🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ বুধবার, ২০ আশ্বিন, ১৪২৯ ৷ ৫ অক্টোবর, ২০২২ ৷

বাবার জন্য পরহেজগার ডিভোর্সি বা বিধবা পাত্রী চেয়ে ফেসবুকে ছেলের স্ট্যাটাস!


❏ সোমবার, আগস্ট ১৫, ২০২২ রাজশাহী

নওগাঁ প্রতিনিধি: ”আমার শিক্ষক বাবার জন্য একজন পাত্রী ও আমার জন্য একজন মা চাই”  এভাবেই বাবার একাকিত্ব দূর করতে পাত্রী খুঁজছেন ছেলে। এ নিয়ে নিজের ফেসবুক ওয়ালে স্ট্যাটাস দিয়েছেন মনিরুল ইসলাম (৩২) নামের এক যুবক।

স্ট্যাটাসে বাবার একটি ছবিও যুক্ত করেছেন তিনি। সেই সঙ্গে কেন এমন সিদ্ধান্ত নিতে চলেছেন, সে কথাও সেখানে তিনি উল্লেখ করেছেন।

আজ সোমবার দুপুরে নওগাঁর সাপাহার উপজেলার বাসিন্দা মনিরুল ইসলাম তাঁর নিজস্ব ফেসবুক ওয়ালে বাবার একটি ছবি দিয়ে এই স্ট্যাটাস দেন। মনিরুল ইসলাম উপজেলা সদরের মাস্টারপাড়া এলাকার বাসিন্দা। তিনি একটি দৈনিক পত্রিকার সাপাহার উপজেলা সংবাদদাতা হিসেবে কাজ করছেন বলেও স্ট্যাটাসে উল্লেখ করেন।

মনিরুল ইসলামের বাবার নাম হযরত আলী (৫০)। হযরত আলী বর্তমানে উপজেলার ইসলামপুর দাখিল মাদ্রাসায় সহকারী মৌলভি হিসেবে কর্মরত আছেন।

ফেসবুক স্ট্যাটাসে মনিরুল ইসলাম উল্লেখ করেন, ‘আমার মা ২০২১ সালের ২৭ নভেম্বর স্ট্রোক করে মৃত্যুবরণ করেন। সেই থেকে আমার বাবা একাকিত্বে জীবন যাপন করছেন। তিনি হাই প্রেশারের রোগী। বয়স ৪৮ বছর। আমরা বর্তমানে সাপাহার উপজেলার মাস্টারপাড়া এলাকায় বসবাস করি। আমার বাবা ইসলামপুর দাখিল মাদ্রাসার সহকারী মৌলভি হিসেবে কর্মরত আছেন। আর হয়তো ২ থেকে ৩ বছরের মধ্যে রিটায়ার্ড করবেন। এমতাবস্থায় তার সেবা-যত্ন করার জন্য অবশ্যই একজন কাছের মানুষের দরকার।’

তিনি আরও লিখেছেন, ‘সে জন্য আমি আমার বাবার জন্য পাত্রী খুঁজছি। আর্থিক অবস্থা না থাকলেও চলবে। পরহেজগার ডিভোর্সি বা বিধবা হলে বেশি ভালো হয়। বয়স ৩৮ বা ৪০ বছর হলে ভালো হয়। যাতে করে ওনার সেবাসহ সাংসারিক কাজ কর্মে সহযোগিতা করতে পারেন। যদি এ রকম কোনো মেয়ে আপনাদের খোঁজে থাকে বা কোনো মা আমার বাবার দায়িত্ব নিতে চান তাহলে যোগাযোগ করুন।’

এ বিষয়ে মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘ছেলে হিসেবে এটি আমার দায়িত্ব। মা মারা যাওয়ার পর থেকে বাবা একাকিত্ব অনুভব করেন। একা জীবনযাপন করছেন। ব্যস্ততার কারণে হোক আর ছেলে মানুষ হিসেবে বাবার হয়তো আমরা ঠিকমতো সব ধরনের সেবা যত্ন করতে পারি না। এ জন্য বাবার সঙ্গে কথা বলে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

মনিরুল আরও বলেন, ‘সেই জায়গা থেকে ফেসবুকই প্রচারণার উপযুক্ত প্ল্যাটফর্ম বলে মনে করছি। এ জন্য ফেসবুকে বাবার জন্য পাত্রী চেয়ে স্ট্যাটাস দিয়েছি। বাকি জীবনটুকু বাবা যেন ভালো থাকে সেটাই চাই। এ মাধ্যম থেকে ভালো কিছু প্রত্যাশা করছি।’