এবার সালথা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান কারাগারে

Faridpur news
❏ বুধবার, আগস্ট ১৭, ২০২২ ঢাকা

হারুন-অর-রশীদ, ফরিদপুর: মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে হামলা ও ভাংচুরের মামলায় সালথা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ওয়াদুদ মাতুব্বরকে কারাগারে পাঠায় আদালত। তিনি এখনও কারাগারে রয়েছেন।

এঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই এবার সালথার আলোচিত সহিংস তান্ডবের মামলায় ফরিদপুরের সালথা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো. আসাদুজ্জামান মাতুব্বরকে (৪৫) কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত।

বুধবার (১৭ আগস্ট) সকাল সাড়ে ১১ টার দিকে ফরিদপুরের অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টের ৬নং আমলি আদালতের বিচারক তরুণ বাছাড় এ আদেশ দেন।

আসামিপক্ষের আইনজীবী এ্যাডভোকেট ইব্রাহিম হোসেন দুপুরের দিকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ফরিদপুরের অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টের ৬নং আমলি আদালতে আসামি মো. আসাদুজ্জামান মাতুব্বর হাজির হয়ে জামিন আবেদন করেন। এ সময় উক্ত আদালতের বিচারক তরুণ বাছাড় তাদের জামিন নামঞ্জুর করে সালথা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো. আসাদুজ্জামানকে কারাগারে প্রেরণের আদেশ দেন।

এব্যাপারে ফরিদপুরের ছয় নম্বর আমলি আদালতে পুলিশের জিআরও শ্যামল মিত্র বলেন, “গত বছরের ৫ এপ্রিল সালথার সহিংস তান্ডবের ঘটনায় করা ৩২/২১-এর মামলার এজাহারভুক্ত আসামি মো. আসাদুজ্জামান। এ মামলায় সে আইনজীবীর মাধ্যমে আজ কোর্টে জামিন আবেদন করেন। জামিন শুনানি শেষে বিচারক তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছে।”

প্রসঙ্গ, গত ২০২১ সা‌লের ০৫ এপ্রিল সালথায় করোনা মোকাবিলায় কঠোর বিধিনিষেধ কার্যকর‌কে কেন্দ্র ক‌রে সন্ধ্যায় সহিংসতায় উপজেলা পরিষদ, থানা, সহকারী কমিশনারের (ভূমি) কার্যালয়, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) বাসভবন, উপজেলা কৃষি অফিস, সাব-রেজিস্ট্রি অফিস, উপজেলা চেয়ারম্যানের বাসভবন ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করা হয়।

এ ঘটনায় পু‌লিশ সালথা উপ‌জেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো. আসাদুজ্জামানসহ ৪৮৮ জনকে অভিযুক্ত ক‌রে ফরিদপুরের আদালতে চার্জশিট (অভিযোগপত্র) দাখিল করে। এ মামলায় দীর্ঘদিন সে পলাতক থাকার পর বুধবার (১৭ আগস্ট) ফরিদপুরের অতিরিক্ত চীপ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করে। পরে আদালত শুনানি শেষে জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।