🕓 সংবাদ শিরোনাম

জম্মু-কাশ্মীরে টানেল ধস; দীর্ঘ ৩৬ ঘণ্টা উদ্ধার তৎপরতায় মিললো ১০ মরদেহজমি দখলে বাধা দেওয়ায় সন্ত্রাসী হামলা, বৃদ্ধসহ আহত-২ভারতে যৌন নির্যাতনের শিকার আলোচিত সেই তরুণীকে বাংলাদেশের কাছে হস্তান্তরভারতের বেঙ্গালুরুতে বাংলাদেশি নারীকে ধর্ষণের দায়ে ১১ জনের কারাদণ্ড‘সংকট নিরসনে শ্রীলঙ্কা ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মডেল’ অনুসরন করতে পারে’স্কুল ফাঁকি দেয়া শিক্ষকদের বিরুদ্ধে শাস্তির বিধান রাখা উচিত: মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রীটানা ৩১ দিন করোনায় মৃত্যুহীন দেশ, গত ২৪ ঘন্টায় শনাক্ত ১৬দেশের চিকিৎসা বিজ্ঞানে নতুন আবিস্কার: হেপাটাইটিস-বি ভাইরাসের ওষুধ ‘ন্যাসভ্যাক’রাতগভীরে ঘুম থেকে উঠে গলায় ফাঁস দিয়ে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যাবিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে শাবিপ্রবি পেল সর্বোচ্চ বরাদ্দ

  • আজ রবিবার, ৮ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ ৷ ২২ মে, ২০২২ ৷

সরকারি চাকরি দেয়ার নামে প্রতারণা, স্বামী-স্ত্রী আটক

আটক
❏ বুধবার, মার্চ ২৩, ২০২২ দেশের খবর, রংপুর

মোঃ ফরহাদ হোসাইন, নীলফামারী প্রতিনিধি: সরকারি হাসপাতালে চাকুরি দেয়ার নামে ৩২ জনের কাছ থেকে ২০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে এক দম্পতিকে আটক করে পুলিশ।

গত সোমবার রাতে সৈয়দপুর শহরের রেলওয়ের বাজার থেকে তাদের আটক করা হয়। আটককৃতরা হলেন- মোঃ জাহিদুল ইসলাম (৪৮) ও তার স্ত্রী জান্নাতুল ফেরদৌস (৪০)। গতকাল মঙ্গলবার তাদের আদালতে পাঠানো হয়।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, পঞ্চগড় সদরের পাটোয়ারিপাড়ার বাসিন্দা জাহিদুল ইসলাম ঢাকাস্থ মতিঝিলের ‘গোল্ডেন সার্ভিস লিমিটেড কোম্পানি’র নির্বাহী পরিচালক পরিচয়ে বিভিন্ন সরকারী হাসপাতালে চাকুরী দেয়ার নামে দিনাজপুর, সৈয়দপুর, জয়পুরহাট ও কুড়িগ্রামের প্রায় ৩২ জনের কাছ থেকে ২০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়।

গত ১৭ মার্চ সৈয়দপুরের পার্শ্ববর্তী চিরিরবন্দরের বিন্যাকুড়ি এলাকার আজিজার রহমানের ছেলে আতিকুর রহমানকে সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালে চাকরি দেওয়ার কথা বলে ৫ লাখ টাকা দাবি করেন। ওইদিন রাত সাড়ে ৯টার দিকে আতিকুর রহমানের কাছ থেকে ওই টাকা নেওয়ার জন্য জাহিদুল ইসলাম সস্ত্রীক সৈয়দপুর শহরের আসেন।

আটক জাহিদুল ইসলাম বলেন, সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সাথে লিখিত চুক্তির ভিত্তিতেই আমি জনবল নিয়োগ দিয়েছি। সেই আলোকেই হাসপাতালের কয়েকজন চিকিৎসকের সুপারিশকৃত ১৬ জন জনবলসহ আমার নিয়োগকৃত ৭ জন কর্মরত। উপ-পরিচালকের অনুমতিক্রমেই নিয়োগ কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়েছে। তিনি সবই জানেন।

সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা: মো: আব্দুল্লাহেল মাফি বলেন, জাহিদুল প্রতারণা করায় তার নিয়োগকৃত দুইজনকে গত সোমবার বের করে দিয়েছি। তার চাকুরী দেয়ার নামে অর্থ হাতিয়ে নেয়া বিষয়ে আমাদের কোন সম্পৃক্ততা নেই।

সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল হাসনাত খান বলেন, আটক জাহিদুল চাকরি দেওয়ার নামে টাকা গ্রহণের বিষয়টি স্বীকার করেছেন। তবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কিংবা কোনো ব্যক্তি লিখিত অভিযোগ দেয়নি। তবে যেহেতু তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন, সে কারণে আটক দম্পতিকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।