🕓 সংবাদ শিরোনাম

আরিফিন শুভ-তিশাকে শুভকামনা জানালেন নওয়াজুদ্দিনবিদ্যুৎ-গ্যাসের দাম বৃদ্ধির প্রস্তাব আত্মঘাতী: এফবিসিসিআইআড়াইহাজারে মজুরি বৃদ্ধিসহ দ্রব্যমূল্যের দাম নিয়ন্ত্রণের দাবিতে শ্রমিক বিক্ষোভজাপা কোন জোটে যাবে পরিস্থিতি বুঝে সিদ্ধান্ত: জিএম কাদেরআগামী মাসেই পদ্মা সেতুতে দাঁড়িয়ে মানুষ পূর্ণিমার চাঁদ দেখবে: কাদেরঝড়ের কবলে পড়ে বালুবাহী বাল্কহেড ডুবিসরকারি কর্মচারীদের ৬০ শতাংশ বেতন বৃদ্ধির দাবিচট্টগ্রামে পুলিশ ভ্যানে বাসের ধাক্কা, ১৫ পুলিশ সদস্য আহতগাজীপুরে অরক্ষিত ক্রসিংয়ে ট্রেন-পিকআপ ভ্যান সংঘর্ষে নিহত ৩৫৫ বছর বয়সে ঢাবি ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেবেন বেলায়েত

  • আজ শনিবার, ৭ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ ৷ ২১ মে, ২০২২ ৷

‘আজ আমার মন খারাপ’ খবরটি একটি জঘন্য মিথ্যাচার ও অপপ্রচার: মোস্তাফা জব্বার


❏ সোমবার, এপ্রিল ১৮, ২০২২ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা: ‘আজ আমার মন খারাপ’ ফেসবুকে এমন স্ট্যাটাস দিলে শাস্তি হতে পারে বলে যে বিষয়টি ভাইরাল হয়েছে, ওটিটি নীতিমালায় এ বিষয়ে এমন কিছু বলা নেই। এটা নিয়ে অপব্যাখ্যা দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

এ প্রসঙ্গে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক আইডি থেকে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার জানান, গত দুদিন ধরে ফেসবুকে একটি দৈনিক পত্রিকার খবর অনুসারে ট্রল করা হচ্ছে যে ফেসবুকে “আমার মন খারাপ” পোস্ট দিলে শাস্তি হবে।

এই খবরটি একটি জঘন্য মিথ্যাচার ও অপপ্রচার। খসড়া নীতিমালায় এমন কোন বাক্য নেই। যারা বিভ্রান্ত হচ্ছেন তাদের জন্য জানাচ্ছি যে, বিটিআরসি একটি নীতিমালার প্রথম খসড়া তৈরি করেছে যার ফলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বা ওটিটি প্লাটফরমে ডিজিটাল অপরাধ প্রতিরোধ করা যায়।

এটি উচ্চ আদালতের নির্দেশে করা হয়েছে। এর ওপর মতামত দিতে বলা হয়েছিলো। এখন অংশীজনদের মতামত নেয়া হচ্ছে। এরপর এটি আদালতে পেশ করা হবে এবং আদালত এই বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে।

মূলত সোশ্যাল মিডিয়াসহ ওটিটি প্ল্যাটফর্মে বিশৃঙ্খলা এড়াতেই উচ্চ আদালতের নির্দেশনায় নীতিমালাটি করা হচ্ছে বলে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসির পক্ষ থেকে জানানো হয়।

বাংলাদেশ ডিজিটাল, সোশ্যাল মিডিয়া এবং ওটিটি প্লাটফর্মের জন্য টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন নতুন বিধিমালা যে খসড়া করেছে, তা নিয়ে একটি ওয়েবিনার করা হয়। সেখানে কয়েকজন বক্তা মন্তব্য করেন, নতুন যে বিধিমালা করা হয়েছে, তাতে নিয়ন্ত্রক সংস্থাকে এতটাই ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে যে, ফেসবুকে মন খারাপের স্ট্যাটাস দিলেও তাকে আইনের আওতায় আনা যাবে।

গণমাধ্যমে এ সংক্রান্ত সংবাদে বলা হয়, ‘আজ আমার মন খারাপ’- ভবিষ্যতে ফেসবুকে এমন স্ট্যাটাস দিলেও আইনের আওতায় আনার ক্ষমতা থাকবে সরকারি কর্তৃপক্ষের।

নতুন এ বিধিমালায় হোয়াটসঅ্যাপ, মেসেঞ্জারের মতো অ্যাপে ব্যক্তিগত আলাপচারিতার তথ্যে প্রবেশ এবং নিয়ন্ত্রণের জন্য নজর দেওয়া হয়েছে বলে আলোচনায় উঠে আসে।

শনিবার ‘মৌলিক অধিকার সুরক্ষা কমিটি’ আয়োজিত ওয়বিনারে বক্তারা বলেন, এ বিধিমালা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মতই আরও একটি মৌলিক অধিকার ক্ষুণ্নকারী বিধান হবে, প্রকৃতপক্ষে সাইবার অপরাধ দমন করতে পারবে না। বিষয়টি নিয়ে ফেসবুকে অনেকে মন্তব্য করেছেন যে, এ পদক্ষেপ বক্তিগত মত প্রকাশের ওপর আঘাত এবং ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষার জন্য হুমকি।