🕓 সংবাদ শিরোনাম

ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার পরই পেরুর প্রেসিডেন্ট আটক * মকবুলের মরদেহ দেখতে হাসপাতালে মির্জা ফখরুল, স্ত্রী সন্তানকে আর্থিক সহায়তা * রাস্তা বন্ধ করে সমাবেশ করতে দেওয়া হবে না, আমরাও করব না: ওবায়দুল কাদের * নয়াপল্টন থেকে মির্জা ফখরুলকে ফিরিয়ে দিলো পুলিশ * বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে আরও ১,২৫০ কোটি টাকা ঋণ নিলো ২ ইসলামী ব্যাংক * দুই মামলায় হাজিরা দিলেন মির্জা ফখরুল-আব্বাস * থমথমে নয়াপল্টন, বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় অবরুদ্ধ * ফুলবাড়ীতে অপহরণের ২১ দিনেও উদ্ধার হয়নি নরসুন্দর বাবলু ! * বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের দেশে কোন মানুষ ঠিকানাহীন থাকবে না : প্রধানমন্ত্রী * ভারতকে টানা ২ সিরিজ হারাল বাংলাদেশ *

  • আজ বৃহস্পতিবার, ২৩ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ৮ ডিসেম্বর, ২০২২ ৷

নারায়ণগঞ্জে দুই ভুয়া চিকিৎসক গ্রেপ্তার

atok
❏ বুধবার, মার্চ ৯, ২০২২ ঢাকা, দেশের খবর

সুমন আল হাসান, সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জের বন্দর থেকে দুই ভুয়া ডাক্তারকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব-১১। মঙ্গলবার লাঙ্গলবন্দ চিড়াইপাড়া এলাকা থেকে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন নারায়ণগঞ্জের বন্দরের জাংগাল এলাকা মনির হোসেনের দুই ছেলে মোঃ সোহাগ ও নুর মোহাম্মদ সুজন।

বুধবার (০৯ মার্চ) দুপুরে সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজীতে অবস্থিত র‍্যাব-১১’র সদর দপ্তর থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এসব তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে র‍্যাব-১১’র উপ-পরিচালক এ কে এম মুনিরুল আলম জানান, গ্রেপ্তারকৃত দুই ভাই বন্দরের চিড়াইপাড়া এলাকার মা মেডিকেল হল এন্ড ডক্টরস চেম্বার প্রতিষ্ঠানের পরিচালক। তারা কম্পাউন্ডার হিসেবে পরিচয় দিয়ে তারা বিভিন্ন রোগ নির্ণয়ের জন্য রোগীদের রক্তের নমুনা সংগ্রহ করত এবং ডাক্তারের পরামর্শক্রমে বিভিন্ন প্রকার ভ্যাকসিন ইনজেক্ট করে বলে জানাতো। তাদের কারোই মেডিকেল এবং মেডিসিন বিষয়ক শিক্ষাগত যোগ্যতার কোন সার্টিফিকেট নেই।

তাদের আপন ছোট ভাই মোঃ সোহেল মাহমুদ খানও একজন ভুয়া ডাক্তার। সে বিএমডিসি কর্তৃক অনুমোদিত কিংবা একাডেমি সার্টিফিকেটধারী কোনো রেজিষ্টার্ড ডাক্তার না। তাকে গ্রেফতার করার আগেই সে পালিয়ে যায়।

র‍্যাব আরো জানায়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতাররা সাংবাদিকতার পরিচয় দিলেও তাদের সাংবাদিকতার নূন্যতম যোগ্যতা নেই। তারা দীর্ঘদিন সাংবাদিকতাকে পুঁজি করে ঢাল হিসেবে ব্যবহার করত। এছাড়া তারা ড্রাগ লাইসেন্স ব্যতিত উল্লেখিত প্রতিষ্ঠানের ফার্মেসীতে বিভিন্ন প্রকার যৌন উত্তেজক ঔষধ এবং স্বল্পমূল্যে মেয়াদ উত্তীর্ণ ঔষধ বিক্রি করে। তাছাড়া তারা পরস্পর যোগসাজশে দীর্ঘদিন যাবৎ লোকচক্ষুর আড়ালে আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর চোখ ফাঁকি দিয়ে সুকৌশলে সাধারণ মানুষের সাথে চিকিৎসার নামে প্রতারণা করে আসছিল।

তাদের বিরুদ্ধে নারায়ণগঞ্জের বন্দর থানায় মামলা করা হয়েছে বলে জানান র‍্যাব-১১ এর উপ-পরিচালক এ কে এম মুনিরুল আলম।