ফরিদপুরে গ্রাহকের সাথে প্রতারণা, রকেট এজেন্ট গ্রেপ্তার

atok n23
❏ রবিবার, জানুয়ারী ২৩, ২০২২ ঢাকা, দেশের খবর

হারুন-অর-রশীদ, ফরিদপুর প্রতিনিধি: ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলায় ডাচ-বাংলা ব্যাংকের মোবাইল ব্যাংকিং সেবা ‘রকেট’ এজেন্টের মাধ্যমে গ্রাহকদের সাথে প্রতারণা করে মোহাম্মদ আলী মনির নামে এক প্রতারক পুলিশের জালে গ্রেপ্তার হয়েছে। সে উপজেলার বানা ইউনিয়নের টোনারচর গ্রামের মৃত আ. জব্বার আলীর ছেলে।

দীর্ঘদিন আত্মগোপনে থাকার পর শনিবার দিনগত রাতে যশোরের চৌগাছা উপজেলার ইছাপুর দেওয়ানপাড়া এলাকার ভারত সীমান্তবর্তী থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে আলফাডাঙ্গা থানা পুলিশ।

জানা যায়, গত ছয় মাসে প্রায় ৩৪৫ জন গ্রাহকের সাথে মহা প্রতারণা করে আসছেন এই ব্যক্তি। তাদের থেকে হাতিয়ে নিয়েছেন কমপক্ষে ৩০ লক্ষ টাকা।

রবিবার (২২ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ১১টায় আলফাডাঙ্গা থানা চত্বরে প্রেস-ব্রিফিংয়ে গণমাধ্যমকর্মীদের এসব তথ্য জানান ওসি মো. ওয়াহিদুজ্জামান।

প্রেস-ব্রিফিং সূত্রে আরো জানান, মোহাম্মদ আলী মনির আলফাডাঙ্গা সাব-জোনাল অফিসের আওতাধীন ডাচ বাংলা ব্যাংকের মোবাইল ব্যাংকিং সেবা ‘রকেট’ এজেন্ট ছিলেন। সেই সুবাদে ২০২১ সালের পহেলা ফেব্রুয়ারি থেকে ওই বছরের জুলাই মাস পর্যন্ত প্রায় ৩৪৫ জন গ্রাহকের নিকট হতে ৩ লক্ষ ৬১ হাজার ৬৭৪ টাকার বিদ্যুৎ বিল গ্রহণ করেন।

তবে মনির ওই টাকা বিদ্যুৎ অফিসে জমা না দিয়ে গ্রাহকের অর্থসহ অনান্য আরো অনেকের টাকা প্রতারণামূলকভাবে হাতিয়ে নিয়ে এলাকা থেকে লাপাত্তা হয়ে যায়। পরবর্তীতে তার বিরুদ্ধে আলফাডাঙ্গা থানাতে পেনাল কোড রুজু করা হলে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ তাকে যশোরের চৌগাছা থেকে গ্রেপ্তার করে।

মনিরের গ্রেপ্তারের সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে এ ঘটনা ছাড়াও উপজেলার পাচুড়িয়া ইউনিয়নের বেড়িরহাট গ্রামের মো. আমিনুর রহমানের ৩ লক্ষ ৫০ হাজার, ধুলজুড়ী গ্রামের রবিউল ইসলামের ৮ লক্ষ, ভাটপাড়া গ্রামের সালাহউদ্দিন খানের ১ লক্ষ, ধুলজুড়ী গ্রামের দুলাল চন্দ্র বিশ্বাসের ১ লক্ষ ও হাসি বেগমের নিকট থেকে ৩ লক্ষ টাকার ডিপিএসসহ বিদ্যুৎ বিল আত্মসাৎ করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

আজ রবিবার দুপুরে মনিরকে ফরিদপুর আদালতে হাজির করে অধিকতর তদন্তের জন্য ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হয়েছে।