সোনারগাঁয়ে দুই কন্টেইনার বিদেশী মদ উদ্ধারের ঘটনায় তিন আসামী রিমান্ডে

Narayangonj news
❏ মঙ্গলবার, জুলাই ২৬, ২০২২ ঢাকা

সুমন আল হাসান,নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে বিপুল পরিমান বিদেশী মদ উদ্ধারের ঘটনায় থানায় দায়ের মামলায় গ্রেফতারকৃত সাইফুল ইসলাম ও নাজমুল মোল্লা নামের দুইজনকে ৩ দিন করে ও অপর আসামী আহাদকে ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে আদালত।

এর আগে র‌্যাবের করা মামলায় গ্রেফতার ৩ জনের বিরুদ্ধে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়। নারায়ণগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে শুনানী শেষে সোমবার বিকেলে এ আদেশ দেন বিজ্ঞ বিচারক সামসাদ বেগম।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নারায়ণগঞ্জ আদালত পুলিশের পরিদর্শক মো. আসাদুজ্জামান জানান, ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইন ও পেনাল কোডে ৪২৫ এর ৪ ধারায় র‌্যাব বাদি হয়ে ১১ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা দায়ের করেছে। ওই মামলায় গ্রেফতারকৃত তিন আসামিকে ১০ দিন করে রিমান্ডের আবেদন জানালে আদালত দুই আসামীর ৩ দিন করে এবং এক আসামির দুইদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে।

এর আগে বিপুল পরিমান বিদেশী মদ উদ্ধারের ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। রোববার রাতে সোনারগাঁ থানায় এ মামলা দায়ের করা হয়েছে। র‌্যাব-১১ এর উপ-পরিচালক মো. শাহাদাত হোসেন বাদি হয়ে শ্রীনগর উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা ও ঘোলঘর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আজিজুল ইসলাম ও তার দুই ছেলেসহ ১১ জনকে এ মামলায় আসামী করা হয়। সোমবার সকালে মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে সোনারগাঁ থানার ওসি মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান।

এ মামলায় অভিযুক্তরা হলেন আওয়ামীলীগ নেতা মো. আজিজুল ইসলাম (৫৭), তার ছেলে মিজানুর রহমান আশিক (২৪), আব্দুল আহাদ (২২), এছাড়াও আসামী করা হয় মো. নাজমুল মোল্লা (২৩), সাইফুল ইসলাম (৩৪), জাফর আহমেদ (৩৫), শামীম (৩২), রায়হান (৩৫), দুবাই প্রবাসী অজ্ঞাত (২৮), দিপু (২৮) এবং বাদশা (৩২)।

এদিকে এ ঘটনায় এর আগে তিনজনকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। গ্রেফতারকৃত তিনজন হলেন আবদুল আহাদ (২২) ও তাঁর দুই সহযোগী সাইফুল ইসলাম (৩৪) ও নাজমুল মোল্লা (২৩)।

গ্রেফতারকৃত আবদুল আহাদ মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের ধর্মবিষয়ক উপকমিটির সদস্য ও শ্রীনগর উপজেলার ষোলঘর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আজিজুল ইসলামে ছেলে।

এর আগে গত শুক্রবার ভোরে র‌্যাব-১১ এর নারায়ণগঞ্জের একটি আভিযানিক দল সোনারগাঁয়ের টিপুরদী এলাকার মহাসড়কের ওপর চেকপোস্ট বসিয়ে চট্টগ্রাম থেকে ঢাকাগামী দুটি কনটেইনার জব্দ করে। এ কনটেইনার দুটি থেকে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের ৩৬ হাজার ৮১৬ বোতল বিদেশী মদ উদ্ধার করা হয়। উদ্ধার করা মাদকের মূল্য ৩১ কোটি ৫৮ লাখ ৮০ হাজার টাকা। ভ্যাটসহ মূল্য দাঁড়ায় ৩৬ কোটি ৮৮ লাখ ৮০ হাজার টাকা।

র‌্যাব জানায়, এ চক্রটি দেশে টিভি ও গাড়ির পার্টস ব্যবসার আড়ালে অবৈধ মাদকদ্রব্য বিপণন নেটওয়ার্ক তৈরি করে। অবৈধ মাদক বিদেশ থেকে আনার পরে মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগর, রাজধানীর বংশাল ও ওয়ারীতে ওয়্যার হাউজে রাখতেন। আমদানি ব্যবসায়ের আড়ালে আজিজুল ইসলাম ও তার দুই ছেলে মিজানুর রহমান ও আবদুল আহাদ দীর্ঘদিন ধরে অবৈধভাবে সিঅ্যান্ডএফের মাধ্যমে বিদেশ থেকে মদ আমদানি করে বিক্রি করতেন। পরবর্তীতে সুবিধাজনক সময়ে এসব অবৈধ মাদক বিপণন করতেন। ক্ষেত্রবিশেষে ট্রাক ও কনটেইনার থেকে সরাসরি ক্রেতাদের কাছে সরবরাহ করা হতো।

সোনারগাঁ থানার ওসি মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান জানান, বিপুল পরিমান বিদেশী মদ উদ্ধারের ঘটনায় মামলা হয়েছে। ইতোমধ্যে তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।