• আজ সোমবার, ১৩ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ২৮ নভেম্বর, ২০২২ ৷

সৌদিতে বাংলাদেশি প্রবাসীর রহস্যজনক মৃত্যু, অভিযোগ হত্যা


❏ শনিবার, অক্টোবর ২২, ২০২২ আন্তর্জাতিক

আব্দুল্লাহ আল মামুন,সৌদিআরব প্রতিনিধি: সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদে রেজাউল হক (৪৮) নামের এক রেমিট্যান্স যোদ্ধার রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। সৌদি পুলিশ নিজ রুম থেকে রেজাউলের গলায় ফাঁস লাগানো ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে।

নিহত রেজাউলের গলায় ফাঁস লাগানো ঝুলন্ত মরদেহের একটি ভিডিও সহকর্মীরা পাঠালে তা দেখে তার পরিবারের লোকজন বলছেন এটি আত্মহত্যা নয়। এটা একটা সুস্পষ্ট হত্যাকান্ড,তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে।

নিহত রেজাউল হক নোয়াখালীর জেলার কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চরপার্বতী ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের কাউমাঝির বাড়ির সৈয়দ আহমদের সন্তান ।

গত বুধবার দুপুরে রেজাউলের মৃত্যুর খবরটি পায় তার পরিবার। একই সঙ্গে পার্শ্ববর্তী সহকর্মীরা রেজাউলের গলায় ফাঁস লাগানো ঝুলন্ত মরদেহের একটি ভিডিও পাঠায়।

নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, রেজাউল দীর্ঘ ২০ বছর যাবত সৌদিআরব রয়েছেন। গত ৪ বছর আগে ছুটিতে বাংলাদেশে এসে আবার সৌদিআরব চলে যায়।চলতি বছরে একেবারে বাংলাদেশে ফিরে আসার কথা ছিলো রেজাউলের।

নিহতের ভাই ওবায়দুল হকের তথ্যে জানা যায়, রেজাউলের কর্মস্থলের কয়েকজন এটাকে আত্মহত্যা বলে প্রচার করছেন। নিহতের ভাইয়ের অভিযোগ যে, সে আত্মহত্যা করবে এমন কোন কারণ ছিলো না। দেশে পরিবার, স্ত্রী,সন্তান ও আত্মীয়স্বজন সবার সঙ্গে রেজাউলের অনেক সুসম্পর্ক ছিলো। তিনি দাবি করেন, রেজাউলের গলায় ফাঁস লাগানো ঝুলন্ত নিথর দেহের ভিডিও দেখে বোঝা যে যাচ্ছে সে আত্মহত্যা করেনি। নিহতের ভাই ওবায়দুল হক আরো জানান যে,সৌদিআরবের মালিকপক্ষ তাকে অনেক ভালোবাসতেন ।

তিনি অভিযোগ করন যে ,প্রতিহিংসা বসত কেউ তাকে হত্যা করে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দিচ্ছে। এদিকে, পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তিকে হারিয়ে এখন চোখে মুখে অন্ধকার দেখেছে নিহতের স্ত্রী ও দু’মেয়েসহ পুরো পরিবার। রেজাউলের মৃতদেহ দেশে আনতে আহাজারি করছে অসহায় পরিবার।অপরদিকে সৌদির আইনশৃঙ্খলা বাহিনী এই হত্যাকান্ডের বিষয়ে ব্যাপক তদন্ত অব্যাহত রেখেছে।