🕓 সংবাদ শিরোনাম

প্রধানমন্ত্রীকে সাধুবাদ জানিয়েছে টিআইবিচাকরি গেল প্রতিমন্ত্রীর মেয়ের, ফেরত দিতে হবে বেতনওস্বর্ণ গায়েব করে চাকরি হারালেন এসপিখালেদা জিয়া ও বিএনপির জন্য পদ্মা সেতুর নিচে নৌকা রাখা হবে: শাজাহান খানশেখ হাসিনার চেয়ে বেশি উন্নয়ন করাও সম্ভব নয়: খাদ্যমন্ত্রীচট্টগ্রামে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় পুলিশসহ তিনজন নিহততরুনীদের প্রেমের ফাঁদে ফেলে সর্বস্ব লুটে নিতেন পুরুষ ছদ্মবেশী এই তরুণী!অচিরেই বিএনপিসহ সকল রাজনৈতিক দলকে আলোচনায় বসার আহবান জানানো হবে: সিইসিসঠিক তথ্য পেতে আইন শৃংখলা বাহিনীর সাথে কাজ করবে ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তরটিকটক ভিডিও বানাতে নদীতে ঝাঁপ দেবার ঘণ্টা দেড়েক বাদে উদ্ধার হল কিশোরের মৃতদেহ

  • আজ শনিবার, ৭ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ ৷ ২১ মে, ২০২২ ৷

অপহরণের পর স্কুলছাত্রীকে চারদিন আটকে রেখে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ

প্রতীকী ছবি
❏ বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ৭, ২০২২ ঢাকা

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলায় ৬ষ্ঠ শ্রেনীর এক স্কুল ছাত্রীকে দলবেঁধে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ডাক্তারী পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে বলে কোটালীপাড়া থানার ওসি মোঃ জিল্লুর রহমান জানিয়েছেন। ওই ছাত্রী মাদারীপুর জেলার ডাসার উপজেলার শশিকর উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থী।

এ ঘটনার ওই ছাত্রীর বাবা কোটালীপড়া থানায় ৪ জনকে আসামী করে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

মামলার বিবরণে জানাগেছে, গত ২৬ মার্চ বিকেলে ওই ছাত্রী নিজ বাড়ী মাদারীপুরের ডাসার উপজেলার শশিকর গ্রাম থেকে পার্শ্ববর্তী গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলার পিড়ারবাড়ী গ্রামে মামা বাড়ীতে নামকীর্ত্তন গান শোনার জন্য আসছিলো। সে তার মামা বাড়ীতে না যাওয়ায় পরিবার থেকে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুজি করা হয়।

কিন্তু তার কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। পরে সে ৩০ মার্চ গোপাল বাড়ৈর বাড়ী থেকে পালিয়ে পার্শ্ববর্তি রেখা বালার বাড়ীতে আশ্রয় নেয়। রেখা বালার মাধ্যমে তার মেয়েকে ফেরত পান বাবা।

মামলায় আরো উল্লেখ করা হয়, ২৬ মার্চ মামা বাড়ীতে যাওয়ার পথে পিড়ারবাড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে পৌঁছালে কোটালীপাড়া উপজেলার পলোটানা গ্রামের কালু বাড়ৈর ছেলে গোপাল বাড়ৈ (৩০), খোকন বাড়ৈর ছেলে আটল বাড়ৈ (২২), রামানন্দ বৈদ্যের ছেলে তাপস বৈদ্য (৪০) ও মুশুরিয়া গ্রামের নারায়ণ বালার ছেলে বরুন বালা (২৩) জোরপূর্বক তাকে অপহরণ করে নিয়ে যায়।

পরবর্তিতে গোপাল বাড়ৈর বাড়ীতে ৪ দিন আটকে রেখে দলবেঁধে ধর্ষন করা হয় বলে ওই শিক্ষার্থীর বাবা জানান। সেখান থেকে ওই স্কুল ছাত্রী পালিয়ে রেখা বালার বাড়ীতে আশ্রয় নেয় বলে জানান তিনি।

কোটালীপাড়া থানার ওসি মোঃ জিল্লুর রহমান জানিয়েছেন, ওই স্কুল ছাত্রীকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। পুলিশের ধারণা ওই ছাত্রীকে অপহরণ করে দলবেঁধে ধর্ষণ করা হয়ে থাক পারে। রিপোর্ট পাওয়ার পর সব কিছু জানা যাবে।