🕓 সংবাদ শিরোনাম

আফ্রিকায় আইইডি বিস্ফোরণে ৩ বাংলাদেশি শান্তিরক্ষী নিহত * উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে গোলাগুলি: কিশোরীর মৃত্যু * পাবনায় দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাককে কাভার্ডভ্যানের ধাক্কা, নিহত ২ * হজে যাওয়ার ৬৫ বছরের বয়সসীমা থাকছে না: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী * মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে ‘ভুল’ বক্তব্যের প্রতিবাদে মানববন্ধন: আ.লীগ নেতার ভুল স্বীকার * কণ্ঠশিল্পী আসিফের ছেলের বিয়ে সম্পন্ন * সকল ধর্মের মানুষ মিলেই বাংলাদেশ: শিক্ষামন্ত্রী * পঞ্চগড়ে নৌকাডুবি: আট কারণ ও পাঁচ সুপারিশ উল্লেখ করে তদন্ত প্রতিবেদন জমা * রংপুরে পূজা দেখে ফেরার পথে গাড়িচাপায় ২ জনের মৃত্যু * মালয়েশিয়া যাওয়ার পথে ট্রলারডুবি: রোহিঙ্গাসহ ৩৪ জন উদ্ধার *

  • আজ মঙ্গলবার, ১৯ আশ্বিন, ১৪২৯ ৷ ৪ অক্টোবর, ২০২২ ৷

ফেনীতে ধর্ষণ মামলায় তিন আসামির মৃত্যুদন্ড

Feni news
❏ বৃহস্পতিবার, জুলাই ১৪, ২০২২ চট্টগ্রাম

আবদুল্যাহ রিয়েল,ফেনী প্রতিনিধি: ফেনীর সোনাগাজীতে ধর্ষণ মামলায় ৩ জনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে আদালত। রায়ে একজনকে খালাস দেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৪ জুলাই) দুপুরে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক ওসমান হায়দার এ রায় দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত তিন আসামি হলো ফেনীর সোনাগাজী উপজেলার নবাবপুর ইউনিয়নের নাজিরপুর গ্রামের আবুল কালামের ছেলে জাহাঙ্গীর আলম, ফকির আহম্মদের ছেলে আবুল কাশেম ও পাশের সুলতানপুর গ্রামের আবদুর রশিদের ছেলে মো. লাতু। তারা তিনজনই মামলা দায়েরের পর গ্রেফতার হয়। পরে জামিনে ছাড়া পেয়ে রায় ঘোষণার সময় পর্যন্ত পলাতক রয়েছেন।

একই মামলায় মো. ফারুক নামে অপর একজন আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় আদালত তাকে বেকসুর খালাস দেন। মামলার চারজন আসামির মধ্যে শুধুমাত্র খালাসপ্রাপ্ত আসামি ফারুক আদালতে উপস্থিত ছিলেন। মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত তিনজন যেকোনো সময় আদালতে আত্মসমর্পন করলে তখন থেকে রায়
কার্যকর করা হবে।

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী (এপিপি) ফরিদ আহমদ হাজারী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এজাহারের বরাতে ফরিদ আহমদ হাজারী জানান, নবাবপুর ইউনিয়ন থেকে ২০০৩ সালের ১৩ মে রাতে মা-মেয়েকে তুলে নিয়ে যান আবুল কাশেম, লাতু, জাহাঙ্গীর আলম ও মোহাম্মদ ফারুক। পরে মাকে বেঁধে রেখে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে মেয়েকে ধর্ষণ করেন দণ্ডিতরা। এ ঘটনায় মা বাদী হয়ে সোনাগাজী থানায় মামলা করেন। ৯ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য শেষে আদালত এই রায় দেয়। রায় ঘোষণার সময় আদালতে মোহাম্মদ ফারুক উপস্থিত ছিলেন। অন্য আসামিরা পলাতক রয়েছেন।