🕓 সংবাদ শিরোনাম

ইডেন ছাত্রলীগের সভাপতি-সম্পাদকের বিরুদ্ধে মামলা গ্রহণ করে তদন্তের নির্দেশ * ধর্ষণের ঘটনা আড়াল করতে কিশোরী হত্যা, এলাকাজুড়ে উত্তেজনা, আটক ২ * রাজধানীসহ ১০ বিভাগীয় শহরে গণসমাবেশ কর্মসূচির তারিখ ঘোষণা বিএনপির * একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধী খলিল সাভার থেকে গ্রেপ্তার * কন্যা দিবসে এক ঘণ্টার ব্যবধানে তিন সন্তানের জন্ম ,নাম পদ্মা-মেঘনা-যমুনা * পরকীয়া সন্দেহে স্ত্রীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা , পলাতক স্বামী * দালালদের নিয়ন্ত্রণে পাসপোর্ট অফিস, ‘বিশেষ সংকেত’ নিয়ে ভুক্তভোগীদের ক্ষোভ * মাঝপথে তরুণীকে বাইক থেকে নামিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে চালক আটক * কিশোর গ্যাংয়ের হামলায় মুমূর্ষু অবস্থায় হাসপাতালে এসএসসি পরীক্ষার্থী * প্রধানমন্ত্রী শুধু দেশের দূরদর্শী নেতা নন, সারা বিশ্বেও নন্দিত নেতা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী *

  • আজ বৃহস্পতিবার, ১৪ আশ্বিন, ১৪২৯ ৷ ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ৷

অছাত্র ও বিতর্কিতদের নিয়ে রামু উপজেলা আহ্বায়ক কমিটি!

Cox's Bazar news
❏ শুক্রবার, আগস্ট ১২, ২০২২ চট্টগ্রাম

শাহীন মাহমুদ রাসেল, কক্সবাজার: আওয়ামী লীগের ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন ছাত্রলীগের কক্সবাজারের সাংগঠনিক অবস্থা বেশ নাজুক। অনেকটা হযবরল হয়ে আছে এখানকার জেলা, উপজেলা, পৌর ও কলেজ কমিটিগুলো। এছাড়া জেলার দশটি উপজেলা কমিটি, চারটি পৌর ও পাঁচটি কলেজ কমিটির অধিকাংশই মেয়াদ উত্তীর্ণ। কোন কোন শাখায় আবার কমিটিই নেই।

আবার যেসব শাখার কমিটি রয়েছে সেসব কমিটির দায়িত্বপ্রাপ্ত সভাপতি ও সম্পাদকদের অনেকেরই গঠনতান্ত্রিক বয়স ছাপিয়ে গেছে। কেউ কেউ বিয়ে করে সংসারীও হয়েছেন, আবার অনেকেরই এখন ছাত্রত্বও নেই। কোন কোন কমিটি চলছে পাঁচ কিংবা আট বছর আগের গঠিত পুরোনো পরিষদ দিয়ে। বয়সের দিক থেকেও কেউ কেউ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাংসদের সভাপতি এবং সম্পাদকের চেয়ে জ্যেষ্ঠতম।

তবে সাংগঠনিক কাজের কোন অগ্রগতি না থাকলেও নানা বির্তকের জন্মদিয়ে রীতিমত সংবাদের শিরোনাম হয়েছেন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি/সম্পাদক। শুধু তাই নয়, ছাত্রনেতাদের অনেককেই দৌঁড়ঝাঁপ করতে দেখা যাচ্ছে বিভিন্ন সরকারি অফিসের ঠিকাদারী কাজ নিয়ে। তাদের ফুসরত নেই আওয়ামী লীগ নেতাদের ব্যক্তিগত কাজের চাপে।

যেন বিতর্ক পিছু ছাড়ছে না কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের। এবার উপজেলা পর্যায়ের কমিটি গঠন নিয়ে বিতর্কে জড়িয়েছেন তারা। অছাত্র, বিএনপি ঘরোয়ান ছেলেদের নিয়ে উপজেলা কমিটি গঠন হচ্ছে এমন অভিযোগ তুলেছেন জেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। একই সাথে দেড় বছরেও পূর্ণাঙ্গ কমিটি করতে না পারাকে চরম ব্যর্থতা বলেও মনে করেন তারা। এ অবস্থায় দলকে সুসংগঠিত ও শাক্তিশালী করতে গঠনতন্ত্র ধারা মতে পদক্ষেপ নেয়ার দাবি জানিয়েছেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

তবে দ্রুত সময়ে জেলা ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের পাশাপাশি বিভিন্ন অসমাপ্ত উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি গঠন করা হবে বলে জানিয়েছেন জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক।

জানা যায়, সংগঠনকে গতিশীল করার যে উদ্দেশ্য নিয়ে কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের কমিটি গঠন করা হয়েছিলো, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সে উদ্দেশ্যও আলোর মুখ দেখেনি। প্রায় ৬ বছর পর ২০২০ সালের ২ নভেম্বর এসএম সাদ্দাম হোসেনকে সভাপতি মারুফ আদনানকে সাধারণ সম্পাদক করে ১৪ সদস্যের জেলা কমিটি অনুমোদন দেয় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। ঐদিন কমিটিকে অবাঞ্চিত করে কক্সবাজার সড়ক অবরোধ করেন বঞ্চিতরা। এ সময় ঘোষিত কমিটির সহ-সভাপতি পদ থেকে পদত্যাগ করে নিজের ফেইসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে বঞ্চিতদের পক্ষে অবস্থান নেন মঈন উদ্দিন। যদিও পরবর্তীতে পরিস্থিতি নিজেদের অনুকূলে নেয় সভাপতি সাদ্দাম হোসেন এবং সাধারণ সম্পাদক মারুফ আদনান। কিন্তু কমিটি গঠনের দেড় বছর অতিক্রম করলেও পূর্ণাঙ্গ জেলা কমিটি। উল্টো যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন এবং সাংগঠনিক সম্পাদক ওয়াসিফ কবির বিয়ে করেছেন। ২০২২ সালের ৩১ জুলাই এক সাথে তিন উপজেলার কমিটি গঠন নিয়ে আবারো সমালোচনায় এসেছেন জেলা ছাত্রলীগ। এছাড়া জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দামের বিরুদ্ধে রয়েছে পাহাড় কাটা, বিএনপি পরিবারের সন্তানদের আওয়ামী রাজনীতিতে পুর্নবাসন এবং হঠাৎ আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ হওয়ার অভিযোগ উঠেছে। সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে সিএনজি স্টেশন থেকে চাঁদাবাজি, মাইক্রোবাস লাইন দখলসহ বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে সভাপতি সাধারণ সম্পাদকসহ কমিটির সিংহভাগ নেতাই এখন ব্যবসায় জড়িয়ে পড়েছেন। ফলে সংগঠনকে সুসংগঠিত করার সময় বের করতে পারছেন না তারা। এছাড়া সদ্য ঘোষিত রামু উপজেলা কমিটি নিয়ে জড়িয়ে পড়েছেন বিতর্কে।

৩১ জুলাই ঘোষিত রামু উপজেলা ছাত্রলীগের ২০ সদস্যের কমিটিতে আহ্বায়ক করা হয়েছে তসলিম উদ্দিন সোহেল প্রকাশ মাইকেলকে। অভিযোগ উঠেছে, সোহেল মাধ্যমিকের গন্ডিও পেরোতে পারেনি। ৭/৮ বছর ধরে রামু ফকিরা বাজারের মাছ বাজারের ইজারা নিয়ে ব্যবসা পরিচালনা করছেন তিনি। নিজস্ব বলয় তৈরি করতে সভাপতি সাদ্দাম আহবায়ক করেছেন সোহলেকে। রয়েছে এনজিও কর্মকর্তা, মামলার আসামী এবং বিএনপি পরিবারের সন্তান। এ নিয়ে চলছে নানা সমালোচনা।

অথচ ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্রের ৫-এর-গ-এ ধারায় বলা আছে, কোনো নিয়মিত শিক্ষার্থী (৫-এর-ক উপধারা অনুযায়ী) ছাত্রলীগের কর্মকর্তা ও কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য হতে পারে। বিবাহিত, ব্যবসায়ী ও চাকরিতে নিয়োজিত ছাত্র-ছাত্রী ছাত্রলীগের কর্মকর্তা হতে পারবে না। এছাড়া ৫-এর ক উপ ধারায় আছে, চলতি কার্যকালের মধ্যে কারো ছাত্রজীবন ব্যত্যয় দেখা দিলে নির্বাহী সংসদ তার সদস্যপদ বাতিল বা মেয়াদ পর্যন্ত বহাল রাখতে পারে। এরপরও রামু উপজেলা ছাত্রলীগের আংশিক কমিটিতে স্থান পেয়েছেন অছাত্র ও চাকুরীজীবীরা। যে কারণে বিষয়টি নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।গঠনতন্ত্র লঙ্ঘন করে কমিটিতে স্থান দেওয়ায় সমালোচনার ঝড় বইছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে।

অবশ্য রামু উপজেলা ছাত্রলীগের নবগঠিত কমিটির সদস্যদের দাবি, এক যুগ ধরে রামুতে ছাত্রলীগের কমিটি হচ্ছিল না। এতে নেতৃত্ব সংকট দেখা দিয়েছে। এ ছাড়া আমরা যারা ছাত্রলীগ করে আসছি তাদের কর্মী ছাড়া আর কোনো পরিচয় ছিল না। এই কমিটি ঘোষণার মধ্য দিয়ে কিছু নেতাকর্মী অন্তত পরিচয় বহন করতে পারবেন।

নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক কয়েকজন ছাত্রলীগ নেতা ও পদবঞ্চিত ছাত্রের অভিযোগ, মাইম্যান তৈরী করতে অবৈধভাবে বিতর্কিত ও অযোগ্যদের পদ দিয়েছেন সাদ্দাম-মারুফ। এভাবে সংগঠন চলে না। এ ছাড়া জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি/সম্পাদকের বিরুদ্ধে ‘কমিটি বাণিজ্যের’ অভিযোগ জানিয়েছেন তারা।

এ বিষয়ে কথা বলার জন্য নবগঠিত রামু উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক তসলিম উদ্দিন সোহেলের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তিনি কল ধরেননি।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে রামু উপজেলা ছাত্রলীগের এক নেতা বলেন, ‘আহ্বায়ক সোহেল মাছ বাজারের ইজারাদার। রামু খিজারী স্কুল থেকে ৮ম শ্রেণী পর্যন্ত পড়ে আর পড়ালেখা করেন নি। তাহলে তিনি এই কমিটির আহ্বায়ক কিভাবে হয়? সেই প্রশ্ন থেকে গেল।’

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ছাত্রলীগের সাবেক একাধিক নেতা বলেন, ‘যাদের কমিটিতে স্থান দেওয়া হয়েছে তাদের অধিকাংশই জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি সাদ্দাম হোসাইনের ঘনিষ্ঠজন এবং নিজের ইউনিয়নের সন্তান। মাইম্যান বানাতে তিনি কোন কিছু যাচাই বাছাই করেন নি।

জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মারুফ আদনানের মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তিনি ফোন ধরেননি।

তবে সাংবাদিকরা নেগেটিভ প্রচারণা করার জন্য সাংবাদিকতায় আসছেন বলে দাবী করে সভাপতি এসএম সাদ্দাম হোসাইন বলেন,‘তসলিম উদ্দিন সোহেলের ছাত্রত্ব না থাকার বিষয়টি আপনার জানা থাকলে যা মন চাই তা লিখেন।’

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন