আসিফ-ফরিদ দুই জনকেই শাস্তি দিল আইসিসি


❏ শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ৯, ২০২২ খেলা

ক্রীড়া ডেস্ক : এশিয়া কাপে সুপার ফোরের পাকিস্তান-আফগানিস্তান ম্যাচ চলাকালীন মাঠে তর্কে জড়িয়েছিলেন পাকিস্তানি ব্যাটার আসিফ আলি ও আফগান বোলার ফরিদ আলি। দু’জনই মাঠে বাজে শারীরিক ভাষা প্রদর্শন করেছেন। এর জেরে আসিফ আলি ও ফরিদ আহমদের ম্যাচ ফির ২৫ শতাংশ জরিমানা করেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। এক বিবৃতিতে এই তথ্য নিশ্চিত করেছে ক্রিকেট সংস্থাটি।

সুপার ফোরের ম্যাচে দুই দলের মধ্যে মাঠে ও মাঠের বাইরে সব জায়গায় উত্তাপটা ছড়িয়ে পড়েছে। ম্যাচের শেষ দিকে পাকিস্তানি ব্যাটার আসিফ আলী ও আফগানিস্তান পেসার ফরিদ আহমেদের মধ্যে ধাক্কাধাক্কি দিয়ে উত্তাপটা শুরু, যার রেশ ছড়িয়ে পড়েছে পুরো স্টেডিয়ামে। সবকিছু মিলিয়ে আইসিসির কাছে লিখিত অভিযোগ করার কথা জানিয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড।

আইসিসি লিখিত অভিযোগ পাওয়ার আগে অবশ্য মাঠে ঘটে যাওয়া দুই ক্রিকেটারকে শাস্তি দিয়েছে। অবশ্য আসিফ ও ফরিদকে খুব বড় ধরনের শাস্তি পেতে হয়নি। লেভেল ওয়ানের অপরাধের দায়ে ম্যাচ ফির ২৫ শতাংশ জরিমানা করেছে। ম্যাচ রেফারি অ্যান্ডি পাইক্রফটের সাজা দুই ক্রিকেটারই মেনে নিয়েছেন।

এশিয়া কাপে গত বুধবার সুপার ফোরে মুখোমুখি হয়েছিল পাকিস্তান-আফগানিস্তান। শেষ ওভারে বোলার নাসিম শাহ প্রথম দুই বলে দুই ছক্কা হাঁকিয়ে সেই ম্যাচে পাকিস্তানকে ১ উইকেটের জয় এনে দেন। এমন রোমাঞ্চকর জয়ের আগে অবশ্য ১৯তম ওভারে ধাক্কাধাক্কিতে জড়িয়ে পড়েন আসিফ ও ফরিদ।

আসিফ যখন জয় ছিনিয়ে নিচ্ছিলেন, তখনই ফরিদ বাউন্সারে আউট করেন আসিফকে। এরপর হাওয়ায় ঘুষি মেরে উদ্‌যাপন শুরু করেন পাকিস্তানি ব্যাটারের কাছাকাছি এসে। এটা দেখে আসিফ ক্ষুব্ধ হয়ে ধাক্কা মারেন ফরিদকে। পরে তাঁকেও ধাক্কা মারেন ফরিদ। এ সময় আফগানিস্তানি বোলার বাড়তি কিছু বললে আসিফ তাঁকে ব্যাট দিয়ে মারতে উদ্যত হন। মার অবশ্য দিতে পারেননি, ততক্ষণে আম্পায়ার ও দুই দলের ক্রিকেটাররা এসে থামিয়ে দেন দুজনকে।

আইসিসির বিবৃতিতে বলা হয়েছে, খেলোয়াড় আচরণবিধির ২.৬ ধারাটি ভঙ্গ করেছেন আসিফ। ধারাটি হচ্ছে, আন্তর্জাতিক ম্যাচের সময় অশ্লীল, আক্রমণাত্মক অথবা অপমানজনক অঙ্গভঙ্গি সম্পর্কিত। আর ফরিদকে অভিযুক্ত করা হয়েছে ২.১. ১২ ধারায়। এই ধারা হচ্ছে, ম্যাচের সময় খেলোয়াড়, আম্পায়ার, ম্যাচ রেফারি বা দর্শকসহ অন্য যেকোনো ব্যক্তির সঙ্গে অনুচিত শারীরিক সংযোগ সম্পর্কিত।