🕓 সংবাদ শিরোনাম

প্রধানমন্ত্রীকে সাধুবাদ জানিয়েছে টিআইবিচাকরি গেল প্রতিমন্ত্রীর মেয়ের, ফেরত দিতে হবে বেতনওস্বর্ণ গায়েব করে চাকরি হারালেন এসপিখালেদা জিয়া ও বিএনপির জন্য পদ্মা সেতুর নিচে নৌকা রাখা হবে: শাজাহান খানশেখ হাসিনার চেয়ে বেশি উন্নয়ন করাও সম্ভব নয়: খাদ্যমন্ত্রীচট্টগ্রামে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় পুলিশসহ তিনজন নিহততরুনীদের প্রেমের ফাঁদে ফেলে সর্বস্ব লুটে নিতেন পুরুষ ছদ্মবেশী এই তরুণী!অচিরেই বিএনপিসহ সকল রাজনৈতিক দলকে আলোচনায় বসার আহবান জানানো হবে: সিইসিসঠিক তথ্য পেতে আইন শৃংখলা বাহিনীর সাথে কাজ করবে ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তরটিকটক ভিডিও বানাতে নদীতে ঝাঁপ দেবার ঘণ্টা দেড়েক বাদে উদ্ধার হল কিশোরের মৃতদেহ

  • আজ শনিবার, ৭ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ ৷ ২১ মে, ২০২২ ৷

 এমপিকে ধাক্কা: দুগ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ, আহত ৮

Mirzapur news
❏ শুক্রবার, এপ্রিল ১, ২০২২ ঢাকা

মো. সানোয়ার হোসেন,মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধিঃ  টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনের প্রথম অধিবেশনের পর। দুপুরে উপজেলা পরিষদ চত্বর থেকে সভাপতি মীর শরীফ মাহমুদ ও সাধারণ সম্পাদক তাহরীম হোসেন সীমান্তর নাম ঘোষণা করা হলে সভাপতি শরীফের কর্মী-সমর্থকেরা মিছিল বের করেন। সেসময় এমপি খান আহমেদ শুভকে ধাক্কার ঘটনা ঘটে। পরে  এমপি নতুন সভাপতি শরীফের সমর্থকদের সাথে বাকবিতন্ডা ও পরে তুমুল সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে দুপক্ষের ৮ আহত হয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে।

ঘটনাসুত্রে জানা যায়, সম্মেলনের প্রথম অধিবেশন শেষে মির্জাপুর উপজেলা পরিষদের দোতলা ভবন থেকে ফলাফল ঘোষণা করা হয়। ফলাফল ঘোষণার পর সভাপতি মনোনীত মীর শরীফ মাহমুদের সমর্থকরা একটি মিছিল বের করে। এসময় স্থানীয় এমপি খান শুভকে একজন ধাক্কা দেয়। এতে এমপির সমর্থকেরা প্রতিবাদ করলে দুপক্ষের সাথে বাকবিতন্ড হয়। একপর্যায়ে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় দেশীয় অস্ত্র ও লাঠিসোঠা ব্যবহার করেন উভয় পক্ষের লোকজন এবং উপজেলা পরিষদ চত্বরের ফুলের টব ও গাছ ভাঙচুর করেন। খবর পেয়ে মারামারির তথ্য সংগ্রহ করতে গেলে স্থানীয় সাংবাদিকদের ক্যামেরা চালাতে বাধাগ্রস্ত ও হুমকি প্রদান করেন সংসদ সদস্যের কর্মী-সমর্থকেরা!

মীর শরীফ মাহমুদের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, এমপির শরীরে কেউ ধাক্কা দেয়নি। মিছিল করার সময় হয়তো মানুষের চাপাচাপিতে ধাক্কা লেগেছে। এতে এমপির লোকজন ক্ষীপ্ত হয়ে আমার লোকজনের ওপর হামলা চালায়। এতে ৪ জন আহত হয়েছে বলে শুনেছি, তবে তাদের নাম তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। উল্লেখ করেন, যারা হামলা করেছেন তাদেরকে কখনো আওয়ামী লীগ করতে দেখিনি!

এ ব্যাপারে সংসদ সদস্য খান আহমেদ শুভর সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি বলেন, আমাকে একটি ছেলে ধাক্কা দিলে সেটির প্রতিবাদ করায় আমার এক সমর্থকের সাথে হাতাহাতি হয়। পরে আমি বিষয়টি মিমাংসা করে দিয়েছি। তিনি বলেন, এ ঘটনায় আমার তিন-চারজন সমর্থক আহত হয়েছেন।

ঘটনার পর এলাকার সার্বিক পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়। যদিও সহকারী পুলিশ সুপার (মির্জাপুর সার্কেল) এস.এস. মনসুর মূসা ও মির্জাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আলম চাঁদের কাছে মারামারির ঘটনা সম্পর্কে জানতে চাইলে সাংবাদিকদের কাছে কোনো প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেননি।