🕓 সংবাদ শিরোনাম

রোববার পর্যন্ত ইরানে হিজাববিরোধী বিক্ষোভে নিহতের সংখ্যা ৯২ * নিজের মেয়েকে হত্যা করে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে যেভাবে নাটক সাজায় বাবা! * কান্নাকাটি করায় বিরক্ত হয়ে ৩৫ দিনের শিশু কন্যাকে পুকুরে ফেলে দেন মা ! * তৃতীয়বারের মতো প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন, দুজনকেই শ্রীঘরে নিলো পুলিশ * বন্দরে মিশুক চালক কায়েস’র লাশ উদ্ধারের ১২ ঘন্টার মধ্যে গ্রেপ্তার ৩ * মঙ্গলবার দেশে ফিরবেন প্রধানমন্ত্রী * ইবির পরিবহন নিয়ে যত অভিযোগ * ফরিদপুরে আলোচিত দুই হাজার কোটি টাকা পাচার মামলায় ছাত্রলীগ নেতা কারাগারে * এবার রাজশাহীতে চলন্ত বাসে ঢুকে গেলো বৈদ্যুতিক খুটি * চলতি সপ্তাহেই বাড়ছে বিদ্যুতের দাম *

  • আজ সোমবার, ১৮ আশ্বিন, ১৪২৯ ৷ ৩ অক্টোবর, ২০২২ ৷

কাবুলে বোমা হামলায় নিহত ৮, আহত-২২

International news
❏ সোমবার, আগস্ট ৮, ২০২২ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: শনিবার রাতে কাবুলের এক জনবহুল বাজার এলাকায় বোমা বিস্ফোরণে কম পক্ষে আট জন নিহত হয়েছেন, আহত ২২। হামলার দায় নিয়েছে ইসলামিক স্টেট (আইএস) জঙ্গি গোষ্ঠী।

শহরের পশ্চিমপ্রান্তে যেখানে এই হামলা হয়েছে, সেখানে মূলত শিয়াদের বসবাস। গত বছর অগস্টে তালিবান (যারা মূলত সুন্নি) আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখল করে আশ্বাস দিয়েছিল, দেশের শিয়া সম্প্রদায়ের মানুষের নিরাপত্তার দিকে তারা কড়া নজর রাখবে। কিন্তু গত এক বছরে বারবার হামলা হয়েছে শিয়াদের উপরে। এবং বেশির ভাগ হামলাই চালিয়েছে সুন্নি আইএস। গত শুক্রবারও এই এলাকার এক মসজিদে বোমা বিস্ফোরণে আট জন নিহত ও ১৮ জন জখম হয়েছিলেন।

সামনেই মহরম। এই সময়ে পরপর দু’দিন শিয়া-অধ্যুষিত এলাকায় এ ভাবে প্রাণঘাতী হামলায় সাধারণ মানুষের মৃত্যুর পরে নিরাপত্তা বজায় রাখার জন্য তালিবান প্রশাসনের দক্ষতা ও সদিচ্ছা নিয়েই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। কাবুলের শিয়া ধর্মগুরু সৈয়দ কাজ়ুম হোজাটের কথায়, ‘‘মহরমের আগে এলাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা কিছুটা জোরদার করা হয়েছে। কিন্তু দেখা যাচ্ছে, সেটাও যথেষ্ট নয়।’’

প্রত্যক্ষদর্শীদের বিবরণ অনুযায়ী, বিস্ফোরণের পরে অসংখ্য মানুষ রাস্তায় পড়ে আর্তনাদ করছিলেন। অনেক দেহাংশও ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে ছিল। এই হামলা কোনও আত্মঘাতী জঙ্গির কীর্তি কি না, তা এখনও জানা যায়নি।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক এক বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছে, ঘটনাস্থলে তদন্তকারীরা অফিসারেরা গিয়েছিলেন। সংখ্যালঘুদের উপরে এ ধরনের হামলা কী করে ঠেকানো যায়, তা নিয়ে প্রশাসনের শীর্ষ পর্যায়ে দফায় দফায় বৈঠক হচ্ছে। স্থানীয় হাসপাতালের চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, জখমদের মধ্যে অনেকের অবস্থাই গুরুতর। ফলে আশঙ্কা করা হচ্ছে, নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।