🕓 সংবাদ শিরোনাম

শ্রীলংকার বিপক্ষে ঢাকা টেস্ট থেকে ছিটকে গেলেন নাইমআরিফিন শুভ-তিশাকে শুভকামনা জানালেন নওয়াজুদ্দিনবিদ্যুৎ-গ্যাসের দাম বৃদ্ধির প্রস্তাব আত্মঘাতী: এফবিসিসিআইআড়াইহাজারে মজুরি বৃদ্ধিসহ দ্রব্যমূল্যের দাম নিয়ন্ত্রণের দাবিতে শ্রমিক বিক্ষোভজাপা কোন জোটে যাবে পরিস্থিতি বুঝে সিদ্ধান্ত: জিএম কাদেরআগামী মাসেই পদ্মা সেতুতে দাঁড়িয়ে মানুষ পূর্ণিমার চাঁদ দেখবে: কাদেরঝড়ের কবলে পড়ে বালুবাহী বাল্কহেড ডুবিসরকারি কর্মচারীদের ৬০ শতাংশ বেতন বৃদ্ধির দাবিচট্টগ্রামে পুলিশ ভ্যানে বাসের ধাক্কা, ১৫ পুলিশ সদস্য আহতগাজীপুরে অরক্ষিত ক্রসিংয়ে ট্রেন-পিকআপ ভ্যান সংঘর্ষে নিহত ৩

  • আজ শনিবার, ৭ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ ৷ ২১ মে, ২০২২ ৷

সতর্ক হোন, যেকোনো সময় করোনা বাড়তে পারে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

জাহিদ মালেক
❏ সোমবার, এপ্রিল ২৫, ২০২২ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা: যেকোনো সময় দেশে করোনার সংক্রমণ বাড়তে পারে। এজন্য সবাইকে মাস্ক ব্যবহারসহ সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

সোমবার (২৫ এপ্রিল) দুপুরে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ তথ্য জানান।

দেশ থেকে কি করোনা উঠে গেছে? মানুষ কিন্তু স্বাস্থ্যবিধি একেবারেই মানে না। এ বিষয়ে মন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তিনি বলেন, ‘আমাদের একটি অভিজ্ঞতা হয়েছে, আপনাদেরও হয়েছে। আমরা অনেকগুলো ঢেউ দেখেছি। প্রথম, দ্বিতীয়, তৃতীয় ঢেউ দেখেছি। চতুর্থ ঢেউ যে আসবে না, তা হলফ করে কেউ বলতে পারে না। আমরাও পারি না।’

‘দেয়ার ইজ অলওয়েজ এ পসিবিলিটিজ অব ফোর্থ ওয়েভ, হুইচ ইজ নাউ টেক ইন প্লেস ইন ইন্ডিয়া। কাজেই আমাদের সতর্ক অবস্থায় থাকতে হবে।’

জাহিদ মালেক বলেন, ‘আমাদের দেশে করোনায় মৃত্যুহার এখন শূন্যের কোটায়। সংক্রমণের হারও শূন্যের কোটায় চলে গেছে। এটা যদি ধরে রাখতে হয়, আমাদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। অর্থাৎ আমাদের মাস্ক পড়তে হবে, যতটুকু সম্ভব সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে।’

যারা এখনও করোনার টিকা নেননি তাদের টিকা নেওয়ার জন্য আহ্বান জানান মন্ত্রী।

সাধারণ জনগণের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আমরা আগামীতে বুষ্টার ডোজের ক্যাম্পেইন হাতে নিচ্ছি। বুষ্টার ডোজও আপনারা নিয়ে নেবেন। তাহলেই আমরা সুরক্ষিত থাকব। যেকোন সময় এটা (করোনা) বাড়তে পারে। সেজন্য আমাদের সবসময় সতর্ক থাকতে হবে।’

এসময় স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘টিকা দেওয়ায় সারা বিশ্বে বাংলাদেশ প্রশংসিত হয়েছে। টিআইবি একটি বিভ্রান্তিমূলক তথ্য প্রকাশ করেছে যা সঠিক নয়।’

জাহিদ মালেক বলেন, ‘দেশে টিকা কেন্দ্র ছিল স্থায়ী ৭৫০টি এবং অস্থায়ী ১ লাখ ৪০ হাজার অথচ টিআইবি ১০৫ টি টিকা কেন্দ্রের তথ্য দিয়ে প্রতিবেদন তৈরি করেছে। তাও টেলিফোনে তথ্য নিয়ে এই প্রতিবেদন তৈরি করেছে তারা। যা মোটেও সঠিক নয়।’

টিআইবি প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে ৪০ লাখ ষাটোর্ধ্ব মানুষ টিকা পায়নি, প্রতিবেদনটির এই তথ্য সঠিক নয় জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘কমিউনিটি ক্লিনিক থেকে শুরু করে বিভিন্ন বাড়ি বাড়ি গিয়েছে বিভিন্ন সময়ে কার্যক্রম পরিচালনা করেছে।’

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘করোনার ভ্যাকসিন দিতে গিয়ে ৪০ হাজার কোটি টাকা ব্যয় হয়েছে, এর মধ্যে সরকারের ব্যয় হয়েছে ২০ হাজার কোটি টাকা। সাড়ে ৯ কোটি ভ্যাকসিন বাংলাদেশ সরকার বিনামূল্যে পেয়েছে। এখন বাংলাদেশের অনেক টিকা মজুত আছে। এ সমস্ত টিকা বিশ্বের বিভিন্ন দেশে পাঠানো হচ্ছে যারা অটি কম পেয়েছে।’