শিশুকে অপহরণ করে গ্রেপ্তার

Mymensing news
❏ সোমবার, মে ৯, ২০২২ ময়মনসিংহ

কামরুজ্জামান মিন্টু, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট (ময়মনসিংহ): ময়মনসিংহের ভালুকায় মো. শিপন (৭) নামে এক শিশুকে অপহরণের দুইদিন পর উদ্ধার করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। এ ঘটনায় অপহরণকারী একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গ্রেপ্তার ব্যক্তির নাম বাবু মোল্লা (২৮)। তিনি নোয়াখালীর সোনাইমুড়ি উপজেলার মোল্লাপাড়া এলাকার মোস্তফা মোল্লার ছেলে। থাকতেন গাজীপুরের টঙ্গী এলাকায়। অপহৃত মো. শিপন ভালুকা উপজেলার তামাট গ্রামের রুবেল খার ছেলে।

ময়মনসিংহ নগরীর শম্ভুগঞ্জ এলাকা থেকে শনিবার রাত আড়াইটার দিকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এসময় তার হেফাজতে থাকা শিপন মিয়াকে উদ্ধার করা হয়।

রোববার (৮ মে) রাতে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের কার্যালয় থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

মামলার বরাত দিয়ে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সফিকুল ইসলাম সময়ের কন্ঠস্বরকে বলেন, সম্প্রতি রুবেল খার শ্যালক মিলন মিয়ার সঙ্গে ফেসবুকে পরিচয় হয় বাবু মোল্লার। এই পরিচয়ের সুবাদে বিভিন্ন সময় মিলন মিয়ার সঙ্গে বাবু মোল্লা মোবাইলে কথা বলতেন। এভাবে সম্পর্কের জেরে বাবু মোল্লা তাদের বাড়িতে বেড়াতে আসেন।

বেড়াতে এসে গত বৃহস্পতিবার বিকেলে তারা বাটাজোড় বাজারে যান। সেখানে গিয়ে মিলন মিয়াকে কলা আনার কথা বলে কৌশলে শিপনকে অপহরণ করে নিয়ে যান বাবু। পরে অনেক খোঁজাখুঁজি করেও শিপনকে পাওয়া যায়নি।

এমতাস্থায় ওই রাতে শিপন মিয়ার মায়ের কাছে ইমোতে ফোন করে এক লাখ টাকা দাবি করেন বাবু মোল্লা। টাকা বিকাশে না দিলে শিপনকে হত্যা করে মরদেহ লুকিয়ে ফেলার হুমকি দেন।

এই ঘটনায় শনিবার বিকেলে শিপনের বাবা রুবেল ভালুকা মডেল থানায় মামলা করেন। পরে মামলাটি জেলা গোয়েন্দা পুলিশের হাতে আসলে অভিযান চালিয়ে ওই রাতেই বাবু মোল্লাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ওসি বলেন, মুক্তিপণের টাকা চাওয়া ব্যবহৃত সেই মোবাইলটি উদ্ধার করা হয়েছে। বাবু মোল্লা আগে থেকে বিভিন্ন অপরাধের সঙ্গে জড়িত। তার বিরুদ্ধে হত্যাসহ একাধিক মামলা আছে।