🕓 সংবাদ শিরোনাম

প্রধানমন্ত্রীকে সাধুবাদ জানিয়েছে টিআইবিচাকরি গেল প্রতিমন্ত্রীর মেয়ের, ফেরত দিতে হবে বেতনওস্বর্ণ গায়েব করে চাকরি হারালেন এসপিখালেদা জিয়া ও বিএনপির জন্য পদ্মা সেতুর নিচে নৌকা রাখা হবে: শাজাহান খানশেখ হাসিনার চেয়ে বেশি উন্নয়ন করাও সম্ভব নয়: খাদ্যমন্ত্রীচট্টগ্রামে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় পুলিশসহ তিনজন নিহততরুনীদের প্রেমের ফাঁদে ফেলে সর্বস্ব লুটে নিতেন পুরুষ ছদ্মবেশী এই তরুণী!অচিরেই বিএনপিসহ সকল রাজনৈতিক দলকে আলোচনায় বসার আহবান জানানো হবে: সিইসিসঠিক তথ্য পেতে আইন শৃংখলা বাহিনীর সাথে কাজ করবে ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তরটিকটক ভিডিও বানাতে নদীতে ঝাঁপ দেবার ঘণ্টা দেড়েক বাদে উদ্ধার হল কিশোরের মৃতদেহ

  • আজ শনিবার, ৭ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ ৷ ২১ মে, ২০২২ ৷

নিখোঁজের ৩ দিন পর জঙ্গলে মিললো যুবকের মরদেহ

Cox's Bazar news
❏ বুধবার, এপ্রিল ২০, ২০২২ চট্টগ্রাম

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট(কক্সবাজার): কক্সবাজারের রামু উপজেলার ঈদগড় ইউনিয়নের চরপাড়া গ্রামে নিখোঁজের ৩ দিন পর শহিদুল ইসলাম নামে এক বাইক চালকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত শহিদুল একই এলাকার মোঃ ইসহাক মিয়ার ছেলে। পেশায় তিনি ভাড়ায় চালিত বাইক চালক।

মঙ্গলবার (১৯ এপ্রিল) সকালে ছোট্ট পুইট্রা ঝিরির আবু সওদাগড় ও বাজার সমিতির বাগানের মাঝামাঝি স্থানে পাহাড়ের থলিতে কাজ করতে আসা লোকজন জঙ্গলে নিহত শহিদুল ইসলামের বাবা মোঃ ইসহাক মিয়াকে এই লাশের বিষয়ে জানালে,  তিনি তৎক্ষনাৎ আত্বীয়স্বজন নিয়ে ঘটনাস্থলে যান এবং শোকনা পাতার নিচে লুকিয়ে রাখা শহিদুল ইসলামের রক্তাত্ত মৃত দেহ দেখে পুলিশকে খবর দেন।

এই ঘটনায় নিহত শহিদুল ইসলামের সাবেক প্রেমিকা রেজিনা আক্তারকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ। আটক রেজিনা আক্তার ঈদগড় ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের চরপাড়া গ্রামের রশিদ আহাম্মদের মেয়ে।

জানা গেছে, গত ১৭ এপ্রিল রাত আনুমানিক সাড়ে ১১ টায় তার ব্যবহ্নত মোবাইলে কে বা কারা ফোন করে ভাড়ার কথা বলে ডেকে নিয়ে যায়। রাত শেষে সকাল সকাল আবার সকাল শেষে পরের দিন রাতে ও বাড়ীতে না ফেরায় তার পিতা মোঃ ইসহাক আটক রেজিনা আক্তারকে বিবাদী করে রামু থানায় সাধারণ ডায়েরী লিপিবদ্ধ করেন।

নাইক্ষ্যংছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ নানটু শাহার নেতৃত্বে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহত শহিদুল ইসলামের ক্ষতবিক্ষত নিথর দেহ উদ্ধার করে সুরুতহাল রির্পোট তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মর্গে পাঠিয়েছেন পুলিশ। এই ঘটনায় পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তাসহ সরকারের বিভিন্ন সংস্থা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এদিকে গতকাল সন্ধ্যায় পুলিশের অপর একটি দল নিহত শহিদুল ইসলামের পিতা মোঃ ইসহাক মিয়া কর্তৃক রামু থানায় দায়েরকৃত সাধারন ডায়েরীতে সন্দেহভাজন হিসাবে অভিযুক্ত রেজিনা আক্তারকে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছেন।

আরোও জানা যায়, নিহত শহিদুল ইসলাম চলতি বছরের ১ জানুয়ারি বাইশারী ২ নং ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার মোক্তার আহাম্মদের মেয়ে শার্মিন আক্তার রুবির সাথে শরিয়ত মোতাবেক বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। বিয়ের পুর্বে নিহত শহিদুল ইসলামের সাথে আটক রেজিনা আক্তারের ভালোবাসার সম্পর্ক ছিল। রেজিনা আক্তারকে বিয়ে না করে শর্মিন আক্তার রুবিকে বিয়ে করাই ক্ষীপ্ত রেজিনা আক্তার শহিদুল ইসলামের উপর প্রকাশ্যে হত্যার হুমকিসহ কয়েক দফা হামলা চালিয়েছিল বলে অভিযোগ করেছেন নিহত শহিদুল ইসলামের পরিবার।

সর্বশেষ গত ১৭ এপ্রিল সকাল ১০ টায় ঈদগড় চরপাড়া হাজী মরহুম ফয়েজ আহাম্মদের বাড়ীর সামনে আটক রেজিনা আক্তার নিহত শহিদুল ইসলামকে আগামী ৪ দিনের মধ্যে দেখে নেওয়ার হুমকি দিয়ে চলে যায় এবং ঐ রাতেই নিহত শহিদুল ইসলাম নিখোঁজ হয়ে যায়।

নিহত শহিদুল ইসলামের পিতা মোঃ ইসহাক জানান, আমার সন্তান শহিদুল ইসলাম নিখোঁজ হওয়ার পর আমি রেজিনা আক্তারকে বিবাদী করে রামু থানায় সাধারন ডায়েরী লিপিবদ্ধ করি। তিনি জানান রশিদ আহাম্মদের মেয়ে রেজিনা আক্তার ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী দিয়ে আমার ছেলে কে হত্যা করেছে।আমি আমার সন্তানের সুষ্ঠ বিচার চাই।

ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেল সমিতির সভাপতি হামিদুল হক জানান নিহত শহিদুল ইসলাম অত্যন্ত নম্র এবং ভদ্র মানুষ। তার এমন মৃত্যু মেনে নেওয়া যায় না। তিনি হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করেন।