🕓 সংবাদ শিরোনাম

জমি দখলে বাধা দেওয়ায় সন্ত্রাসী হামলা, বৃদ্ধসহ আহত-২ভারতের বেঙ্গালুরুতে বাংলাদেশি নারীকে ধর্ষণের দায়ে ১১ জনের কারাদণ্ড‘সংকট নিরসনে শ্রীলঙ্কা ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মডেল’ অনুসরন করতে পারে’স্কুল ফাঁকি দেয়া শিক্ষকদের বিরুদ্ধে শাস্তির বিধান রাখা উচিত: মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রীটানা ৩১ দিন করোনায় মৃত্যুহীন দেশ, গত ২৪ ঘন্টায় শনাক্ত ১৬দেশের চিকিৎসা বিজ্ঞানে নতুন আবিস্কার: হেপাটাইটিস-বি ভাইরাসের ওষুধ ‘ন্যাসভ্যাক’রাতগভীরে ঘুম থেকে উঠে গলায় ফাঁস দিয়ে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যাবিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে শাবিপ্রবি পেল সর্বোচ্চ বরাদ্দবঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভা চ্যাম্পিয়াননির্বাচনে ভোটারদের না আসার প্রবণতা রয়েছে: নির্বাচন কমিশনার

  • আজ রবিবার, ৮ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ ৷ ২২ মে, ২০২২ ৷

ঘুষ ছাড়া কাজ করেনা ‘ভূমি কর্মকর্তা’

Mymensing news
❏ শুক্রবার, মার্চ ১১, ২০২২ ময়মনসিংহ

কামরুজ্জামান মিন্টু, স্টাফ রিপোর্টার: ঘুষ-দুর্নীতির অভিযোগে ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জের উচাখিলা ইউনিয়নের সহকারী ভূমি কর্মকর্তা মিজানুর রহমানের অপসারণ ও শাস্তির দাবিতে ইউএনও’র কাছে স্মারকলিপি দিয়েছে এলাকাবাসী।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হাফিজা জেসমিনের কাছে বৃহস্পতিবার বিকেলে স্মারকলিপি দেয়া হয়েছে। এসময় ভূমি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে খাজনা-খারিজসহ বিভিন্ন সেবা-পরিষেবায় অতিরিক্ত টাকা আদায়সহ নানা অভিযোগ তুলেছেন তারা।

ইউএনও হাফিজা জেসমিন সময়ের কন্ঠস্বরকে বলেন, ভূমি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অনেকগুলো অভিযোগ তোলা হয়েছে। সবগুলো অভিযোগ তদন্ত করে দেখা হবে। প্রমাণ মিললে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এর আগে গত ২ মার্চ ঘুষ গ্রহণের বিষয়টি জানতে পেরে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) ময়মনসিংহের একটি টিম ভূমি কার্যালয়ে আসেন। এসময় নানা তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ করেন তারা।

এরপর ৫ মার্চ ওই ভূমি কর্মকর্তা মূর্তিমান আতঙ্ক উল্লেখ করে তার অপসারণসহ শাস্তির দাবিতে উপজেলার উচাখিলা বাজারে ঝাড়ু হাতে নিয়ে দুই শতাধিক লোক মানববন্ধনে অংশ নিয়ে বিক্ষোভ করেন৷

এসময় স্থানীয়রা জানান, আট বছর ধরে ওই ইউনিয়ন ভূমি অফিসে কর্মরত মিজানুর। খাজনা-খারিজসহ বিভিন্ন সেবা-পরিষেবায় অতিরিক্ত টাকা ছাড়া কোনো কাজ করেন না তিনি। বিভিন্ন অজুহাতে দরকষাকষি করে টাকা হাতিয়ে নেন। তার অপসারণসহ শাস্তির ব্যবস্থা না হলে লাগাতার আন্দোলন করা হবে।

ওই ইউনিয়নের চরআলগী গ্রামের ব্যবসায়ী সিপন সরকার বলেন, ‘এই ভূমি কর্মকর্তা আমাদের কাছে মূর্তিমান এক আতঙ্কের নাম৷ তার কাছে যাওয়ার আগে অতিরিক্ত টাকা নিয়ে যেতে হয়। না হলে কাগজে বিভিন্ন সমস্যা দেখিয়ে বাড়িতে ফেরত পাঠিয়ে দেন। আমরা এমন দুর্নীতিবাজ ভূমি কর্মকর্তা চাই না।’

তিনি বলেন, আশা করছি তদন্ত সাপেক্ষে তার বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। নয়ত এলাকাবাসী আবারও ফুঁসে উঠে আন্দোলনে নামবে।

তবে অভিযোগের বিষয়টি অস্বীকার করে সহকারী ভূমি কর্মকর্তা মিজানুর রহমান বলেন, আমি সরকারি বেতন পাচ্ছি। ঘুষ নেওয়ার প্রশ্নই উঠেনা। স্থানীয় একটি কুচক্রী মহল আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে।

তিনি বলেন, এখন লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে। তদন্ত করলেই সব পরিষ্কার হবে।