🕓 সংবাদ শিরোনাম

প্রধানমন্ত্রীকে সাধুবাদ জানিয়েছে টিআইবিচাকরি গেল প্রতিমন্ত্রীর মেয়ের, ফেরত দিতে হবে বেতনওস্বর্ণ গায়েব করে চাকরি হারালেন এসপিখালেদা জিয়া ও বিএনপির জন্য পদ্মা সেতুর নিচে নৌকা রাখা হবে: শাজাহান খানশেখ হাসিনার চেয়ে বেশি উন্নয়ন করাও সম্ভব নয়: খাদ্যমন্ত্রীচট্টগ্রামে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় পুলিশসহ তিনজন নিহততরুনীদের প্রেমের ফাঁদে ফেলে সর্বস্ব লুটে নিতেন পুরুষ ছদ্মবেশী এই তরুণী!অচিরেই বিএনপিসহ সকল রাজনৈতিক দলকে আলোচনায় বসার আহবান জানানো হবে: সিইসিসঠিক তথ্য পেতে আইন শৃংখলা বাহিনীর সাথে কাজ করবে ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তরটিকটক ভিডিও বানাতে নদীতে ঝাঁপ দেবার ঘণ্টা দেড়েক বাদে উদ্ধার হল কিশোরের মৃতদেহ

  • আজ শনিবার, ৭ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ ৷ ২১ মে, ২০২২ ৷

সাংসদের বিরুদ্ধে মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তাকে থাপ্পড় দিয়ে পাবনা ছাড়া করার হুমকির অভিযোগ

Pabna news
❏ বুধবার, মার্চ ৯, ২০২২ রাজশাহী

আব্দুল লতিফ রঞ্জু, পাবনা প্রতিনিধি: নারী দিবসে আমন্ত্রণ দিতে দেরী হওয়ায় পাবনা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তাকে থাপ্পড় দিয়ে পাবনা ছাড়া করার হুমকির অভিযোগ উছেছে পাবনা-সিরাজগঞ্জের সংরক্ষিত নারী সাংসদ নাদিরা ইয়াসমিন জলির বিরুদ্ধে।

নারী দিবসের অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ দিতে দেরি হওয়ায় সোমবার (০৭ মার্চ) সকালে তিনি এমন কান্ড ঘটিয়েছেন বলে অভিযোগ জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা কানিজ আইরিন জাহানের। মঙ্গলবার (০৮ মার্চ) সকালে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে নারী দিবস উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে দেয়া বক্তব্যে এ বিষয়ে অভিযোগ করেন জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা কানিজ আইরিন জাহান।

এর আগে কানিজ আইরিন ও নাদিরা ইয়াসমিন জলি এমপির কথোপকথনের একটি অডিও রেকর্ডও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। যেখানে বেশ রাগান্বিত ও উচ্চস্বরে ওই কর্মকর্তাকে অশালীন ভাষায় পাবনা ছাড়া করার কথা বিভিন্নভাবে হুমকি দিতে শোনা যায় সাংসদের কন্ঠে।

সংরক্ষিত নারী সাংসদ ছাড়াও নাদিরা ইয়াসমিন জলি জাতীয় মহিলা সংস্থা পাবনার চেয়ারম্যান ও পাবনা জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

ভাইরাল হওয়া অডিও রেকর্ডে শোনা যায়, প্রথমে সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শামসুন্নাহার রেখা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তাকে ফোন দিয়ে মহিলা এমপিকে কেন আমন্ত্রণ জানানো হয়নি জানতে চান। মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা চিঠি পাঠানো হয়েছে বলে
জানালে বাসায় কেন লোক পাঠানো হয়নি বা ফোন করা হয়নি তা জানতে চান। একপর্যায়ে, নাদিরা ইয়াসমিন জলি এমপি ফোন কেড়ে নিয়ে বলেন, এই আপনি কি হয়েছেন? আপনি নারী হয়ে নারীদের সম্মান করেন না। আপনাকে এক থাপ্পর মেরে পাবনা ছাড়া করবো কিন্তু, বেশি স্পর্ধা হয়েছে, সব কিছু কি আপনার লীজ দেয়া হয়েছে? মেয়েদের সাথে খারাপ ব্যবহার করেন, আপনাকে কি করে পাবনা ছাড়া করতে হয় তার ব্যবস্থা আমি করছি। আপনাকে পাবনা ছাড়া করা মাত্র দশ মিনিটের বিষয় বলে গালিগালাজ করতে থাকেন।’

কানিজ ফাতেমা আরও বলেন, আমার কাজে অনিয়ম, ভুল ক্রুটি পেলে তিনি বকা দিতে পারেন, প্রশাসনিক ব্যবস্থা নিতে সুপারিশ করতে পারেন। কিন্তু থাপ্পড় দেয়ার কথা বলতে পারেন না। আমার বাবা মাও কখনো আমাকে থাপ্পড় দেননি। অথচ নারী দিবসে আমাকে এমন একটি পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হলো। আমি এখানে সরকারের দায়িত্ব পালন করতে এসেছি, নারী দিবসের দিনে থাপ্পড় খেতে নয়। ঘটনার পর থেকে আমি শারীরীকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়েছি।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে নাদিরা ইয়াসমিন জলি এমপি মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার সাথে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়ের কথা স্বীকার করেন। তবে, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তাকে দুর্ণীতি পরায়ণ, স্বেচ্ছাচারি অভিযোগ করে বলেন, মহিলা এমপি হওয়া সত্ত্বেও নারী দিবসের অনুষ্ঠানে মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা আমাকে আমন্ত্রণ জানানোর প্রয়োজন মনে করেননি। নারী সমাজের প্রতিনিধিকে অপমান, অবজ্ঞা, তাচ্ছিল্য করে তিনি সমগ্র নারী জাতির অবমাননা করেছেন। থাপ্পড় দিতে চেয়েছেন কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, উনি একজন প্রোগ্রাম অফিসার, অতিরিক্ত দায়িত্ব হিসেবে জেলার দায়িত্বে রয়েছেন।
তিনি জেলায় দুর্নীতির রামরাজত্ব কায়েম করেছেন। আমি তাকে সংশোধন হতে বার বার বলেছি। কিন্তু তার অপকর্ম অব্যাহত রেখেছেন। গতকাল কয়েকবার ফোন দেয়ার পরেও তিনি আমার ফোন ধরেননি। পরে অন্য ফোন রিসিভ করায় আমি উত্তেজিত হয়ে পড়েছিলাম। তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নিতে সুপারিশ করবো।

নারী দিবসের অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করা পাবনার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (স্থানীয় সরকার) মোখলেসুর রহমান বলেন, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মৌখিকভাবে অভিযোগ করেছেন। এ ব্যাপারে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নেবেন।