• আজ শনিবার, ১৮ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ৩ ডিসেম্বর, ২০২২ ৷

রাশিয়ায় যুদ্ধবিরোধী বিক্ষোভে গ্রেপ্তার প্রায় দেড় হাজার মানুষ


❏ রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২২ আন্তর্জাতিক

অনলাইন ডেস্ক : উক্রেন যুদ্ধে অংশ নিতে প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের রিজার্ভ সেনাদের ডেকে পাঠানোর ঘোষণার পর থেকে রাশিয়ায় বিক্ষোভ করছেন সাধারণ মানুষ।

চলমান বিক্ষোভ থেকে প্রায় দেড় হাজার মানুষকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে একটি মানবাধিকার গ্রুপ জানিয়েছে।

ওভিডি-ইনফো নামের মানবাধিকার সংস্থাটির বরাতে বিবিসি জানিয়েছে, শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) রাশিয়ার বিভিন্ন শহর থেকে ৭২৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

ইউক্রেনে যুদ্ধে যোগ দিতে গত বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) তিন লাখ সৈন্য সমাবেশ করার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। আর এ জন্য দেশটির রিজার্ভ সেনাদের ডেকে পাঠানো হয়েছে। সাধারণ মানুষের মধ্যে যাদের সামরিক প্রশিক্ষণ আছে তাদেরও এতে তালিকাভুক্ত করা হয়।

প্রেসিডেন্ট পুতিনের ওই ঘোষণার পর থেকেই রাশিয়াজুড়ে বিক্ষোভ শুরু হয়। আইন অনুযায়ী, অনুমতি ছাড়া সমাবেশ করা নিষিদ্ধ রাশিয়ায়। এরপরও দেশটির অন্তত ৩২টি শহরজুড়ে বড় আকারের বিক্ষোভ চলছে। বিক্ষোভ শুরুর পরই অন্তত ১ হাজার ৩০০ ব্যক্তিকে আটক করে নিরাপত্তা বাহিনী।

সবশেষ শনিবার ৩২টি শহর থেকে ৭২৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। শনিবার যাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে, তাদের কারও কারও হাতে সেনাবাহিনীতে জোগানের কাগজ দেওয়া হয়েছিল বলে জানা গেছে।

ক্রেমলিন এর আগে জানিয়েছিল, এটা আইনের মধ্যে থেকেই করা হচ্ছে। নতুন আইন অনুযায়ী, সেনাবাহিনীতে একবার নাম লেখানোর পর পালিয়ে গেলে বা দায়িত্ব পালন না করলে কঠোর শাস্তির বিধান রাখা হয়েছে।

এদিকে, পুতিনের রিজার্ভ সেনাদের ডেকে পাঠানোর ঘোষণার পর থেকে দেশ ছাড়তে শুরু করেছেন রাশিয়ানরা। বিশেষ করে যুদ্ধে যাওয়ার বয়সী তরুণদের দেশ ছেড়ে যাওয়ার খবর বেশি পাওয়া যাচ্ছে।