• আজ মঙ্গলবার, ১৯ আশ্বিন, ১৪২৯ ৷ ৪ অক্টোবর, ২০২২ ৷

বঙ্গবন্ধু ভ্রাম্যমাণ রেল জাদুঘরে ব্যাপক সাড়া


❏ বুধবার, আগস্ট ৩, ২০২২ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক: মুজিব জন্মশত বর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে নতুন প্রজম্মের কাছে বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে জানান দিতে ব্যতিক্রমী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ভ্রাম্যমাণ রেল জাদুঘর দেশব্যাপী প্রদর্শণের আয়োজন করেছে বাংলাদেশ রেলওয়ে।

গোপালগঞ্জ রেল স্টেশনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ভ্রাম্যমাণ রেল জাদুঘর সোমবার থেকে প্রদর্শণের সূচনা করেন রেলমন্ত্রী মোঃ নুরুল ইসলাম সুজন এমপি। এরপর থেকে বিভিন্ন্ বয়সের নারী-পুরুষ গোপালগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনে ভিড় করছেন। তাদের পদচারণায় রেল স্টেশন মুখরিত হয়ে উঠেছে। আগামী ৫ আগস্ট পর্যন্ত এ প্রদর্শণী চলবে। এরপর রেলের পশ্চিমাঞ্চলের বিভিন্ন জায়গায় ভ্রাম্যমাণ রেল জাদুঘর প্রদর্শণ করা হবে।

গোপালগঞ্জ রেল স্টেশনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ভ্রাম্যমাণ রেল জাদুঘর প্রদর্শণের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা পল্লব কান্তি বিশ্বাস বলেন, উদ্বোধনের পর থেকেই এ জাদুঘর নিয়ে ব্যাপক সাড়া পড়েছে। প্রতিদিন সকাল ১০ টা থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত জাদুঘর খোলা থাকে। সকাল ১০ টা থেকে দুপুর ১ টা পর্যন্ত ভিড় থাকছে। বিভিন্ন বয়সের মানুষ এটি দেখতে আসছেন। তারপর বিকেল ৫ টা থেকে রাত ৯ পর্যন্ত মানুষ এটা দেখতে আসছেন।

এখানে ১৯২০ সাল থেকে ১৯৭৫ সাল পর্যন্ত ১২টি গ্যালারীর মাধ্যমে বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধ ও বাংলাদেশের ইতিহাস তুলে ধরা হয়েছে। প্রতিটি গ্যালারীতে ডিসপ্লের পাশাপাশি হেডফোনে তৎকানীন প্রেক্ষাপটের ধারা বর্ণনা দেয়া হচ্ছে। ভিডিও চিত্রের সাথে ধারা বর্ণনা শুনে নতুন প্রজন্ম এ সম্পর্কে জানতে পারছে।

জাদুঘরের শোপিচে টুঙ্গিপাড়া বঙ্গবন্ধুর আদি পৈতৃক বাড়ি, সমাধিসৌধ, জাতীয় স্মৃতিসৌধ, পাকিস্তান বাহিনীর আত্মসমর্পণ, বঙ্গবন্ধুর ব্যহৃত প্রতিকী চশমা, মুজিব কোট পাইপ, মুজিব নগর স্মৃতিসৌধ, জাতীয় শহীদ মিনার, কারাগারের রোচনামচা, বিজয়স্তম্ভ কমলাপুর ও মুজিব শতবর্ষের লোগো প্রদর্শণ করা হচ্ছে।

ওই কর্মকর্তা আরো বলেন, নতুন প্রজন্মের কাছে বঙ্গবন্ধুকে তুলে ধরতেই রেল ওয়ের অতিরিক্ত মহা পরিচালক মঞ্জুর উল আলম চৌধূরী এ পরিকল্পনা করেন। এছাড়া প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর কাছে জাদুঘর পৌঁছে দিতেই তিনি এ উদ্যোগ নেন। বঙ্গবন্ধুর জন্মস্থান গর্বিত গোপালগঞ্জ থেকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ভ্রাম্যমাণ রেল জাদুঘর যাত্রা শুরু করেছে।