🕓 সংবাদ শিরোনাম

ইডেন ছাত্রলীগের সভাপতি-সম্পাদকের বিরুদ্ধে মামলা গ্রহণ করে তদন্তের নির্দেশ * ধর্ষণের ঘটনা আড়াল করতে কিশোরী হত্যা, এলাকাজুড়ে উত্তেজনা, আটক ২ * রাজধানীসহ ১০ বিভাগীয় শহরে গণসমাবেশ কর্মসূচির তারিখ ঘোষণা বিএনপির * একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধী খলিল সাভার থেকে গ্রেপ্তার * কন্যা দিবসে এক ঘণ্টার ব্যবধানে তিন সন্তানের জন্ম ,নাম পদ্মা-মেঘনা-যমুনা * পরকীয়া সন্দেহে স্ত্রীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা , পলাতক স্বামী * দালালদের নিয়ন্ত্রণে পাসপোর্ট অফিস, ‘বিশেষ সংকেত’ নিয়ে ভুক্তভোগীদের ক্ষোভ * মাঝপথে তরুণীকে বাইক থেকে নামিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে চালক আটক * কিশোর গ্যাংয়ের হামলায় মুমূর্ষু অবস্থায় হাসপাতালে এসএসসি পরীক্ষার্থী * প্রধানমন্ত্রী শুধু দেশের দূরদর্শী নেতা নন, সারা বিশ্বেও নন্দিত নেতা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী *

  • আজ বৃহস্পতিবার, ১৪ আশ্বিন, ১৪২৯ ৷ ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ৷

সালথার সেই উপজেলা চেয়ারম্যানের কারাবরণে আনন্দ মিছিল ও মিষ্টি বিতরণ

Faridpur news
❏ সোমবার, জুলাই ১৮, ২০২২ ঢাকা

হারুন-অর-রশীদ, ফরিদপুর প্রতিনিধি: বীর মুক্তিযোদ্ধা এলেম শেখের বাড়িতে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাটের মামলায় ফরিদপুরের সালথা উপজেলা চেয়ারম্যান ওদুদ মাতুব্বরের কারাবরণের ঘটনায় আনন্দ মিছিল ও মিষ্টি বিতরণ করা হয়েছে।

রবিবার (১৭ জুলাই) বিকেলে সালথা উপজেলা সদরের চৌধুরীপাড়া হতে এ উপলক্ষে একটি আনন্দ মিছিল বের করা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাব্বির হোসেন চৌধুরীর বাসভবনের সামনে হতে মিছিলটি বের হয়ে সালথা বাজার এলাকা প্রদক্ষিণ করে। মিছিল শেষে তারা মিষ্টি বিতরণ করেন।

আওয়ামী লীগ নেতা সাব্বির হোসেন চৌধুরী বলেন, আওয়ামী লীগের পদে না থেকেও উপজেলা চেয়ারম্যান ওদুদ মাতুব্বর সালথায় আওয়ামী লীগের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছিল। এরপর সে প্রতিটি এলাকায় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে গ্রুপিং সৃষ্টি করে চরম অরাজকতা চালাচ্ছিল। এখন তাকে কারাগারে প্রেরণ করায় সালথাবাসীর মনে স্বস্তি ফিরে এসেছে। তারা আনন্দ মিছিল বের করে মিষ্টি বিতরণ করেছে। তিনি ওদুদ মাতুব্বরের উপযুক্ত বিচার দাবি করেন।

জানা গেছে, গত ৯ জুলাই সালথা উপজেলার গট্টি ইউনিয়নের দিয়াপাড়া গ্রামে বীর মুক্তিযোদ্ধা এলেম শেখের বসতবাড়িতে হামলা, ভাঙচুর, লুটপাট এবং এলেম শেখ ও তার স্ত্রীকে আহত করার অভিযোগে ওই বীর মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী জয়গুন বেগম বাদী হয়ে সালথা থানায় ওদুদ মাতুব্বর সহ ৩৬ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন।

এরপর ১৩ জুলাই ফরিদপুরের অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের ৬ নং আমলী আদালতে হাজির হয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান ওদুদ মাতুব্বর সহ ১০ জন আসামি জামিন প্রার্থনা করেন। আদালত জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে তাদের জেলহাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

এদিকে গতকাল শনিবার (১৬ জুলাই) ও শুক্রবার (১৫ জুলাই) উপজেলা চেয়ারম্যান ওদুদ মাতুব্বরসহ তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে সংঘর্ষ ও চাঁদাবাজির অপরাধে আরো দুটি মামলা দায়ের করা হয় সালথা থানায়।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন