• আজ বুধবার, ২০ আশ্বিন, ১৪২৯ ৷ ৫ অক্টোবর, ২০২২ ৷

সনাতন ধর্মালম্বী স্কুলছাত্রী ধর্ষণে অভিযুক্ত মাদরাসা শিক্ষককে গ্রেপ্তারের দাবি


❏ সোমবার, সেপ্টেম্বর ১২, ২০২২ ঢাকা, দেশের খবর

টাঙ্গাইল : টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে সপ্তম শ্রেণিতে পড়ুয়া এক ছাত্রীকে অপহরণ ও ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি মাদরাসা শিক্ষক আবু সামাকে দ্রুত গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়েছে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ। এক মানববন্ধনে আসামির দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করে তারা।

আজ সোমবার দুপুরে ভূঞাপুর থানা মোড় চত্বরে এই মানববন্ধন করা হয়।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, সনাতন ধর্মের স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ ও নির্যাতনের ঘটনার কয়েক দিন পেরিয়ে গেলেও প্রধান আসামি আবু সামাকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

স্থানীয় প্রভাবশালী মহল এ ঘটনাকে ধামাচাপা দিতে আপস-মীমাংসার চেষ্টা করছে। এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার না হলে কঠোর কর্মসূচির হুঁশিয়ারি দেন তারা।

এ সময় বক্তব্য দেন উপজেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি স্মরণ দত্ত, সাধারণ সম্পাদক রবীন্দ্রনাথ, উপজেলা সুশাসনের জন্য নাগরিকের সাধারণ সম্পাদক সন্তোষ কুমার দত্ত, উপজেলা শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উৎসব উদযাপন পরিষদের সদস্য সচিব অভিজিৎ ঘোষ প্রমুখ।

স্কুলছাত্রীর বাবা বলেন, ‘এখন আমার মেয়েটির কী হবে? সমাজে আমরা মুখ দেখাব কী করে? এ ঘটনার যথাযথ বিচার চাই। আমরা ভয়ে আছি। ’

ভূঞাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফরিদুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় থানায় শিক্ষকসহ দুজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে। ডাক্তারি পরীক্ষা ও জবানবন্দি নেওয়া হয়েছে। মামলার মূল আসামিকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। মীমাংসার চেষ্টা হয়েছে কি না এমন প্রশ্নে ওসি বলেন, ‘বিষয়টি আমার জানা নেই। ’

উপজেলার ধুবলিয়া এলাকায় ওই কিশোরীকে অপরহরণ ও ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে আবু সামার বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ৮ সেপ্টেম্বর রাতে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন স্কুলছাত্রীর বাবা। পরদিন সকালে আবু সামার বড় ভাই আব্দুর রাজ্জাক ওরফে মোতালেবকে আটক করে পুলিশ।

এ ঘটনায় ওই ছাত্রী ২২ ধারায় টাঙ্গাইল বিজ্ঞ ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে জবানবন্দি দিয়েছে।