🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ মঙ্গলবার, ১২ আশ্বিন, ১৪২৯ ৷ ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ৷

চাঁদাবাজির অভিযোগে আটকের পর গণপিটুনির শিকার পুলিশ কনস্টেবল


❏ মঙ্গলবার, আগস্ট ১৬, ২০২২ Uncategorized, দেশের খবর, রাজশাহী

রাজশাহী প্রতিনিধি: রাজশাহীতে চাঁদাবাজির অভিযোগে আটকের পর গণপিটুনির শিকার হয়েছেন এক পুলিশ কনস্টেবল।

গতকাল সোমবার রাত ১০টার দিকে নগরীর ১১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলরের কার্যালয়ের সামনে এ ঘটনা ঘটে। পরে খবর দেওয়া হলে নগরীর বোয়ালিয়া থানা–পুলিশ ওই কনস্টেবলকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে, গণপিটুনির শিকার কনস্টেবলের নাম মিজানুর রহমান (৩৫)। তিনি রাজশাহীর এয়ারপোর্ট থানার বায়া পুলিশ ফাঁড়িতে কর্মরত। তবে তিনি বোয়ালিয়া থানা এলাকায় এসে মামলার ভয় দেখিয়ে চাঁদাবাজি করছিলেন বলে অভিযোগ উঠেছে। পুলিশ ঘটনার সত্যতা পেয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, গত রোববার হেতেম খাঁ সবজিপাড়া এলাকার এক ছাত্রকে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসিয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ছয় হাজার টাকা নিয়ে যান কনস্টেবল মিজানুর। সোমবার তিনি আরও ১০ হাজার টাকা নিতে যান। এ সময় স্থানীয়রা তাঁকে ধরে আটকে রাখেন। দেওয়া হয় গণপিটুনিও। পরে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর রবিউল ইসলাম তজু ওই কনস্টেবলকে নিজের কার্যালয়ে রেখে থানায় খবর দেন। এরপর পুলিশ তাঁকে থানায় নিয়ে যায়।

বিষয়টি নিয়ে জানতে চাইলে ওয়ার্ড কাউন্সিলর রবিউল ইসলাম তজু বলেন, ‘ব্যাপারটা খুবই বাজে। আমি এ বিষয়ে ফোনে কিছু বলব না। আপনারা থানায় খোঁজ নেন, তাহলেই জানতে পারবেন।’

এ বিষয়ে বোয়ালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাজহারুল ইসলাম বলেন, কনস্টেবল মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ উঠেছে তার প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া গেছে। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। তাঁকে পুলিশ ফাঁড়িতে না পাঠিয়ে রাতেই পুলিশ লাইনসে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা নিচ্ছে।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন