• আজ বুধবার, ১১ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ ৷ ২৫ মে, ২০২২ ৷

একসঙ্গে ৩ সন্তানের জন্ম দিলেন পাগলি, হাসপাতালে একটি চুরি

পাগলি
❏ বুধবার, মার্চ ১৬, ২০২২ দেশের খবর, রাজশাহী

আব্দুল লতিফ রঞ্জু, পাবনা প্রতিনিধি: পাবনা জেনারেল হাসপাতালে তিনটি ছেলে সন্তানের জন্ম দিয়েছেন এক মানসিক ভারসাম্যহীন প্রতিবন্ধী নারী।

সোমবার (১৪ মার্চ) রাতে এ ঘটনা ঘটে। এরই মধ্যে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের অবহেলা ও উদাসীনতায় একটি নবজাতক চুরি হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

জানা গেছে, সোমবার রাতে এক মানসিক প্রতিবন্ধী নারী তিন শিশুর জন্ম দেন। সন্তান জন্ম দেওয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে একটি চুরি হয়ে যায়। বাকি দুই নবজাতককে দুই নিঃসন্তান দম্পতির কাছে দত্তক দেওয়া হয়েছে।

মানসিক প্রতিবন্ধী ওই নারীর কোনো পরিচয় পাওয়া যায়নি। এক বছর ধরে তিনি হাসপাতালের বারান্দা ও সিঁড়িতে মানবেতন জীবনযাপন করেছেন। হাসপাতালে আসা রোগীর স্বজন ও কর্মচারীরা কোনো খাবার দিলে তিনি তা দিয়ে ক্ষুধা নিবারণ করতেন। না হলে অনাহারে থাকতেন।

এদিকে সোমবার প্রতিবন্ধী ওই নারী ফুটফুটে তিন ছেলে সন্তানের জন্ম দিয়েছেন। কিন্তু সকাল না হতেই তিন নবজাতকের মধ্যে একজনকে হাসপাতালে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। বাকি দুই নবজাতককে দত্তক নিয়েছেন বলে দাবি করেছেন দুই নিঃসন্তান দম্পতি।

পাবনা জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র নার্স আফরোজা পারভিন বলেন, অনেক দিন ধরে ওই প্রতিবন্ধী নারী অজ্ঞাত পরিচয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। তার চিকিৎসাও দেওয়া হচ্ছিল।

পাবনা জেনারেল হাসপাতালের সহকারী পরিচালক মো. ওমর ফারুক মীর জানান, হাসপাতালে লোকবল সংকট থাকায় কর্তৃপক্ষকে বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। মানসিক প্রতিবন্ধী নারীর তিনটি সন্তান প্রসবের কথা স্বীকার করলেও ঘটনায় নিজেদের দায় নিতে নারাজ কর্তৃপক্ষ।

হাসপাতালের পরিচালক জানান, সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম জানান, এই ঘটনায় এখনো থানায় কোনো লিখিত অভিযোগ দেয়নি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। ঘটনাটি জানার পর পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। তদন্তে প্রমাণিত হলে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।