🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ রবিবার, ১৭ আশ্বিন, ১৪২৯ ৷ ২ অক্টোবর, ২০২২ ৷

প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে মেয়েকে হত্যা, মা-বাবা কারাগারে

Sherpur news
❏ বুধবার, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২২ ময়মনসিংহ

মিজানুর রহমান, শেরপুর জেলা প্রতিনিধি: জমিসংক্রান্ত বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে গিয়ে দুই বছরের মেয়েসন্তানকে শ্বাসরোধে হত্যার পর লাশ কূপে ফেলে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে ময়মনসিংহের হালুয়াঘাটে ৷ এ ঘটনায় করা মামলায় নিহত শিশুটির মা-বাবাকে গ্রেপ্তার করে বুধবার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

অভিযুক্ত দুজন হলেন উপজেলার পূর্বঘিলাভূই গ্রামের মো. বাদশা মিয়া ও তাঁর স্ত্রী আম্বিয়া খাতুন। তাঁদের নিহত সন্তানের নাম আয়েশা খাতুন (২)। এ ঘটনায় আয়েশার দাদি বাদী হয়ে মঙ্গলবার রাতে হালুয়াঘাট থানায় হত্যা মামলা করেন।

পুলিশ ও মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, পূর্ব ঘিলাভূই গ্রামে শ্বশুরবাড়ি এলাকায় স্ত্রী আম্বিয়া খাতুন ও দুই বছরের কন্যা আয়েশা খাতুনকে নিয়ে বসবাস করে আসছিলেন বাদশা মিয়া। আম্বিয়ার সঙ্গে জমিজমা নিয়ে তাঁর ভাইদের সঙ্গে বিরোধ চলে আসছিল। সেই বিরোধের জেরে তাঁদের ফাঁসাতে স্বামী-স্ত্রী মিলে আয়েশাকে হত্যার পরিকল্পনা করেন। গত সোমবার রাতে ঘুমন্ত অবস্থায় আয়েশাকে বালিশচাপা দিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করেন বাদশা ও আম্বিয়া দম্পতি। পরে রাতেই প্রতিবেশীর আঙিনায় পানির কূপে মেয়েকে ফেলে দেওয়া হয়।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের সহযোগিতায় কূপ থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করে। পরে ময়নাতদন্তের জন্য লাশটি ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

হালুয়াঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. শাহিনুজ্জামান খান বলেন, প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে গিয়ে তাঁরা সন্তানকে হত্যা করার কথা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছেন। আদালতে তাঁদের স্বীকারোক্তি রেকর্ড করা হয়েছে। পরে তাঁদের ময়মনসিংহ জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।