🕓 সংবাদ শিরোনাম

আরিফিন শুভ-তিশাকে শুভকামনা জানালেন নওয়াজুদ্দিনবিদ্যুৎ-গ্যাসের দাম বৃদ্ধির প্রস্তাব আত্মঘাতী: এফবিসিসিআইআড়াইহাজারে মজুরি বৃদ্ধিসহ দ্রব্যমূল্যের দাম নিয়ন্ত্রণের দাবিতে শ্রমিক বিক্ষোভজাপা কোন জোটে যাবে পরিস্থিতি বুঝে সিদ্ধান্ত: জিএম কাদেরআগামী মাসেই পদ্মা সেতুতে দাঁড়িয়ে মানুষ পূর্ণিমার চাঁদ দেখবে: কাদেরঝড়ের কবলে পড়ে বালুবাহী বাল্কহেড ডুবিসরকারি কর্মচারীদের ৬০ শতাংশ বেতন বৃদ্ধির দাবিচট্টগ্রামে পুলিশ ভ্যানে বাসের ধাক্কা, ১৫ পুলিশ সদস্য আহতগাজীপুরে অরক্ষিত ক্রসিংয়ে ট্রেন-পিকআপ ভ্যান সংঘর্ষে নিহত ৩৫৫ বছর বয়সে ঢাবি ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেবেন বেলায়েত

  • আজ শনিবার, ৭ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ ৷ ২১ মে, ২০২২ ৷

ফরিদপুরে দুই গ্রুপের দ্বন্দে নৃশংস হত্যার শিকার দুইজন


❏ শুক্রবার, এপ্রিল ৮, ২০২২ ঢাকা

হারুন-অর-রশীদ, ফরিদপুর প্রতিনিধি: ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার জান্দি গ্রামে ২ জনকে নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষ।

নিহতরা হলেন- উপজেলার জান্দি গ্রামের কামরুল মাতুব্বর (৩২) ও ছলেমান শরীফ (৩৫)। এসময় আমিনুল নামের আরো এক জন আহত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৭ এপ্রিল) দিনগত রাত ১১ টার দিকে স্থানীয় বাজার থেকে মোটরসাইকেলে তারা তিন জন বাড়ী ফেরার পথে সন্ত্রাসী হামলায় এ নৃশংস হত্যাকান্ডের শিকার হয়।

এলাকাবাসী জানায়, জান্দি গ্রামে দুটি গ্রুপের দুই জন নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন। এক গ্রুপের নিহত কামরুল মাতুব্বর ও অন্য গ্রুপের জামাল শেখ।

এলাকায় বেশ কিছুদিন ধরে এই দুই জনের মধ্যে কোন্দল চলছিল। গত দুই সপ্তাহ ধরে জামাল গ্রুপের কয়েকজন সমর্থক কামরুল মাতুব্বরের সঙ্গে যোগ দেওয়ায় ক্ষিপ্ত হয় জামাল।

সেই জের ধরে ঘটনার রাতে স্থানীয় পোদ্দার বাজার থেকে আমিনুলের মোটসাইকেলে কামরুল, ছলেমানসহ তারা তিন জন বাড়ি ফিরছিলেন। রাস্তায় ওঁত পেতে থাকা প্রতিপক্ষ জামালসহ গ্রুপের আনুমানিক ১৫ জন প্রতিপক্ষ ওদের উপর দেশীয় অস্ত্র দিয়ে এলোপাথাড়িভাবে কুঁপাতে থাকে।

এসময় ঘটনাস্থলে ছলেমান শরীফ নিহত হন। গুরুতর আহত কামরুল মাতুব্বরকে রাতেই স্থানীয়রা উদ্ধার করে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। অবস্থার অবনতি হলে ঢাকায় নেওয়ার পথে গাড়িতেই রাত ২টার দিকে তিনি মারা যান। চালক আমিনুল গাড়ী ফেলে কোঁপ খেয়ে দৌড়ে প্রাণে বেঁচে যান। তাকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে ভাঙ্গা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ভাঙ্গা সার্কেল) ফাহিমা কাদের চৌধুরী ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এলাকায় আধিপত্যকে কেন্দ্র করে এই নৃশংস হত্যা কান্ডের ঘটনা শুনে তাৎক্ষণিক রাতেই এলাকায় গিয়েছি। এক জন ঘটনাস্থলে নিহত হন আরেক জন ঢাকায় মারা যায়।

এই সন্ত্রাসী হামলার সঙ্গে যারা জড়িত তাদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে এবং এলাকায় পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।