স্কুলশিক্ষিকার গোসলের ভিডিও ধারণ করে কু-প্রস্তাব ও চাঁদা দাবি, গ্রেপ্তার ৩ বন্ধু


❏ সোমবার, সেপ্টেম্বর ১২, ২০২২ ঢাকা, দেশের খবর

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি: মানিকগঞ্জের সাটুরিয়ায় স্কুলশিক্ষিকার গোসলের দৃশ্য মোবাইলে ধারণের পর প্রচারের ভয় দেখিয়ে চাঁদার দাবি ও কু-প্রস্তাব দেওয়ায় তিন বন্ধুকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল রোববার দিবাগত রাতে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন-বালিয়াটি ইউনিয়নের ভাটারা গ্রামের নাজমুল হোসেন, রমজান আলী ও ইসমাইল মো. সাইফুল ইসলাম।

ভুক্তভোগী স্কুলশিক্ষিকা বলেন, ‘গত ২২ আগস্ট স্কুল শেষ করে নিজ বাড়িতে গোসলখানায় ঢুকে গোসল করছিলাম। এ সময় গোসলখানার টিনের ছিদ্র দিয়ে নাজমুল হোসেন আমার গোসলের দৃশ্য মোবাইলে ধারণ করেন। পরে ওই ভিডিও নাজমুল তাঁর বন্ধু সাইফুল ইসলাম ও রমজান আলীর মোবাইলে পাঠিয়ে দেন।

ঘটনার পর সাইফুল ও রমজান ভিডিওটি আমার মোবাইলে পাঠিয়ে দিয়ে চাঁদা দাবি করেন। চাঁদা না দিলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেন। একই সঙ্গে তাঁরা আমাকে কুপ্রস্তাব দিতে থাকেন।’

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘ওই বখাটে তিন যুবকের মধ্যে দুজনের মোবাইল জব্দ করা হয়েছে। মোবাইল থেকে বেশ কিছু মেয়ের নগ্ন ছবি পাওয়া গেছে। তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করলে ওই সব মেয়ের সঙ্গে একই প্রতারণা করেছেন বলে স্বীকারোক্তি দিয়েছেন তাঁরা।’

সাটুরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুকুমার বিশ্বাস বলেন, ভুক্তভোগী ওই স্কুলশিক্ষিকার লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে ভাটারা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ৩ বন্ধুকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ বিষয়ে ওই স্কুলশিক্ষিকা বাদী হয়ে থানায় পর্নোগ্রাফি মামলা দায়ের করেছেন। পরে আসামিদের জেলহাজতে পাঠানো হয়।