🕓 সংবাদ শিরোনাম

গুগল সার্চেও বিশ্বের সেরা মানুষ প্রিয় নবী হযরত মোহাম্মদ (স.) * ধর্মের বিরুদ্ধে যায় এমন ঘটনা বড় করে দেখাবেন না: প্রধানমন্ত্রী * নৌকার টিকিট পেলেন সাজেদা চৌধুরীর ছোট ছেলে * ঢাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় বিদ্যুৎ এসেছে, স্বাভাবিক হবে দ্রুতই * আফ্রিকায় আইইডি বিস্ফোরণে ৩ বাংলাদেশি শান্তিরক্ষী নিহত * উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে গোলাগুলি: কিশোরীর মৃত্যু * পাবনায় দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাককে কাভার্ডভ্যানের ধাক্কা, নিহত ২ * হজে যাওয়ার ৬৫ বছরের বয়সসীমা থাকছে না: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী * মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে ‘ভুল’ বক্তব্যের প্রতিবাদে মানববন্ধন: আ.লীগ নেতার ভুল স্বীকার * কণ্ঠশিল্পী আসিফের ছেলের বিয়ে সম্পন্ন *

  • আজ মঙ্গলবার, ১৯ আশ্বিন, ১৪২৯ ৷ ৪ অক্টোবর, ২০২২ ৷

মেঘনা-হোমনা সড়কের সংস্কার না হওয়ায় দুর্ভোগে লক্ষাধিক মানুষ

Keranigonj news
❏ বৃহস্পতিবার, আগস্ট ৪, ২০২২ ঢাকা

মাসুম পারভেজ, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট:  কুমিল্লার মেঘনা উপজেলার মানিকারচর বাজার থেকে পারারবন সেতু পর্যন্ত ৭ কিলোমিটার (মেঘনা-হোমনা-কুমিল্লা) আঞ্চলিক সড়ক দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না করায় বিভিন্ন স্থানে অসংখ্য ছোট-বড় গর্ত সৃষ্টি হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে চলছে যানবাহন। সড়কে কাদাপানি থাকায় দুর্ভোগে চলাচল করছেন যাত্রী ও পথচারীরা।

স্থানীয় নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ ও জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সড়কটি মেঘনা-মানিকারচর-পাড়ারবন-হোমনা-কুমিল্লা সড়কের মানিকারচর বাজার থেকে পারারবন পর্যন্ত ৭ কিলোমিটার ও মানিকারচর বাজার থেকে আলিপুর ৫ কিলোমিটার রাস্তার বেহাল অবস্থা। দুটি উপজেলায় সহজে ও কম সময়ে যাতায়াত করার জন্য সড়কটি মানুষের কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। গর্ত আর খানাখন্দে ভরা সড়কটির নাজুক অবস্থা অন্তত কয়েক বছর ধরে। এছাড়াও মেঘনা উপজেলার ও পাশ্ববর্তী হোমনা, তিতাস, মুরাদনগর ও বাঞ্ছারামপুর উপজেলার কয়েক লক্ষ মানুষের চলাচলে মারাত্বকভাবে ব্যাহত হচ্ছেন বলে জানা গেছে।

মানিকারচর বাজারের ব্যবসায়ী জালাল উদ্দিন জানান, দীর্ঘদিন এই রাস্তাটি সংস্কার না হওয়ায় চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে স্থানীয়দের। রাস্তা এ বেহাল দশার কারণে মালামাল আনা নেওয়া করতে অতিরিক্ত ভাড়া গুনতে হচ্ছে। সিএনজিচালক সেলিম জানান, বৃষ্টির কারণে সড়কের কার্পেটিং নষ্ট হয়ে গর্তে পরিণত হয়েছে। সামান্য বৃষ্টির পানিতে ডোবা আকার ধারণ করে। চলাচলের সময় সিএনজির চাকা গর্তে ঢুকে চরম দুর্ভোগের শিকার হতে হয়।

রিক্সা চালক লতিফ মিয়া জানান, দীর্ঘদিন যাবত এই সড়কটি সংস্কার না হওয়ায় রাস্তাটি বিভিন্ন জায়গায় বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে, ঝুঁকি নিয়ে রিকশা চালাচ্ছি প্রায়ই দুর্ঘটনার স্বীকার হচ্ছি, সন্ধ্যার পর এ রাস্তা দিয়ে যানবাহন চলাচল অনেকটা বন্ধ হয়ে যায়।

অ্যাম্বুলেন্স চালক শাহাবুদ্দিন জানান, এই রাস্তাটি দিয়ে হোমনা-বাঞ্ছারামপুর-তিতাস উপজেলার রোগীদের ঢাকা নিয়ে যেতাম জরুরি প্রয়োজনে, রাস্তা খারাপ হওয়ার কারণে গৌরিপুর ঘুরে যেতে হয়, এতে করে সময় ও খরচ দুটোই বেড়েছে।

স্কুল শিক্ষক মোহম্মদ আলিম জানান, সড়কটি কার্পেটিং করা হয়েছিল। কিন্তু বর্ষার শুরু হওয়ার সাথে সাথে ওই স্থানে গর্তে পরিণত হয়। চরম ভোগান্তির মাধ্যমে আমাদের যাতায়াত করতে হয়। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে জরুরি ভিত্তিতে সড়কটি সংস্কারের জোর দাবি জানান তিনি।

রাধানগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মজিবুর রহমান বলেন, দীর্ঘদিন যাবত এই রাস্তার সংস্কার না হওয়াতে মানুষের দূর্ভোগের প্রতীক হয়ে উঠেছে। মানুষ চলাচল করতে পারছেনা ঠিকমতো, ঝুঁকি নিয়ে চলছে যান-বাহন।

উপজেলার প্রকৌশলী খন্দকার মাহমুদুল আশরাফ জানান, উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ এ সড়কের দরপত্র শীঘ্রই আহ্বান করা হবে। অচিরেই যাত্রীদের সমস্যা লাগব হবে।