• আজ সোমবার, ২০ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ৫ ডিসেম্বর, ২০২২ ৷

সবজির হাটে নিয়ন্ত্রণ হারানো ট্রাক, নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৫


❏ রবিবার, অক্টোবর ২, ২০২২ ঢাকা, প্রধান খবর

নরসিংদী প্রতিনিধি : নরসিংদীর রায়পুরায় অস্থায়ী সবজির হাটে নিয়ন্ত্রণ হারানো কাঁচামালবাহী ট্রাকের ধাক্কায় সিএনজিচালিত অটোরিকশার যাত্রী, সবজি বিক্রেতাসহ পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে।

এই দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন অন্তত আরও চারজন। আজ রোববার ভোর ৬টার দিকে রায়পুরা উপজেলার ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের মাহমুদাবাদ এলাকার নামাপাড়ায় (মেশিনঘর) এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত ব্যক্তিরা হলেন রায়পুরার মাহমুদাবাদের মেশিনঘর এলাকার আলাউদ্দিন মিয়ার ছেলে সিদ্দিক মিয়া (৫৫), বীরশ্রেষ্ঠ মতিউরনগর গ্রামের বাদশা মিয়ার ছেলে মো. সিদ্দিক (৬২), বেলাব উপজেলার পোরাদিয়া এলাকার আবুল কাশেমের ছেলে আবুল কালাম ও ভৈরব ফেরিঘাট এলাকার বজলু মিয়া (৬০), উপজেলার নীলকুঠি এলাকার সোনা মিয়ার ছেলে আবুল কালাম। দুর্ঘটনার পর আবুল কালামকে (৫৫) তাঁর স্বজনেরা আহত অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা হাসপাতালে নেওয়ার পথে তাঁর মৃত্যু হয়। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন নিহত ব্যক্তির স্বজনেরা।

সেই সঙ্গে আহত ব্যক্তিদের ভৈরব ও ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

হাইওয়ে পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন জানান, ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা সবজিবাহী একটি ট্রাক বেপরোয়া গতিতে কিশোরগঞ্জের ভৈরবের দিকে যাচ্ছিল। ট্রাকটি ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের মাহমুদাবাদ এলাকা অতিক্রমের সময় বিপরীত দিকে সড়কের পাশে দাঁড়ানো যাত্রীবাহী একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশাকে পাশ কাটানোর সময় ধাক্কা দেয়।

এতে অটোরিকশার দুই যাত্রী নিহত হন। এ সময় ট্রাকটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মহাসড়কের পাশের একটি অস্থায়ী সবজি বাজারে ঢুকে বাজারে থাকা ক্রেতা-বিক্রেতাদের চাপা দিয়ে উল্টে যায়। এ সময়ে নিচে চাপা পড়েন অন্তত পাঁচজন সবজি ক্রেতা-বিক্রেতা। তাঁদের মধ্যে দুই সবজি বিক্রেতার মৃত্যু হয়। আহত ব্যক্তিদের প্রথমে ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে সেখান থেকে তিনজনকে ঢাকায় পাঠানো হয়।

খবর পেয়ে ভৈরব হাইওয়ে থানার পুলিশ ও স্থানীয় ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে নিহত ব্যক্তিদের লাশ উদ্ধার করেন। এ সময় দুর্ঘটনাকবলিত ট্রাক ও সিএনজিচালিত অটোরিকশাটি জব্দ করে হাইওয়ে থানায় নেওয়া হয়।

দুর্ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী মোবারক বলেন, ‘নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ট্রাকটি অটোরিকশাসহ বাজারে থাকা লোকজনকে চাপা দেয়। দুর্ঘটনাস্থল থেকে তিনটি লাশ উদ্ধার হয়। আহত ব্যক্তিদের হাসপাতালে পাঠানো হয়। কিছুদিন পরপর এমন দুর্ঘটনা ঘটবে তা আর চাই না।’

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় এক বাসিন্দা বলেন, ‘মহাসড়কে সিএনজিসহ নিষিদ্ধ যানবাহন পুলিশের সামনেই অসময়ে চলাচল করে। সিএনজির কারণে প্রায়ই দুর্ঘটনাগুলো ঘটছে। কিছুদিন পরপর ছোট-বড় দুর্ঘটনায় মানুষ মারা যায়। এ রকম দুর্ঘটনা থেকে মুক্তি চাই।’

এ বিষয়ে ভৈরব হাইওয়ে থানার পরিদর্শক মো. মোজাম্মেল হক জানান, ভৈরব থেকে গ্যাস নিয়ে ফেরা সিএনজিচালিত অটোরিকশাকে চাপা দিয়ে সবজিবাজারে ঢুকে উল্টে গিয়েছিল ট্রাকটি। এ দুর্ঘটনায় নিহত চারজনের মধ্যে দুজন অটোরিকশার যাত্রী, অন্য দুজন সবজি বিক্রেতা। ট্রাক ও অটোরিকশা দুটি জব্দ করা হয়েছে। এই ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আজগর হোসেন বলেন, ‘মহাসড়কের পাশে অবৈধ বাজার বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আইন অনুযায়ী পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।’