• আজ সোমবার, ২০ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ৫ ডিসেম্বর, ২০২২ ৷

যদি এমপি না হতাম, তাহলে একটা বিয়ের দাওয়াত খেতে পারতাম: মমতাজ


❏ বুধবার, অক্টোবর ৫, ২০২২ বিনোদন

বিনোদন ডেস্ক: প্রথমবারের মতো শ্বশুর হয়েছেন বাংলা সঙ্গীত জগতের রাজপুত্র আসিফ আকবর। নিজের বড় ছেলে শাফকাত আসিফ রণকে বিয়ে করিয়েছেন গোপালগঞ্জের মেয়ে ইসমত শেহরীন ঈশিতার সঙ্গে।

ওই বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দেশের সঙ্গীতাঙ্গনের নামকরা তারকারা। কিন্তু সেখানে দেখা যায়নি জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী মমতাজ বেগমকে।

এ নিয়ে আক্ষেপ প্রকাশ করে মঙ্গলবার (৪ অক্টোবর) ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন মমতাজ। যদিও তিনি সরাসরি আসিফের নাম উল্লেখ করেননি। তবে নেটিজেনদের বুঝতে বাকি নেই গায়িকা কোন বিয়ের দাওয়াত না পাওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন।

মানিকগঞ্জ-২ আসনের এই সংসদ সদস্য লেখেন, হায়রে রাজনীতি!!!! আজকে যদি এমপি না হইতাম তাহলে একটা বিয়ের দাওয়াত খেতে পারতাম!

তবে মমতাজকে ছেলের বিয়েতে আমন্ত্রণ না জানাতে পেরে দুঃখপ্রকাশ করেছেন আসিফ আকবর।

শিল্পীর ওই পোস্টের তলায় আবেগপ্রবণ দীর্ঘ বার্তা দিয়েছেন ‘ও প্রিয়া’ খ্যাত গায়ক। মমতাজকে বন্ধু সম্বোধনে আসিফ দাবি করেছেন, তাদের বন্ধুত্বের মাঝে রাজনীতি কখনও দেয়াল হয়ে দাঁড়াবে না।

মন্তব্যের ঘরে আসিফ আকবর লিখেছেন, ‘প্রিয় মম (মমতাজ এমপি)। তুমি আমি সেরা পারিবারিক বন্ধু, এখানে কোনদিনই রাজনীতি প্রবেশের সুযোগ নেই। মাত্র চারদিন সময় পেয়েছি ছেলের বিয়ের জন্য। সবকিছুই হুট করে হয়ে গেছে। তোমাকে কন্টাক্ট করার মত সরাসরি যোগাযোগের ব্যবস্থা আমার কাছে নাই। তবে তোমাকে মন থেকে ফিল করেছি। আমি তোমার সবসময়ের বন্ধু। একদিন সময় দাও বাচ্চাদের সহ, আমরা বাসায় তোমার সারাজীবন দাওয়াত। কষ্ট নিও না বন্ধু, ভুল হলে ক্ষমা চাই। নিশ্চয়ই দ্রুত আমাদের দেখা হবে। ভালবাসা অবিরাম বন্ধু। আমার ব্যক্তিগত সম্পর্কে রাজনীতির কোন চান্সই নেই, এবং তুমি সেটা জানো।’

প্রসঙ্গত, গত সোমবার (৩ অক্টোবর) রাতে রাজধানীর অফিসার্স ক্লাবে আসিফের বড় ছেলে রণ ও ঈশিতার বিয়ের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানস্থলেই বিয়ে পড়িয়ে দোয়া করা হয়। সেখানে দুই পরিবারের লোকজন ছাড়াও শোবিজের অনেক তারকা হাজির হয়েছিলেন।

এর আগে গত ২৪ সেপ্টেম্বর রণ-ঈশিতার বাগদান সম্পন্ন হয়েছে। পরবর্তীতে ২ অক্টোবর আয়োজন করা হয়েছিল তাদের মেহেদি সন্ধ্যা। নবদম্পতির জন্য অনুরাগীদের কাছে দোয়া চেয়েছেন আসিফ।