🕓 সংবাদ শিরোনাম

প্রধানমন্ত্রীকে সাধুবাদ জানিয়েছে টিআইবিচাকরি গেল প্রতিমন্ত্রীর মেয়ের, ফেরত দিতে হবে বেতনওস্বর্ণ গায়েব করে চাকরি হারালেন এসপিখালেদা জিয়া ও বিএনপির জন্য পদ্মা সেতুর নিচে নৌকা রাখা হবে: শাজাহান খানশেখ হাসিনার চেয়ে বেশি উন্নয়ন করাও সম্ভব নয়: খাদ্যমন্ত্রীচট্টগ্রামে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় পুলিশসহ তিনজন নিহততরুনীদের প্রেমের ফাঁদে ফেলে সর্বস্ব লুটে নিতেন পুরুষ ছদ্মবেশী এই তরুণী!অচিরেই বিএনপিসহ সকল রাজনৈতিক দলকে আলোচনায় বসার আহবান জানানো হবে: সিইসিসঠিক তথ্য পেতে আইন শৃংখলা বাহিনীর সাথে কাজ করবে ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তরটিকটক ভিডিও বানাতে নদীতে ঝাঁপ দেবার ঘণ্টা দেড়েক বাদে উদ্ধার হল কিশোরের মৃতদেহ

  • আজ শনিবার, ৭ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ ৷ ২১ মে, ২০২২ ৷

টাঙ্গাইলে ইউপি সচিবের উপর হামলাকারীদের বিচার দাবি


❏ বৃহস্পতিবার, মে ১২, ২০২২ ঢাকা, দেশের খবর

তোফাজ্জল, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, টাঙ্গাইল: টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলার ফলদা ইউনিয়ন পরিষদের সচিব মো. সামাউন কবীরের উপর হামলাকারীদের বিচারের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ ইউনিয়ন পরিষদ সচিব সমিতি (বাপসা) জেলা শাখা।

এরই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার (১২ মে) দুপুরে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার বরাবর স্মারক লিপি প্রদান করা হয়।

জেলা প্রশাসক ড. মো. আতাউল গনির পক্ষে স্মারকলিপি গ্রহণ করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আমিনুল ইসলাম, পুলিশ সুপার সরকার মোহাস্মদ কায়সার।

স্মারকলিপি প্রদানকালে উপস্থিত ছিলেন জেলা বাপসার সভাপতি সোহরাব আলী, সাধারণ সম্পাদক লিয়াকত আলী খান, সিনিয়র সহ-সভাপতি সঞ্জয় কুমার সরকার, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোক্তার হোসেন প্রমুখ।

ভুক্তভোগী ইউপি সচিব সামাউন কবীর জানান, ফলদা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. সাইদুল ইসলাম তালুকদার দুদুর দুর্নীতিমূলক কাজে সহযোগিতা না করায় গত ২৬ এপ্রিল চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে তার বাহামভুক্ত সন্ত্রাসীরা শারিরীকভাবে লাঞ্চিত করেন। ২৭ এপ্রিল ভূঞাপুর থানায় অভিযোগ করার পর মামলা রুজু করতে গেলে থানার ওসি গ্রহণ করেননি। পরবর্তীতে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের সহযোগিতায় ১ মে মামলাটি রেকর্ড করা হয়। মামলায় ১০ জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। চেয়ারম্যান মামলাটি উত্তোলনের জন্য তাকে (সচিবকে) বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি ও হুমকি দেয়। মামলা তুলে না নেওয়ায় চেয়ারম্যান তার মামা শ্বশুড় খাজা নূর মোহাম্মদ আলীকে বাদি করে তার (সচিবের) বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দেয়।

আসামিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন তিনি।