে যুক্ত হয়ে এ কথা বলেন শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, রংপুর বিভাগে যে সমস্ত শাক-সবজি, তরি-তরকারি হয়, সেগুলো যেন প্রক্রিয়াজাতকরণ করে বিদেশে রপ্তানি করা যায়, আওয়ামী লীগ সরকার সে পদক্ষেপ নিচ্ছে।

“এদেশে আর কখনও যেন মঙ্গা দেখা না দেয়, আর কখনও দুর্ভিক্ষ যেন না হয়, এদেশের মানুষ যেন আর কষ্ট না পায়।”

অতীতে রংপুর বিভাগের মানুষের নানা সংকটের কথা তুলে ধরে ওই অঞ্চলের উন্নয়নের আওয়ামী লীগ সরকারের নেওয়া বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা জানান সরকারপ্রধান।

তিনি বলেন, “নৌকা মার্কায় ভোট দিয়েই কিন্তু রংপুরবাসী এই সব সুযোগ সুবিধাগুলো পেয়েছেন, সেটা বোধ হয় ভুললে চলবে না।

“আমি বলব, এই অঞ্চলে এখন আর খাদ্য ঘাটতি তো নেই-ই আর দুর্ভিক্ষও নেই। কাজেই এ অঞ্চলের সার্বিক উন্নতি সেটাই আমাদের লক্ষ্য ছিল। সেটা আমরা করতে পেরেছি।”

সারাদেশে ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলার কথা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, শিল্প কারখানা করতে হবে, কিন্তু যত্রতত্র না। কৃষিজমিও রক্ষা করতে হবে, কারণ এ অঞ্চলের জমি খুবই উর্বর।

“আর দেশের অর্থনৈতিক অঞ্চলে যেন শিল্প গড়ে উঠে সেই শিল্প গড়ার সময় এবং যারা বিনিয়োগ করবেন তাদের আমি বলব, এই দিকটাও দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।”

ওই অঞ্চলভিত্তিক যে সমস্ত পণ্য উৎপাদিত হয়, সেগুলো প্রক্রিয়াজাত করা এবং সংরক্ষণ করার ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘সরকারের গৃহীত পদক্ষেপের ফলে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে এবং মানুষের মাথাপিছু আয় বেড়েছে, ক্ষয়ক্ষমতা বেড়েছে। মানুষ অনেক সচ্ছল হবার সুযোগ পাচ্ছে। কিন্তু আমরা চাই আমাদের আরো অনেক দূর যেতে হবে জাতির পিতা এদেশকে নিয়ে এ দেশের মানুষকে নিয়ে যে স্বপ্ন দেখেছিলেন- ক্ষুধা ও দারিদ্র মুক্ত বাংলাদেশ গড়বেন, আমাদের লক্ষ্য আমরা সেটাই গড়তে চাই।